মেয়ে হোক চায়নি মা, কোজাগরী রাতে শিশুকন্যাকে বালিশ চাপা দিয়ে খুন তরুণীর

লক্ষ্মীপুজোর রাতেই ঘরের লক্ষ্মীকে খুন করল জন্মদাত্রী মা, স্তম্ভিত পুলিশ।

প্রতীকী ছবি

কোজাগরী রাতে ছোট্ট লক্ষ্মী এসেছিল মায়ের কোলে। কিন্তু কন্যাসন্তান চায়নি তরুণী। তাই সদ্যোজাত শিশুকে হাসপাতালেই বালিশ চাপা দিয়ে দিয়ে মারল মা। নৃশংস এই কাণ্ড তিলোত্তমা কলকাতার। পুলিশ গ্রেফতার করেছে তরুণীকে। লক্ষ্মীপুজোর রাতেই ঘরের লক্ষ্মীকে খুন করল জন্মদাত্রী মা, স্তম্ভিত পুলিশ।

বুধবার রাতে দক্ষিণ কলকাতার একবালপুরের একটি নার্সিংহোমে এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড হয়েছে। অভিযুক্ত মহিলার নাম লাভলি সিং। সদ্যোজাত সন্তানকে খুন করার কথা নিজেই স্বীকার করেছে তরুণী। বালিশ চাপা দিয়ে খুন করার কথা জানিয়েছে সে।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার সকালে ভূমিষ্ঠ হয়েছিল ওই শিশুকন্যা। গত সোমবার হাসপাতালে ভর্তি হয় লাভলি। তার এবং পরিবারের আশা ছিল ছেলে হবে। মেয়ে হোক চায়নি মা ও পরিবার। বুধবার মধ্যরাতেও মায়ের পাশে বাচ্চাটিকে দেখেছিলেন ডাক্তার-নার্সরা। সুস্থই ছিল সে। বৃহস্পতিবার ভোরে দেখা যায় হাসপাতালের বেডে নিথর হয়ে পড়ে আছে শিশুকন্যাটি। ময়নাতদন্তে জানা গিয়েছে, শ্বাসরোধের জেরে মৃত্যু হয়েছে শিশুর।

আরও পড়ুন গড়িয়াহাট-কাণ্ডে ফোন বন্ধ রেখে গা ঢাকা মূল অভিযুক্ত ভিকির! মা মিঠুকে কোর্টে পেশ

এদিকে, পুলিশ আটক করেছে মহিলার স্বামীকে। তিনি বলেছেন, হাসপাতালের বেডে রাতে স্ত্রীর পাশেই শুয়েছিলেন তিনি। খানিকক্ষণের জন্য বাইরে গিয়েছিলেন। তখনই এই ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি তাঁর। মহিলাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর রাতে শিশুকন্যাকে এমন নৃশংসভাবে খুন লজ্জাজনক বলছে ওয়াকিবহাল মহল।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Kolkata news here. You can also read all the Kolkata news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Kolkata new born girl child strangle to death by mother in hospital woman arrested

Next Story
গত দু’বছরে অনেক কমেছে শহরে পথ দুর্ঘটনার হার, দাবি মমতার
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com