বড় খবর

মানসিক কারণেও কি কোভিড পরবর্তীতে হার্টের সমস্যা হতে পারে?

মানসিক অশান্তি কি কাল হয়ে দাঁড়াচ্ছে?

প্রতীকী ছবি

কোভিড আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই মানুষের মধ্যে নানান শারীরিক সমস্যা ক্রমশই বাড়ছে। একদিকে যেমন দুর্বলতা অন্যদিকে মানসিক অশান্তি এবং সেই সঙ্গেই শরীরের নানা অঙ্গপ্রত্যঙ্গের সমস্যা। কোভিডের পর কিন্তু অনেক মানুষের মধ্যেই হার্টের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। যাদের আগে থেকেই ছিল তাদের প্রবণতা বাড়ছে আর যাদের এমন কিছু ছিলই না তাদের নতুন করে এর সূত্রপাত। 

বেশিরভাগ মানুষের ক্ষেত্রে আক্রান্ত হওয়ার ৪ থেকে ৫ মাস পরেই এর জটিলতা দেখা দিচ্ছে। ইনফেকশনের বেশ কিছুদিন পর থেকেই এর প্রভাব সারা দেহে ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ছে। অনেকের ক্ষেত্রে সেই লক্ষণ প্রস্ফুটিত আবার অনেকেই বুঝতে পারছেন না প্রথম ধাপে। তবে হার্টের সমস্যার ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বাঁধা, হার্ট অ্যাটাক, বুকে ব্যথা, স্ট্রোক জাতীয় নানান সমস্যার কথা কিন্তু শোনা যাচ্ছে। 

এই হার্টের সমস্যার সঙ্গে কিন্তু গভীরভাবে জড়িত মানসিক প্রতিকূলতা এবং অশান্তি। সেই দিক থেকে বিচার করলে চারিদিকের পরিস্থিতি, আর্থিক দোটানা এবং মৃত্যুমিছিল মানুষকে মানসিকভাবে দুর্বল করে দিচ্ছে। ফলত সেই ঝুঁকি গিয়ে পড়ছে হৃদযন্ত্রের ওপর। যার থেকেও এই সমস্যা বেশ জোড়ালো আকার নিচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুযায়ী, অনেকেই মহামারীর প্রকোপ থেকে সুস্থ হওয়ার পথে বুকে ব্যথার সম্মুখীন হচ্ছেন এবং এটিই কিন্তু প্রাথমিক লক্ষণ। 

এমনকি দ্বিতীয় ঢেউএর পরেও, অল্প বয়সীদের মধ্যে এই বিপদ কিন্তু লক্ষ্য করা গেছে। একেতেই নিজের জীবন থেকে বিরতি এবং পরস্পরের সঙ্গে দেখাশোনার অভাব থেকেও মানসিক চাপ ভীষণ পড়ছে। নানান রকম উৎপটাং চিন্তাভাবনায় জীবন দূর্বিসহ। কারওর পড়াশোনায় সমস্যা তো কারওর কর্মজীবনে নানান বাঁধা, চিন্তামুক্ত হওয়ার কোনও লক্ষণ নেই। শ্বাস নিতে কষ্ট থেকে বুকে ব্যাথা এমনকি মাঝে মধ্যেই দম আটকে আসার মত শারীরিক গাফিলতি নজরে আসে। এমতাবস্থায়, যেকোনও বয়সের মানুষের ক্ষেত্রে প্রথম থেকেই অপেক্ষা না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। নয়তো পরে সামলানো মুশকিল হবে। 

বেশ কিছু চিকিৎসকরা এর আগেও মন্তব্য করেছিলেন, কোভিডের পর থেকেই মানবদেহে রক্ত জমাট বাঁধার একটি ছোটখাটো ইঙ্গিত মেলে। এটি খুব খারাপ লক্ষণ। রক্তনালীতে জমাট বাঁধা রক্তের দানাগুলি থেকে মারাত্মক বিপদ হতে পারে। এগুলিই সঠিক ভাবে রক্ত সঞ্চালন হতে দেয় না যেই কারণেই হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। শুধু তাই নয় এগুলি শ্বাস প্রশ্বাসে বাঁধা এমনকি খাবারের ইচ্ছে কমিয়ে দিতে পারে। তাই কোভিডের পর ভালও করে ফুল বডি চেক আপ খুব দরকার। 

চিকিৎসকদের সূত্রে, যোগা কিংবা প্রাণায়াম এই সময় সবথেকে বেশি উপযোগী এবং সেই সঙ্গে সঠিক ও পুষ্টিকর খাবার। প্রসঙ্গত আপনি যদি কোনওরকম উপরিক্ত অসুবিধে গুলির সম্মুখীন হন তবে বসে থাকবেন না, অবশ্যই চিকিৎসা করুন।

 ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Lifestyle news here. You can also read all the Lifestyle news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Is there any chance to have heart issues as after covid 19 because of mental trauma

Next Story
এবার পুজোয় বিরাট চমক, Yotto-র হাত ধরে বাড়ি পৌঁছবে ‘মায়ের ভোগ’
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com