বিরাট ধাক্কা! চাইলে রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করতে পারে সিবিআই: হাইকোর্ট

কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারের গ্রেফতারির উপর স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করল কলকাতা হাইকোর্ট। ‘‘অভিযোগ ধর্তব্যযোগ্য হলে রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করা যেতে পারে’’, রাজীব মামলায় শুক্রবার এমনই রায় দিল হাইকোর্ট।

By: Kolkata  Updated: September 13, 2019, 05:36:12 PM

সারদা মামলায় বিরাট ধাক্কা খেলেন রাজীব কুমার। কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারের গ্রেফতারির উপর থেকে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করল কলকাতা হাইকোর্ট। শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্ট বলে, ‘‘অভিযোগ ধর্তব্যযোগ্য হলে রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করা যেতে পারে’’। উল্লেখ্য, সিবিআই নোটিসকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল। দীর্ঘদিন ধরে এ মামলার শুনানি চলেছে হাইকোর্টে এবং বারবার রাজীব কুমারকে রক্ষাকবচও দিয়েছে আদালত। তবে এদিনের রায়ে রাজীবের গ্রেফতারির উপর থেকে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করা হল। মনে করা হচ্ছে, এর ফলে রীতিমতো অস্বস্তিতে পড়লেন এই শীর্ষ পুলিশ কর্তা। আইন মহলের মতে, তবে হাইকোর্টের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার রাস্তা খোলা রয়েছে রাজীবের জন্য। কিন্তু কাল-পরশু শনি ও রবিবার হওয়ায় সুপ্রিম কোর্টে ছুটি। ফলে শীর্ষ আদালতে গেলে রাজীবকে সোমবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আর তার আগেই কঠোর পদক্ষেপ করতে পারে সিবিআই।

এদিন রাজীব কুমারের আইনি রক্ষাকবচ প্রত্যাহার করার ফলে রাজীবকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পাশাপাশি প্রয়োজনে (ধর্তব্যযোগ্য অভিযোগ থাকলে) গ্রেফতারও করতে পারবে সিবিআই। এক্ষেত্রে তদন্তকারী অফিসারই (আইও) এই সিদ্ধান্ত নেবেন।

আরও পড়ুন: ‘মমতা গ্রেফতার হবেন ৮ কোটি টাকা চুরির দায়ে’

শুক্রবারের রায়ে কলকাতা হাইকোর্ট জানায়, ‘‘৪১ এ ধারায় নোটিস মানেই গ্রেফতার নয়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর প্রয়োজন হলে তাঁকে গ্রেফতার করা হতে পারে। যদি সিবিআই আইন মেনে কাজ করে, তাহলে কারও কিছু বলার কোনও অধিকার নেই।” একজন শীর্ষ পুলিশ কর্তা হিসেবে তদন্তে সহযোগিতা করা রাজীব কুমারের উচিত, এ কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে হাইকোর্ট বলে, ‘‘বারবার প্রশ্ন করা তদন্তের অঙ্গ, রাজীবকে টার্গেট করা হচ্ছে, এটা প্রতিষ্ঠিত নয়।” উল্লেখ্য, “উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে” তাঁকে হেনস্থা করা হচ্ছে, আদালতে এমনই অভিযোগ করেছিলেন রাজীব কুমার

rajeev kumar, রাজীব কুমার রাজীব কুমার।

রাজীব মামলায় হাইকোর্টের রায় প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “সিবিআই বনাম রাজীব কুমার লড়াই হয়ে গিয়েছে। রাজীব কুমারের জন্য তৃণমূলের সমস্যা বেশি। সিবিআই চাইলে গ্রেফতার করতে পারে, করবে কি করবে না, তাদের ব্যাপার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওঁর (রাজীব) বাড়ি পর্যন্ত ছুটে গিয়েছিলেন, জানি না উনি বাঁচাতে পারবেন কিনা।”

আরও পড়ুন: বিজেপিতে যোগ দিতে চান অনুব্রত মণ্ডল! চাঞ্চল্যকর দাবি বিজেপি সাংসদের

রাজীব কুমার বনাম সিবিআই, ঠিক কীভাবে এগিয়েছে মামলা?

