scorecardresearch

বড় খবর

চৈতন্যের আগে থেকে জাগ্রত মুক্তকেশীর পীঠে সাধনা করতেন সিদ্ধপুরুষরা, পুজো করেছেন রামকৃষ্ণও

শ্রীরামকৃষ্ণের মায়ের শেষকৃত্য এই মন্দিরের পাশের শ্মশানে সম্পন্ন হয়েছিল।

চৈতন্যের আগে থেকে জাগ্রত মুক্তকেশীর পীঠে সাধনা করতেন সিদ্ধপুরুষরা, পুজো করেছেন রামকৃষ্ণও

শক্তি সাধনার সঙ্গে তন্ত্র অঙ্গাঙ্গীভাবে যুক্ত। শাক্তরা বিশ্বাস করেন, স্বয়ং শিব তন্ত্রসাধনার জন্ম দিয়েছিলেন। সেই সাধনাই শক্তিরূপে জগতের কল্যাণের জন্য আত্মপ্রকাশ করেছে। বঙ্গদেশে শক্তি সাধনা বরাবরই নানারূপে বিকশিত হয়েছে। তান্ত্রিক সাধকদের সাধনক্ষেত্র হিসেবে বিশেষ নাম করেছে এখানকার বিভিন্ন পীঠস্থান। যে সব পীঠস্থান কোনও না-কোনও দেবীর মন্দির ঘিরে তৈরি করেছে জনশ্রুতি।

এমনই এক পীঠস্থান মুক্তকেশী কালী মন্দির। চৈতন্যদেবেরও আগের সময় থেকে এই কালী মন্দির ও তার সংলগ্ন আড়িয়াদহ শ্মশান তান্ত্রিক সাধকদের সাধনক্ষেত্র হিসেবে বিখ্যাত। সাধারণ মানুষের কাছে এই ব্যাপারে খুব বেশি খোঁজ না-থাকলেও সাধকদের সেই খোঁজ পেতে বিলম্ব হয়নি। শ্রীরামকৃষ্ণের মায়ের শেষকৃত্য এই শ্মশানে সম্পন্ন হয়েছিল। এই শ্মশানের কাছেই রয়েছে মুক্তকেশী কালী মন্দির। ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ এই মন্দিরে আসতেন। পুরোহিতের আসনে বসে তিনি দেবীর পূজাও করেছেন।

আরও পড়ুন- জাগ্রত দেবী গুহ্যকালী, যাঁর পুজো দিতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন ভক্তরা

এই মন্দির প্রথমে ছিল তালপাতার। পরে, ১২৪৭ বঙ্গাব্দে তা দালান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। সমতল ছাদবিশিষ্ট মন্দির। এই মন্দিরের বিশেষত্ব, দেবীর গর্ভগৃহ দক্ষিণমুখী। কিন্তু, মন্দিরের পশ্চিম দিকে রাস্তা বা মন্দিরটি পশ্চিমমুখী। মন্দিরের প্রবেশ পথের ডানদিকে রয়েছে শ্বেতপাথরের প্রতিষ্ঠাফলক। সকাল ৭টা থেকে ১১টা আর, বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা এই মন্দির খোলা থাকে। আর শ্যামাপূজা, দুর্গাপূজা, অক্ষয় তৃতীয় ও অন্নকূট উৎসবে এই মন্দির সারাদিন খোলা থাকে।

আগে এখানে পাঁঠা বলি হত। এখন দেওয়া হয় চালকুমড়া, আখ, কলা বলি। নিত্যপূজা তো চলেই। পাশাপাশি, জ্যৈষ্ঠ মাসে ফলহারিণী কালী পূজা, কার্তিক মাসে দীপান্বিতা কালী পূজা, মাঘ মাসের কৃষ্ণা চতুর্থীতে রটন্তী কালী পূজা এখানে মহাসমারোহে আয়োজিত হয়। এই শক্তিপীঠের বা মন্দিরের ভৈরব শান্তিনাথ। যাঁকে শিবলিঙ্গ রূপে নিত্য পুজো করা হয়। ভক্তরা বিশ্বাস করেন, দেবী মুক্তকেশী অত্যন্ত জাগ্রত। তিনি ভক্তের কামনা, বাসনা পূরণ করেন। ভক্তদের শান্তি দেন, স্বস্তি দেন। আড়িয়াদহে গঙ্গার ফেরি ঘাটের কাছে এই শ্মশান ও মন্দির।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Muktakeshi kali temple in ariadaha