scorecardresearch

বড় খবর

ব্ল্যাক কফি পছন্দ করেন? তবে এই বিষয়ে অবশ্যই জানা দরকার

কফির মধ্যে সবথেকে উপযোগী এটিই, কার্ব এবং সুগার ছাড়া এই পানীয় শরীরের ক্ষতিও করে না

প্রতীকী ছবি

কথায় বলে কফি অ্যাডিকশন অর্থাৎ দিনে রাতে কফি ছাড়া একেবারেই মানুষ চলতে পারেন না। এনার্জি হোক কিংবা মাথা ব্যথা- কফি না থাকলে কিন্তু অনেকের পক্ষেই কাজ করা দায়। বেশ কিছু মানুষ আছেন মিল্ক কফি পছন্দ করেন কিন্তু কেউ কেউ আবার ব্ল্যাক কফির অত্যধিক ভক্ত!!

ব্ল্যাক কফি পছন্দ হলে কিন্তু এই বিষয়ে অবশ্যই জানা দরকার। এর ভাল খারাপ যেমন জানতে হবে ঠিক তেমনই কখন এটি খাওয়া উচিত কিংবা উচিত নয় সেটিও জানা দরকার।

এর পুষ্টি আসলে কিরকম?

এটি ক্যালোরি ফ্রি এবং কার্ব তথা ফ্যাটযুক্ত একেবারেই নয়। অন্যদিকে মিল্ক কফি, অত্যধিক সুগার যুক্ত, কার্ব সমৃদ্ধ এবং তার সঙ্গেই তাতে ফ্যাট তথা নানা দ্রব্য মিশ্রিত থাকে।

এর গুণ সম্পর্কে জেনে নিন :-

  • ব্ল্যাক কফি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং সেই কারণেই এটি শরীরের নানা ঘাটতি মেটাতে সহায়ক। অনেক সময় দেখা যায়, শরীরের অতিরিক্ত দুর্বলতা এবং ক্লান্তিও ব্ল্যাক কফি দুর করে দিতে পারে।
  • শরীরে মেটাবোলিজম মাত্রা সক্রিয় করে। অনেক সময় হজমের সমস্যাতেও এটি বেশ ভাল ভূমিকা নেয়, পাচনে সাহায্য করে।
  • এতে যেহেতু ফ্যাট এবং কোলেস্টেরল থাকে না তাই এটি যথেষ্ট শরীরের পক্ষে সহায়ক এবং বাহ্যিক কোনও রোগ এর কারণে হতে পারে না।
  • মন খারাপ হোক কিংবা কাজে অনীহা, এটি সবথেকে ভাল কাজ করে, কারণ এটি মানুষকে চাঙ্গা রাখতে বেশ সহায়ক!

এর সাইড ইফেক্ট কী কী রয়েছে?

ব্ল্যাক কফি অতিরিক্ত মাত্রায় খেলেই কিন্তু বেশ কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে। নইলে কিন্তু একেবারেই কোনও অসুবিধে নেই যদি কেউ অল্প পরিমাণে বুঝে শুনে এটি পান করে।

যেমন উদ্বেগ এবং স্ট্রেস বাড়িয়ে তুলতে এটির জুড়ি মেলা ভার। আবার ঘুমাতে যাওয়ার আগে ব্ল্যাক কফির অর্থ, সহজে ঘুম না আসা এবং পরবর্তীতে এর থেকে ইনসোমনিয়া হতেই পারে। অতিরিক্ত ক্যাফেইনের কারণে হাইপার অ্যাসিডিটি খুব মাত্রায় বাড়তে পারে।

আবার অত্যধিক মাত্রায় ক্যাফেইন কিন্তু, খাবার কিংবা পানীয় থেকে মিনারেলস গ্রহণ করতে বাধা দেয় এছাড়াও শরীরে ভিটামিনের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে।

খালি পেটে ব্ল্যাক কফি খাওয়া যায়?

অনেকেই আছে ঘুম থেকে উঠেই কফি কিংবা চা অথবা পানীয় আশা করেন। আদৌ এটি কতটা গ্রহণযোগ্য? ক্যাফেইন শরীরে গাস্ট্রো ইন্তেনস্টাইন এর মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। এছাড়াও, খালি পেটে কফি খেলে শরীরে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যাওয়া খুব স্বাভাবিক! এমনকি লিভারের অবস্থাও খারাপ হতে পারে, সুতরাং ভেবে চিন্তে খাওয়াই ভাল।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Black coffee can be in your fav list heres what you know