বড় খবর

শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা নেই তো? শারীরিক এই সংকেতগুলি এড়াবেন না!

নজর এড়িয়ে যাবেন না, সংকেত বুঝুন

প্রতীকী ছবি

বয়স বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শারীরিক সমস্যার প্রকোপ বাড়ে। হৃদরোগ থেকে কিডনি, ফুসফুসের সমস্যাও বেজায় কষ্ট দেয় মানবদেহকে। আর একবার প্রেসার এবং সুগারের মাত্রা বাড়লে ধীরে ধীরে সব রোগের আগমন ঘটে শরীরে। 

কিন্তু এরকম অনেক রোগ আছে যেগুলি কে এককথায় আমরা এড়িয়ে যাই। শরীর আভাস দিলেও একরকম পাত্তা না দিয়েই জীবনে ব্যস্ততার কারণে গাফিলতি হতেই থাকে। কিন্তু শরীরকে উপেক্ষা করা কিন্তু খুব খারাপ। দিনদিন অবস্থা খারাপ হতে থাকে। লাংস কিংবা ফুসফুসের রোগের ক্ষেত্রে কিন্তু কিছু ধরনের সাধারণ লক্ষণ মাঝে মধ্যেই দেখা যায়। এগুলি থেকেই বুঝতে হবে আপনার ফুসফুসের অবস্থা ঠিক নয়। পুষ্টিবিদ লভ নীত বাত্রা বলেন, এই লক্ষণগুলি একেবারেই এড়িয়ে চলবেন না। এটি অন্তর্নিহিত স্বাস্থের অবস্থা নির্দেশ করে। সতর্কতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 

বুকে ব্যথা : প্রায় এক মাস মত এই বুকে ব্যাথা স্থায়ী হতে পারে। দিনদিন আরও অবস্থার অবনতি হয় বিশেষত যখন কাশি কিংবা জোড়ে শ্বাস নেওয়ার প্রশ্ন থাকে। 

•  দীর্ঘস্থায়ী শ্লেষ্মা : অর্থাৎ অতিরিক্ত মাত্রায় থুতু কিংবা কফ শ্লেষ্মা উৎপাদন করে। মাঝে মাঝেই মুখমণ্ডলে জ্বালা সৃষ্টি করতে পারে। জানবেন এটি ফুসফুসের রোগের লক্ষণ। 

•  হঠাৎ ওজন হ্রাস : ডায়েট কিংবা ওয়ার্ক আউট পদ্ধতি ছাড়াই যদি ওজন কমে যায়। তাহলে এটি সংকেত ফুসফুসের রোগের। ক্রমশই রোগের আকার যে বাড়ছে সেটিই এর লক্ষণ। 

শ্বাস প্রশ্বাসে পরিবর্তন : শ্বাসকষ্টের মুখোমুখি হলে জানবেন অচিরেই আপনার ফুসফুস খারাপ হতে চলেছে। বিশেষত ফুসফুসে টিউমার থেকে তরল পদার্থ নিঃসৃত হয়েই বায়ু চলাচল বন্ধ করে দেয়। ফলে শ্বাসকষ্ট হয়। 

কাশির সঙ্গে রক্ত : প্রায় আট সপ্তাহের মত বুকে কষ্ট এবং কাশির সঙ্গে রক্ত এলে ফুসফুসের দীর্ঘস্থায়ী ফুসফুসের সমস্যার লক্ষণ। রক্তের অল্প আভাস পেলেও সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

এই লক্ষণগুলি থেকে নজর এড়াবেন না, তাহলে কিন্তু খুব মুশকিল। 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Here are the signs you shouldnt ignore for your lungs

Next Story
পুজোর আগেই সুন্দর-ঘন চুল পেতে চান? মুশকিল আসান বাড়িতেই
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com