২২ এপ্রিল, ২০১৩: সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্তের জন্য গঠিত বিশেষ তদন্তকারি দল (সিট)-এর সদস্য নিযুক্ত হন ১৯৮৯ ব্যাচের আইপিএস রাজীব কুমার

৯ মে, ২০১৪: সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সিট-এর অধীনস্থ সমস্ত মামলা সিবিআই-এর হাতে তুলে দেওয়া হয়

২১ মে, ২০১৬: কলকাতা পুলিশের কমিশনার নিযুক্ত হন রাজীব কুমার

৪ জানুয়ারি, ২০১৭: প্রথমবার প্রকাশ্যে রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে সারদা মামলায় তথ্যপ্রমাণ নষ্ট করার অভিযোগ আনেন বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭: বিজয়বর্গীয়র নামে ফৌজদারি এবং মানহানির মামলা দায়ের করেন রাজীব কুমার

১৯ অক্টোবর, ২০১৭: রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চেয়ে প্রথম নোটিশ পাঠায় সিবিআই। জবাবে তিনি জানান, শহরে কালীপূজোর বন্দোবস্ত নিয়ে ব্যস্ত থাকায় তিনি তখন হাজিরা দিতে পারবেন না, কিন্তু নভেম্বরের শুরুতে পারবেন

২৩ অক্টোবর, ২০১৭: এর উত্তর না দিয়ে ফের একবার নোটিশ পাঠায় সিবিআই, যার জেরে ২৭ অক্টোবর সিবিআই-এর ডিরেক্টরকে চিঠি দিয়ে সমগ্র পরিস্থিতি জানান রাজীব কুমার। সেই চিঠিরও উত্তর আসেনি

আরও পড়ুন: ‘বৈশাখীর অভিমানের কারণ কি শোভনের পুরনো বান্ধবী?’

ডিসেম্বর ২০১৭: সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ আনে সিবিআই

১৩ জুলাই, ২০১৮: তদন্ত হাতে নেওয়ার চার বছর পর সিবিআই অতিরিক্ত হলফনামা দিয়ে জানায়, মামলায় সংগৃহীত বেশ কিছু তথ্য এবং নথি হয় নিখোঁজ, নাহয় সম্পাদিত। জবাবে রাজ্য পুলিশও হলফনামা জমা দেয়

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: সিবিআই-এর ২৫-৩০ জন আধিকারিকের একটি দল ‘গোপন অপারেশনে’ কলকাতায় রাজীব কুমারের সরকারি বাসভবনে উপস্থিত হয়। উল্লেখ্য, সেখানে সংবাদমাধ্যম উপস্থিত ছিল। এই দলকে বাসভবনে ঢুকতে বাধা দেয় পুলিশ। ঘটনার প্রতিবাদে মেট্রো চ্যানেলে তিনদিনের ধর্নায় বসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: রাজীব কুমারকে হেফাজতে নিতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে সিবিআই। গ্রেফতার করা যাবে না, বলে আদালত, কিন্তু জিজ্ঞাসাবাদ করা যাবে। সেইমত নিরপেক্ষ জায়গা হিসেবে শিলংয়ে ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে পাঁচদিন ধরে সিবিআই-এর প্রশ্নের উত্তর দেন রাজীব

১৬ মার্চ, ২০১৯: সুপ্রিম কোর্ট তথ্য লোপাটের প্রমাণ দেখতে চাওয়ায় ফের হলফনামা জমা সিবিআই-এর, কিন্তু কোথাও রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগের উল্লেখ ছাড়াই। কোনও চার্জশিট জমা পড়ল না

২৬ মার্চ, ২০১৯: রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে ‘গুরুতর অভিযোগ’ জানিয়ে আদালতে রিপোর্ট পেশ সিবিআই-এর। রাজীবের জবাব তলব আদালতের

১ মে, ২০১৯: বেশ কিছু শুনানির পর কেন রাজীবকে হেফাজতে নিয়ে জেরা প্রয়োজন, তার প্রমাণ দিতে সিবিআইকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের। মামলার রায়দান স্থগিত

১৭ মে, ২০১৯: রাজীবের গ্রেফতারির রক্ষাকবচ প্রত্যাহার সুপ্রিম কোর্টের

২৬ মে, ২০১৯: ফের নগরপালের সরকারি বাসভবনে সিবিআই হানা, কিন্তু সিআইডি-তে বদলি হওয়ার ফলে সেই বাসভবন ততদিনে ছেড়ে দিয়েছেন রাজীব কুমার। পরের দিন সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ

