scorecardresearch

বড় খবর

প্রোটিন পয়জিনিং সম্পর্কে শুনেছেন? জানেন এর লক্ষণ কী কী?

ভেবে চিন্তে খান প্রোটিন

প্রতীকী ছবি

শরীরের পুষ্টির জন্য প্রয়োজন সবকিছুই। ভিটামিন থেকে মিনারেলস, কার্ব এমনকি প্রোটিন তো অবধারিত। শরীরের সঠিক গঠন থেকে, হাড় শক্ত করতে হোক, ওজন কম করতে বলুন অথবা ত্বক এবং চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে। প্রোটিন কিন্তু বেজায় কার্যকরী। তবে অতিরিক্ত প্রোটিন আপনার শরীরে বেশ কিছু ক্ষতি করতে পারে এর সম্পর্কে জানা আছে? চিকিৎসা শাস্ত্রে একে প্রোটিন পয়জিনিং বলেই অভিহিত করা হয়। 

প্রতিটা মানুষের নিজস্ব শারীরিক একটি ক্ষমতা আছে। এবং সেই সীমা লঙ্ঘন করলেই কিন্তু অসুবিধে দেখা দিতে থাকে। সেই কারণেই একটি মানুষের এটি জানা উচিত যে কতটা পরিমাণ প্রোটিন গ্রহণ করলে মানবদেহের বিপদ হবে না। বিশেষজ্ঞর মতে আপনার দেহের এক কিলোগ্রাম ওজনের সাপেক্ষে ১ গ্রাম প্রোটিন আদতেই কার্যকরী। সব খাবারের মধ্যে প্রোটিনের পরিমাণ সমান নয় তাই সেই দিকটিও নজরে রাখতে হবে। সারাদিনে সবসময় প্রোটিন ইনটেক করা যায় না, তাই দিনের কোনসময় আসলেই এটির গ্রহণযোগ্য সেটি কিন্তু বিশদে জেনে নিতে হবে। 

তাহলে জেনে নিই, প্রোটিন পয়জিনিং – এর প্রাথমিক লক্ষণগুলি আসলে কি! 

ওজন বৃদ্ধি : এর ফলে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি পায়। প্রোটিন সহজেই মাসেল এবং দেহে কার্ব বৃদ্ধি করতে পারে। এমনকি বেশ কিছু ক্ষতিকর চর্বির সৃষ্টি করতে পারে। প্রোটিন বেশি মাত্রায় গ্রহণ করলে সহজে হজম হয় না এবং সেই থেকেই অনায়াসে ওজন বৃদ্ধি পায়, তার সঙ্গে ভুল সময়ে খাবার খাওয়ার ফলে এর থেকে খারাপ পরিমাণ অংশও শরীরে ঢুকে যায়। 

কোলেস্টেরল বৃদ্ধি : কি ভাবছেন? প্রোটিন হার্টের জন্য ভাল হলে কি করে কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করে? কিছুই না! অতিরিক্ত প্রোটিন যুক্তি খাবার যেমন ডিম এবং মাখন বিশেষত এগুলোই অত্যধিক মাত্রায় খেলে সেটি কিন্তু কোলেস্টেরল বাড়াতে পারে। কারণ এতে ফ্যাটের পরিমাণ বেশি থাকে তাই ভেবে চিন্তে। 

মেজাজ পরিবর্তন : আপনার মেজাজ কিন্তু সহজেই এর থেকে ওলোট পালোট হতে পারে। অত্যধিক মাত্রায় প্রোটিন খেতে থাকলেই দেহে কার্ব কমতে থাকবে সেই থেকেই মানসিক অবস্থা কিন্তু ঝামেলা সৃষ্টি করতে পারে। সেই থেকেই মন খারাপ, মুড সুইং এবং ডোপামাইন সঠিক ভাবে কাজ না করলে অনেকেরই ডিপ্রেশন দেখা দিতে পারে। 

পায়ে ফোলাভাব : বেশ কিছু খাবারের প্রোটিন কোলেস্টেরল বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গেই পায়ে ফোলাভাব বাড়িয়ে দিতে পারে। সেই থেকে অসহ্য পেশীতে ব্যাথা, হাঁটতে অসুবিধে এমনকি মাঝে মধ্যে পা অসাড় হতে পারে। 

কিডনি বিকল : বেশ কিছু প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার কিন্তু কিডনির নানান সমস্যা করতে সক্ষম। বিশেষভাবে যাদের পাকস্থলী নেই, খাবার হজমে অসুবিধে তাদের একেবারেই অনিয়ম করলে চলবে না। খাবার আগে ভাবনা চিন্তা করুন। 

শরীরের প্রয়োজনে অল্প বিস্তর সবকিছুই খান!

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Knew the fact of protein poisning here are the rest