scorecardresearch

বড় খবর

পড়ুয়াদের উৎসাহ দিতে অভিনব উদ্যোগ, দুয়ারে হাজির ‘খুদে সরস্বতী’

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ‘পাড়ায় পাড়ায় শিক্ষালয়’ প্রকল্প চালু হচ্ছে। রাজ্যের এই তৎপরতাকে সফল করতে অভিনব উদ্যোগ বিদায়ী কাউন্সিলরের।

The councilor of ward no. 14 of Bidhannagar has taken an innovative initiative
পড়ুয়াদের উৎসাহ দিতে অভিনব উদ্যোগ বিদায়ী কাউন্সিলরের। ছবি: শশী ঘোষ।

খুদে পড়ুয়াদের পড়াশোনায় উৎসাহ দিতে অভিনব উদ্যোগ কাউন্সিলরের। ‘খুদে সরস্বতী’ নিয়েই পড়ুয়াদের বাড়ি-বাড়ি ঘুরলেন এলাকার কাউন্সিলর। ‘খুদে সরস্বতী’র হাত থেকে পেন-খাতা-পেন্সিল উপহার পেয়ে বেজায় খুশি কচিকাচার দল।

রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি খানিকটা নিয়ন্ত্রণে আসতেই স্কুল, কলেজ খোলার দাবি ওঠে বিভিন্ন মহল থেকে। করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গত ৩১ জানুয়ারি স্কুল, কলেজ খোলার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মতো বৃহস্পতিবার থেকেই খুলে গিয়েছে স্কুল, কলেজ-সহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

তবে স্কুলের ক্ষেত্রে আপাতত অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস শুরু হয়েছে। বাকি ক্লাসগুলির পড়াশোনা এখনও চালু হয়নি। তাদের স্বার্থেই এবার ‘পাড়ায় পাড়ায় শিক্ষালয়’ প্রকল্প চালু করছে চলেছে রাজ্য সরকার। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে চালু হচ্ছে রাজ্য সরকারের এই বিশেষ উদ্যোগ।

তার আগে এক অভিনব উদ্যোগ কলকাতা পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলরের। কাউন্সিলর অমল চক্রবর্তী বিধাননগরের এই এলাকার এক খুদে কন্যাকে ‘বিদ্যার দেবী’-র আদলে সাজিয়েছেন। সেই শিশুকন্যাকে বাগদেবীর সাজে সাজিয়ে এলাকার খুদে পড়ুয়াদের বাড়ি-বাড়ি ঘুরছেন কাউন্সিলর অমল চক্রবর্তী।

আরও পড়ুন- সকাল ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকছে তিলোত্তমার সবকটি পার্ক

বই, খাতা, পেন, পেন্সিল নিয়ে দুয়ারে হাজির এ যেন ‘জীবন্ত সরস্বতী’। এলাকার খুদে ছাত্রছাত্রীদের ‘পাড়ায় পাড়ায় শিক্ষালয়’ উদ্যোগে সামিল করতেই তাঁর এই তৎপরতা, এমনই জানিয়েছেন কলকাতা পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অমল চক্রবর্তী। উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর বৃহস্পতিবার থেকে ফের খুলেছে রাজ্যের স্কুল, কলেজ-সহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্বাস্থ্য বিধি চালু হয়েছে স্কুল, কলেজ।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Kolkata news download Indian Express Bengali App.

Web Title: The councilor of ward no 14 of bidhannagar has taken an innovative initiative