২৭ মে, ২০১৯: বারাণসীতে ৬ দিনের ছুটিতে রয়েছেন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার। সে কারণেই সিবিআইয়ের কাছে হাজিরা দিতে পারবেন না রাজীব। এ কথা চিঠি মারফৎ সিবিআইকে জানাল সিআইডি

৩০ মে, ২০১৯: রাজীব কুমারকে আরও একমাস গ্রেফতার করা যাবে না, জানাল কলকাতা হাইকোর্ট। তবে সিবিআইয়ের মুখোমুখি হতে হবে তাঁকে। কলকাতার বাইরেও যেতে পারবেন না রাজীব

৭ জুন, ২০১৯: সারদাকাণ্ডে রাজীব কুমারকে চার ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করল সিবিআই। এই প্রথমবার সল্ট লেকের সিজিও কমপ্লেক্সে সিবিআই-এর দফতরে হাজিরা দিলেন রাজীব

২ জুলাই, ২০১৯: ফের রাজীব কুমারের গ্রেফতারির ওপর স্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়ল হাইকোর্টে। বলা হলো, ২২ জুলাই পর্যন্ত কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে গ্রেফতার করা যাবে না

১৫ জুলাই, ২০১৯: জানা গেল, হাইকোর্টের নির্দেশে ১৭ জুলাই থেকে প্রত্যহ শুনানি চলবে রাজীব কুমারের মামলার, যতদিন না মামলার নিষ্পত্তি হচ্ছে

২২ জুলাই, ২০১৯: আরও এক সপ্তাহের জন্য কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে অন্তর্বর্তীকালীন সুরক্ষা দিল কলকাতা হাইকোর্ট

২৪ জুলাই, ২০১৯: বিচারপতি মধুমন্তী মৈত্রের এজলাসে রাজীব কুমারের আইনজীবী মিলন মুখোপাধ্যায় বলেন, সারদা কেলেঙ্কারির তদন্তের উদ্দেশ্যে গঠিত বিশেষ তদন্তকারী দলের ১২১ জন অফিসারের মধ্যে থেকে কেবলমাত্র রাজীব কুমারকেই যে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বেছে নিয়েছে সিবিআই, এর পেছনে কোনও নেতিবাচক উদ্দেশ্য রয়েছে

৩০ জুলাই, ২০১৯: রাজীব কুমারের গ্রেফতারিতে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশের মেয়াদ দু’সপ্তাহ পর্যন্ত বাড়ানোর নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

৮ অগাস্ট, ২০১৯: এবার রোজভ্যালি মামলাতেও নাম জড়াল রাজীব কুমারের। এই মামলায় রাজীব কুমারকে তলব করে নোটিস পাঠিয়েছিল সিবিআই। সেই তলবের প্রেক্ষিতে এক মাস সময় চেয়ে সিবিআইকে চিঠি দেন রাজীব।

৯ অগাস্ট, ২০১৯: আবারও সম্ভাব্য গ্রেফতারি থেকে রেহাই পেলেন রাজীব কুমার। ২০ অগাস্ট পর্যন্ত রাজীবকে গ্রেফতার করা যাবে না, জানাল কলকাতা হাইকোর্ট

১৬ অগাস্ট, ২০১৯: শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সারদাকাণ্ডে টানা চার ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করল সিবিআই। পাশাপাশি রোজভ্যালি কেলেঙ্কারিতে রাজীব কুমারকেও সাড়ে তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। এদিন সকালে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে চিঠি দিয়ে ফের সময় চান রাজীব। সেই চিঠি সিজিও কমপ্লেক্সে পৌঁছে দেন সিআইডি-র এক আধিকারিক। কিন্তু দুপুরে শেষ পর্যন্ত হাজিরা দেন রাজীব কুমার

২০ অগাস্ট, ২০১৯: অন্তত ২৮ অগাস্ট পর্যন্ত সারদা মামলায় রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবে না সিবিআই, নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের

২৯ অগাস্ট, ২০১৯: চিটফান্ড কেলেঙ্কারি মামলায় স্বস্তির মেয়াদ অবশেষে ফুরিয়ে এলো রাজীব কুমারের। বর্তমানে সিআইডি-র অতিরিক্ত ডিরেক্টর জেনারেলের গ্রেফতারের উপর স্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়ল মাত্র একদিনের জন্য, যেখানে আবেদন ছিল পাঁচ দিনের

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Kolkata News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Kolkata ex cp rajeev kumar cbi calcutta highcourt live updates

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং