কলকাতায় মৃত ব্যক্তির চোখ খুবলে খেল ইঁদুর! উত্তাল আরজি কর

মৃতের ছেলে সুশান্ত দাস বলেন, ‘‘প্লাস্টিক খুলতেই দেখি, চোখ নেই। কর্মীরা জানালেন, ইঁদুর খুবলে নিয়েছে’’।

By: Kolkata  Updated: August 22, 2019, 08:37:27 AM

মর্গে রাখা ছিল মরদহে। সেখান থেকে দেহ বের করতে গিয়েই দেখা গেল, মৃত ব্যক্তির দু’চোখ উধাও। কোথায় গেল চোখ? মর্গের কর্মীরাই আন্দাজ করলেন হয়তো ইঁদুরই খুবলে নিয়েছে চোখ। এমন অভিযোগ ঘিরেই আরজি কর হাসপাতালে বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন মৃতের পরিজনরা। গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখতে কমিটি তৈরি করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ঠিক কী ঘটেছে?
৬৯ বছর বয়সী শম্ভুনাথ দাসের ময়নাতদন্তের জন্য তাঁর দেহ আরজি কর হাসপাতালে আনা হয়। সোমবার সন্ধ্যায় ময়নাতদন্তের পর মরদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়। প্লাস্টিকে মোড়া ছিল মৃতদেহ। প্লাস্টিক খুলতেই পরিবারের সদস্যরা দেখেন, মৃতের দু’চোখ নেই। এ প্রসঙ্গে মৃতের ছেলে সুশান্ত দাস বলেন, ‘‘প্লাস্টিক খুলতেই দেখি, চোখ নেই। কর্মীরা জানালেন, ইঁদুর খুবলে নিয়েছে’’। এরপরই দেহ নিতে অস্বীকার করেন পরিজনরা। হাসপাতাল চত্বরেই বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তাঁরা। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তদন্তের আশ্বাসে চিড়ে ভেজে।

আরও পড়ুন: ফের মেট্রোয় বিপত্তি, দরজা খোলা রেখেই ছুটল ট্রেন

এ প্রসঙ্গে আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের প্রিন্সিপাল শুদ্ধধন বটব্যাল বলেন, ‘‘আমরা গোটা বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখছি। আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে কমিটিকে’’। এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছেও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবারের সদস্যরা। অন্যদিকে, হাসপাতালের এক কর্মী জানান, ‘‘মর্গের চারপাশে প্রচুর ইঁদুর রয়েছে। অনেক চেষ্টা করেও ইঁদুরের দৌরাত্ম্য বন্ধ করা যায়নি’’। তবে এই প্রথমবার নয়, এর আগে ২০১৮ সালে কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে এক মৃত ব্যক্তির দেহ ইঁদুর খুবলে খেয়েছিল বলে জানা গিয়েছিল।

উল্লেখ্য, হাসপাতাল চত্বরে আবর্জনা নিয়ে সম্প্রতি আরজি কর হাসপাতালে নোটিস দিয়েছে কলকাতা পুরসভা। আগামী ৭ দিনের মধ্যে হাসপাতাল চত্বর পরিষ্কার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Read the full story in English

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Kolkata News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Rats gouge eyes of corpse in morgue r g kar medical college and hospital kolkata

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং