বড় খবর

ভোটের রাজ্যে বাংলা মিষ্টিময়

বাজার ছাপিয়ে হাওড়ায় হাজির বিভিন্ন দলীয় চিহ্নের ছাপের হরেকরকম মিষ্টি। জনপ্রিয়তায় মিষ্টির দৌড়ে তৃণমূলকে টেক্কা দিচ্ছে বিজেপি ।

উৎসাহী ক্রেতাদের ভীড় দলীয় প্রতীকের মিষ্টি কেনায়। ছবিঃ পার্থ পাল
উৎসাহী ক্রেতাদের ভীড় দলীয় প্রতীকের মিষ্টি কেনায় । ছবিঃ পার্থ পাল

বাংলার নির্বাচনী লড়াইয়ের ময়দানে এবার যোগ হতে চলেছে মিষ্টিমধুর মঞ্চ । রাজনৈতিক দলগুলি যখন লোকসভা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে তখনই বাজার ছাপিয়ে হাওড়ায় হাজির বিভিন্ন দলীয় চিহ্নের ছাপের হরেকরকম মিষ্টি। হাওড়ার নেতাজী সুভাষ রোডের মা গন্ধেশ্বরী মিষ্টান্ন ভাণ্ডার ক্রেতাদের জন্য নিয়ে এসেছে তেমনই কিছু “নির্বাচনী মিষ্টি”।

বাংলা আর মিষ্টি একে ওপরের সমার্থক। এই নির্বাচনের মরসুমে নতুন ধরনের চিন্তা ভাবনা নিয়ে বিশেষ ধরনের কিছু মিষ্টি উপহার দিতে চান বাংলার মিষ্টিপ্রেমীদের, জানালেন দোকানের কর্ণধার প্রদীপ হালদার। তৃণমূলের ঘাসফুল বাদে কংগ্রেসের হাত, বিজেপির পদ্মফুল এবং সিপিএমএর কাস্তে-হাতুড়ি-তারা সমস্ত চিহ্নেরাই রয়েছে এই নবনির্মিত মিষ্টিদের মধ্যে।
নিয়মিত ক্রেতা ও উৎসাহী দলীয় কর্মীরা প্রতিদিন তাদের পছন্দের রঙের সন্দেশ ও রসগোল্লা নিয়ে যাচ্ছেন। এই মুহুর্তে মিষ্টির দৌড়ে বিজেপি টেক্কা দিচ্ছে তৃণমূলকে, বললেন প্রদীপবাবু, যিনি গত ৩০ বছর ধরে মিষ্টি বিক্রি করছেন এবং এলাকায় জনপ্রিয় তার এই “থিম ভিত্তিক মিষ্টি”র জন্য।

আরো পড়ুন West Bengal Lok Sabha Elections 2019 LIVE Updates: কী ঘোষণা করবেন মোদী? তাকিয়ে গোটা দেশ

“এই প্রতিটি সন্দেশের দাম ৫০ টাকা করে এবং অন্যান্য মিষ্টির তুলনায় এগুলো আকারেও বড়ো। আমাদের দোকানের মিষ্টির দাম শুরু ২ টাকা থেকে ৫০টাকা পর্যন্ত। ‘নির্বাচনী মিষ্টি’রা সবচেয়ে দামি”, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বললেন দোকানের কর্মচারী দেবব্রত মাইতি। কিছু দিন আগে সিপিআইএম এবং কংগ্রেসের জোটের খবর পেতেই উভয় চিহ্ন যোগে বিশেষ ধরনের ডিজাইনের মিষ্টি তৈরী করেন তারা। পরবর্তীতে কোনও ধরনের জোট রূপায়িত না হওয়ায় মিষ্টিগুলোকে স্টক থেকে সড়িয়ে দেওয়া হয়।
কর্ণধার প্রদীপ হালদার জানান, প্রতিটি দলের প্রতীকী মিষ্টির দাম একই রাখা হয়েছে। চাহিদার তারতম্যে কখনওই তাদের গুণগত মানের সাথে কোনওরকম আপোষ করেন না তারা।

আরো পড়ুন Lok Sabha Election 2019: ‘‘বুথ দখল করতে এলে পা নয়, বুক লক্ষ্য করে গুলি করা হবে’’

এই লোভনীয় মিষ্টিদের আকর্ষণে দলে দলে আসছে বহু মানুষ। তেমনই একজন ক্রেতা , ব্যাঙ্কে চাকুরীরত ধৃতিমান ভট্টাচার্য্য কিনলেন ২০টি তৃণমূল রসগোল্লা। দলীয় ভাবধারায় নয়, স্বাদের রসধারায় কিনলেন এই সবুজ রসগোল্লা জানালেন তিনি।

সিপিআইএম কিংবা কংগ্রেস মিষ্টির লড়াইয়ে তেমন চাহিদা নেই কোনও দলেরই। বরং, ট্রে থেকে নিমেষে উধাও হচ্চছে তৃণমূল ও বিজেপির চিহ্নের প্রতীকী মিষ্টি জানালেন প্রদীপ হালদার। তিনি প্রতীক্ষা করে আছেন নির্বাচনের ফলাফলের উপর কারন হিসেবে জানালেন বিজয়ী দলের থেকে সেদিন প্রচুর পরিমানে মিষ্টির অর্ডার পান তারা। তবে তিনি এটাও বলেন যে, তিনি এই মিষ্টির মধ্য দিয়েই সকলকে উৎসাহিত করছেন একজন নাগরিক হিসেবে দেশের গণতন্ত্রের এই উৎসবে সামিল হয়ে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে।

Read the full story in English

Get the latest Bengali news and Lifestyle news here. You can also read all the Lifestyle news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Bittersweet fight ahead of lok sabha elections political battle finds a sweet turf

Next Story
‘ত্বকের যত্ন নিন’, বিশেষ করে গ্রীষ্মে
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com