ওজন বেশি হলেই কি কোভিডের ঝুঁকি বেশি? কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

স্থূলতা কমিয়ে শরীরকে রোগমুক্ত রাখুন

প্রতীকী ছবি

করোনা মহামারী নিয়ে নতুন নতুন বিষয়ের শেষ নেই। প্রতিদিন নতুন কোনও তথ্যই মানুষের জীবন যাত্রাকে বেহাল করে তুলেছে। বিগত দুই বছরের রোগ অসুস্থতা এবং মৃত্যুমিছিল মানুষকে মানসিক এবং শারীরিকভাবে নিস্তেজ করে রেখেছে। তারপরেও নিত্যনতুন স্ট্রেন ক্রমশই জিইয়ে রাখছে মারণ ঝুঁকি। প্রথম থেকেই একটি বিষয়ে বারবার জোর দিয়েছেন চিকিৎসকরা, যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদেরই নাকি আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা সবথেকে বেশি। 

তবে এবারে নতুন বিষয় যাদের ওজন অতিরিক্ত বেশি তাদের মধ্যেই কী বেশি থাকছে এর সম্ভাবনা? গবেষণা বলছে ভ্যাকসিন গ্রহণের পরেও যাদের ওজন বেশি তারা কিন্তু আক্রান্ত হতেই পারেন। স্থূলতা এর মাত্রা বৃদ্ধি করে খুবই খারাপ পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে। চিকিৎসকদের মতে, স্থূলতা ইমিউন সিস্টেম কে দুর্বল করে দিতে পারে এবং সেই থেকেই মহামারী বাসা বাঁধতে পারে সেই শরীরে। 

বেশ কিছু চিকিৎসকরা মনে করছেন যেসকল রোগীরা স্থুলতা কম করেছেন, তারা কিন্তু অনেক সহজেই রোগের সঙ্গে লড়তে পেরেছেন। এবং বলা উচিত থাইরয়েড, ডায়াবেটিস, শ্বাসকষ্টের সমস্যায় যারা ভোগেন তাদের থেকেও বেশি তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়েছেন। কিন্তু স্থূলতার সঙ্গে এটি কীভাবে সরাসরি সম্পর্কযুক্ত? 

স্থূলতা শুধু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার ব্যাঘাত ঘটায় সেটাই নয়, বরং সারাদেহে অতিরিক্ত পরিমাণে প্রদাহ সৃষ্টি করতে পারে। এবং শরীরে প্রদাহ বেশি হলে হার্টের সমস্যা দেখা দেয় সঙ্গেই করোনারি আর্টারি একটি বেজায় মুশকিল অসুস্থতা। এবং অতিরিক্ত ওজন বাড়ার ফলে ইমিউনিটি কমে গেলে শ্বাসকষ্ট, ডায়াবেটিসের সমস্যা নতুন করেও শরীরে দেখা দিতে পারে। গবেষণা এমনও বলছে স্থূলতার কারণে শরীরে সাইকোটিনস বেশি মাত্রায় ক্ষরণ হয় এবং এর থেকেও শারীরিক ভুলভ্রান্তি মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে। রাসায়নিক বিক্রিয়া ঘটিয়ে সুস্থ কোষগুলিকে ব্যস্ত করতে সক্ষম সঙ্গেই টিস্যু জ্বালিয়ে দিতে পারে। 

সুতরাং নিজেকে ওজন থেকে সুস্থ রাখতে গেলে প্রথমেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। সঙ্গে প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ মিনিট পর্যন্ত ব্যায়াম করা আবশ্যিক। 

অত্যধিক বাইরের খাবার, জাঙ্ক ফুড খাওয়া একেবারে বন্ধ করে দিতে হবে। তেল ছাড়া খাবার খেলেই ভাল। 

ধূমপান এবং মদ্যপান করা বন্ধ করে দিতে হবে। 

প্রতিদিনের খাবারে ফাইবার, প্রোটিন এবং ভিটামিন যোগ করা প্রয়োজন তবে চর্বি এবং কার্ব কম করা দরকার। 

মাঝেমধ্যেই হেলথ চেকআপ করানো উচিত। 

ওজন আয়ত্বে রাখলে শরীরে সব রোগের সূত্রপাত কম হবে, এবং আপনিও নিশ্চিন্তে থাকতে পারবেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Obesity can cause covid 19 more effective to a person

Next Story
কোভিডের পর ঘ্রাণ এবং স্বাদ ফিরে পেতে সমস্যা? আয়ুর্বেদে রয়েছে সমাধান