scorecardresearch

একটুকরো জাপান খাস কলকাতায়! স্মৃতির পাতায় আজও অমলিন

খাস কলকাতার বুকে এখনও জাপানিদের অস্তিত্বের সেই স্মৃতি আজও টাটকা।

একটুকরো জাপান খাস কলকাতায়! স্মৃতির পাতায় আজও অমলিন

কলকাতার একসময়ের সমৃদ্ধ জাপানি সম্প্রদায়ের ভুলে যাওয়া গল্প যা আজ শুধুই স্মৃতির মোড়কে মোড়ানো। একসময় কলকাতায় ১০ হাজারের বেশি জাপানি বসবাস করত। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। যা এখন অধিকাংশই স্মৃতিচিহ্ন হিসাবেই রয়ে গিয়েছে। ব্রিটিশদের পাশাপাশি খাস কলকাতার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে জাপানিরাও। কলকাতা সরাসরি যুদ্ধক্ষেত্র না হলেও, পূর্ব প্রান্তের যুদ্ধক্ষেত্রগুলির সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম রাস্তা ছিল। তাই জাপানি সেনাদের অন্যতম লক্ষ্য ছিল এই শহর।

শুধু জাপানি সেনা নয় পাশাপাশি অনেকেই কলকাতাকে ব্যবসা-বাণিজ্যের কাজেও লাগাত। আর তা করতে গেলে একটা স্থায়ী বাসস্থান যে দরকার, ধীরে ধীরে শহর কলকাতায় বাড়তে থাকে জাপানিদের আনাগোনা। সেই সব ভবন এখন কেবলই স্মৃতিচিহ্ন।

বিশেষজ্ঞদের মতে ১৯৪২-৪৩ সালে শহরের বেশ কিছু জায়গা তছনছ হয়ে গিয়েছিল জাপানি বোমার আঘাতে। আকাশপথে হামলা চালায় জাপানি বিমান। লক্ষ্য ছিল চিনের সঙ্গে যাবতীয় যোগাযোগ ব্যবস্থাকে ভেঙে ফেলা। কিন্তু, জাপানিরা এই কাজে ততটা সফল হতে পারেনি। শহরকে বাঁচানোর জন্য বড় বড় হিলিয়াম বেলুনেরও ব্যবস্থা করেছিল ব্রিটিশ প্রশাসন। তবে বিস্তর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল।

ভারতে বসবাসকারী বিদেশীদের মধ্যে, ১৯-এর দশকের মেট্রোপলিটান ঔপনিবেশিকদের মধ্যে কলকাতায় জাপানিদের সংখ্যা ছিল প্রচুর। বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে, ১০ হাজারের এরও বেশি জাপানি এই শহরেই বসবাস করতেন। বেশির ভাগ জাপানি বসতি গড়ে ওঠে কলকাতার খিদিরপুর বন্দর এলাকা এবং পার্ক স্ট্রিটের দক্ষিণ অংশে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় কলকাতা সাক্ষী থেকে বেশ কিছু ভয়াবহ বিমান হামলার। ক্ষয়ক্ষতিও হয়েছে বিস্তর। শহরকে বাঁচানোর জন্য বড় বড় হিলিয়াম বেলুনেরও ব্যবস্থা করেছিল ব্রিটিশ প্রশাসন। এর পর থেকেই এই শহরে বেশিরভাগ জাপানিকে শহর থেকে নির্বাসিত করা হয়েছিল বলেও মত বিশেষজ্ঞদের।

খাস কলকাতার বুকে এখনও জাপানিদের অস্তিত্বের সেই স্মৃতি আজও টাটকা। অবশিষ্ট বলতে জাপানিরা যেখানে বসবাস করতেন সেই কিছু ভবন এবং কিছু স্থান, যা সেই সময়ের কথা স্মরণ করিয়ে দেয় যখন জাপানিদের বিশেষ আগ্রহের নাম ছিল কলকাতা। কলকাতার একেবারে খোলস ছাড়ানো পুরনো বাড়ির মতোই কাঠের তিনতলা বিল্ডিংয়ের আবছা স্মৃতি রয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা একে ‘জাপানি কটেজ’ বলেই ডাকেন। স্থানীয়রা এপ্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা শুনেছিলাম এই বাড়িতে জাপানিরা বসবাস করত। তারা সম্ভবত কাছাকাছি কোন কারখানার সঙ্গে চাকুরি অথবা ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ছিল।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Kolkata news download Indian Express Bengali App.

Web Title: The forgotten story of calcuttas once thriving japanese community