বড় খবর

সাইকেলে চেপে বিকল্প দীপাবলি উদযাপন 

আতস বাজির ধোঁয়ায় ঢেকে গেল না চারপাশ। শব্দ বাজির অত্যাচারে কান ঝালাপালাও হল না। শুধু দু’চাকায় আলো নিয়ে শহরের পথে পথে ঘুরে বেড়াল সত্তর আশি জন মানুষ।

শহরে অন্যরকম দীপাবলি উদযাপন

উৎসবের মরশুম। শারদীয়া, লক্ষ্মী পুজো পেরিয়ে কালী পুজো, দীপাবলির উদযাপনে শামিল হয়েছে গোটা বাংলা। আলোর রোশনাইয়ে ঝলমল করছে আশপাশ। শব্দবাজির প্রকোপ কিছু কমেছে। তাও পুরোপুরি নয়। এমন সময় একটু অন্যরকম ভাবনা নিয়ে কালী পুজো, দীপাবলি কাটাচ্ছে কলকাতা শহরের একদল উদ্যোগী তরুণ তরুণী। শনিবার সন্ধেতে আলোর উৎসব উদযাপিত হল দু’চাকায়।

আতস বাজির ধোঁয়ায় ঢেকে গেল না চারপাশ। শব্দ বাজির অত্যাচারে কান ঝালাপালাও হল না। শুধু দু’চাকায় আলো নিয়ে শহরের পথে পথে ঘুরে বেড়াল সত্তর আশি জন মানুষ। পরিবেশের সঙ্গে হাত ধরাধরি করে চলতে চাওয়া ক’জন মানুষ। দলের পোশাকি নাম কলকাতা সাইকেল সমাজ। ক্রমশ বাড়তে থাকা দূষণের মাঝে উদযাপনের একটু বিকল্প খুঁজে নিয়েছে এরা।

উদযাপনের ভাষা কেন চিরাচরিত থাকবে? বিশেষ করে সেই উদযাপন যদি পরিবেশের ক্ষতি করে? সেই ভাবনা থেকেই সাইকেলে করে দীপাবলি উদযাপনের কথা ভাবা। “উদযাপন থাকুক, কিন্তু দায়িত্ব থাকুক, পরিবেশের প্রতি একটু দায়বদ্ধতা থাকুক। যে পরিমাণ অর্থ শুধু নিজের উদযাপনের জন্য খরচ করছি, তার অর্ধেক খরচে এই সমাজের কত মানুষের পাশে থাকা যায়’, জানালেন ‘কলকাতা ক্লিন’ নামে এক প্রতিষ্ঠানের সদস্য গার্গী মৈত্র।

আরও পড়ুন, ফুরিয়ে আসছে অতীতের সঙ্গে যোগ , ফিকে হয়ে আসছে আকাশ প্রদীপ

গার্গী আরও জানালেন, “আমরা যদি একটু তাৎক্ষণিক আনন্দের বাইরে গিয়ে বড় ভাবে ভাবি, তাহলে নিজেরাই বুঝতে পারব, কোন উদযাপনের কী প্রভাব পড়বে”। সাইকেলে আলো দিয়ে সাজিয়ে পথ চলা তো হল। কিন্তু শনিবারের সকালটাও অন্যরকম কাটিয়েছেন ওরা। নিভু নিভু আঁচে বাঁচতে থাকা জীবনগুলোর সঙ্গে খানিকটা সময় কাটিয়ে এল ওরা। দিনভর চলল বৃদ্ধাশ্রম এবং বাচ্চাদের হোমের আবাসিকদের সঙ্গে ছোট ছোট আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার পালা। ওরা বিশ্বাস করে সহজেই হাতে হাত রাখা যায়। আর জীবন বেঁচে নেওয়া যায় ভাগাভাগি করে।

 

Web Title: Alternative diwali celebration in kolkata cycle

Next Story
বাজি ফাটানোর সময় কোন কোন বিষয় খেয়াল রাখা জরুরিkolkata diwali pollution firecrackers
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com