বড় খবর

প্রতিদিনের ডায়েটে রাখুন আলমন্ড, তারপর ম্যাজিক দেখুন

খেতেও ভাল, স্বাস্থেও কার্যকর!

এর অনেক গুণ, অবাক করার মত

ড্রাই ফ্রুট খেতে কিন্তু অনেকেই পছন্দ করেন। কাজু কিশমিশ থেকে আলমন্ড, বিশেষ করে শিশুদের কিন্তু এগুলি বেজায় পছন্দ। আর সত্যি বলতে গেলে এগুলি শরীরের পক্ষে বেশ লাভদায়ক। দারুণ কাজ দেবে। আলমন্ড তার মধ্যে অন্যতম। যদিও বা অনেকের কাছেই এটি বেশ শুকনো খাবার তবে গুরুত্বপূর্ণ নিউট্রিশন দিয়ে কিন্তু পরিপূর্ণ। সকালবেলা দুই থেকে তিনটি আলমন্ড খাওয়া আপনার জন্য ভাল প্রমাণিত হতে পারে। 

আলমন্ড আসলে কত গুরুত্বপূর্ণ সেই সম্পর্কে জানতে গেলে প্রথমেই এতে কিধরনের বিশিষ্ট রয়েছে সেটি জানতে হবে। শরীরের সাপেক্ষে এটি নানানভাবে সুবিধে দিতে পারে। আলমন্ড মিল্ক এবং আলমন্ড কাস্টার্ড অথবা আলমন্ড ফ্রুট স্যালাড, যেভাবেই হোক আপনি কিন্তু এটি খাওয়া অভ্যাস করতে পারেন।  

আলমন্ড এর মধ্যে উপস্থিত থাকে প্রোটিন, এবং মনো স্যাচুরেটেড ফ্যাট যেটি আপনার ব্যথা বেদনা দুর করতে সক্ষম।  সঙ্গেই থাকে ফাইবার, যেটি আপনার হজমের সমস্যা দূর করে এবং পুষ্টি এবং নিউট্রিশন ত্বকের প্রয়োজনীয়তার ক্ষেত্রে দারুণ কাজ দেয়। 

প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকার কারণে কোষের অক্সিডেটিভ ড্যামেজ থেকে সুরক্ষা দেয়। তার সঙ্গেই শরীরের অতিরিক্ত প্রদাহ দুর করে। পিপাসা মেটায়। 

প্রতিদিন সকালে দুই থেকে তিনটে আলমন্ড খালি পেটে খাওয়া অভ্যাস করলে খিদে সহজেই নিবারণ হয় এবং সহজেই ওজন কমে যায়। 

অল্প বয়সের আকাঙ্খা? স্কিন যাতে বুড়িয়ে না যায় সেইদিকে যদি কাজ করতে চান তাহলে আলমন্ড খেতে হবে। ত্বক টানটান যেমন থাকবে তেমনই আপনার স্কিন উজ্জ্বল হবে। 

এটি ভীষণ পরিমাণে ভিটামিন ই -এর উৎস সমৃদ্ধ। বলা উচিত বিশ্বের সবথেকে বেশি ভিটামিন উৎস এর থেকেই মেলে। ভাল পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম যেমন থাকে তেমনই মিনারেল ইমিউনিটি বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। প্রতিদিন রাত্রে এক গ্লাস আলমন্ড দুধ খেলে কিন্তু আপনিই লাভ পাবেন। 

এবার বলি আলমন্ড কীভাবে সঠিকভাবে রাখা যায়? যাতে এটি নষ্ট হবে না! 

আলমন্ড কিন্তু সব পাত্রে রাখা চলে না। সেই কারণেই এটিকে রাখার প্রথম এবং ভাল উপায় হল, টিনের হালকা পাত্রে এটিকে রাখা। সেই কারণেই এটিকে এভাবেই রাখতে হবে। কাগজের ঠোঙ্গা অথবা প্লাস্টিক ব্যাগ কিংবা টিফিন বক্স এগুলিতে একেবারেই রাখবেন না। অবশ্যই রিস্টোর করতে পারেন কিন্তু চেষ্টা করবেন রুম টেম্পারেচার অবস্থায় রাখতে এটি ভাল থাকবে। অনেকেই ফ্রিজে রাখেন তবে টিনের ক্যানে মুড়িয়ে যদি বাইরেই রাখেন তবে ভাল! 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Lifestyle news here. You can also read all the Lifestyle news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Almond and its impact on health quite useful

Next Story
মীরা রাজপুতের স্কিনকেয়ার রুটিন জানেন? আপনিও কিন্তু ফলো করতে পারেন
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com