কার্তিক পুজোয় মেলে অশেষ ফল, তাই পণ্ডিতরা দেবসেনাপতির আরাধনায় জোর দেন: Pandits emphasize this puja because Kartik Puja is blessed with endless results | Indian Express Bangla

কার্তিক পুজোয় মেলে অশেষ ফল, তাই পণ্ডিতরা দেবসেনাপতির আরাধনায় জোর দেন

সূর্যের রাশিবদলের ওপর কার্তিক পুজো নির্ভর করে।

কার্তিক পুজোয় মেলে অশেষ ফল, তাই পণ্ডিতরা দেবসেনাপতির আরাধনায় জোর দেন

আজ কার্তিক পুজো। শাস্ত্র মতে, কার্তিক পুজো সূর্যের গতির ওপর নির্ভর করে। সূর্য যখন তুলা থেকে বৃশ্চিকে গমন করে, সেই দিন বা কার্তিক মাসের শেষ দিন হয় কার্তিক পুজো। পঞ্জিকা মতে অবশ্য ১৬ নভেম্বর বুধবারই সন্ধ্যা ৭টা ১৬ মিনিটেই রাশি পরিবর্তন করে তুলা থেকে বৃশ্চিকে গমন করেছে সূর্য। পৌরাণিক দেবতা কার্তিকের হাজারো নাম।

তিনিই কৃত্তিকাসুত, আম্বিকেয়, নমুচি, কুমার, সৌনসেরা, গুহ, পাবকি, মহাসেন, ষন্মুখ, কুমারেশ, গাঙ্গেয়, বিশাখ, মহাসেন, কুক্কুটধ্বজ, নৈগমেয় সবই। দক্ষিণ ভারতে তিনি পরিচিত মুরুগান নামে। তামিল হিন্দুদের বিশ্বাস, মুরুগান তাঁদের রক্ষাকর্তা। ভারতের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, মরিশাস-সহ যেখানেই মুরুগান দেবতা সুপরিচিত, সেখানেই কার্তিক পুজো হয়।

আমাদের রাজ্যের কার্তিক সংক্রান্তিতে চুঁচুড়া, বাঁশবেড়িয়া, কাটোয়া-সহ বিভিন্ন জায়গায় বেশ বড় আকারে কার্তিক পুজো হয়। তাছাড়া, ঘরে ঘরে কার্তিক পুজোর চল তো রয়েছেই। শাস্ত্রমতে পুত্রলাভ, ধনলাভ, শত্রুর থেকে রক্ষা এবং মনস্কামনা পূরণের জন্য কার্তিক পুজো করা হয়।

যেহেতু সন্তানলাভ এই পুজোর অন্যতম লক্ষ্য থাকে, তাই তাই কার্তিক ঠাকুরের আসনে পুত্র সন্তানের প্রয়োজনীয় সকল সামগ্রী দেওয়া হয় যেমন- ছেলেদের জামা, খেলনা ( ঘুড়ি, ব্যাট, বল, বাঁশি, গুলি), স্লেট-পেনসিল, বর্ণপরিচয়, তির- ধনুক ময়ূর পুচ্ছ-সহ বিভিন্ন সামগ্রী। এছাড়া ফল তো আছেই। জলপাই এই পুজোয় অপরিহার্য। ভোগের অন্যতম প্রধান উপকরণ হল পায়েস।

আরও পড়ুন- শিব-পার্বতীর ছেলে বলে নয়, সন্তানলাভে কার্তিক পুজো হয় সম্পূর্ণ ভিন্ন কারণে

পুরাণ অনুসারে কার্তিকের গায়ের রং হলুদ। তাঁর বাহন ময়ূর। সৌন্দর্য এবং শৌর্য তাঁর, দুটি বৈশিষ্ট্যই রয়েছে। কার্তিকের ছয়টি মাথা। তাই তিনি ষড়ানন। পাঁচটি ইন্দ্রিয় অর্থাৎ চোখ, কান, নাক, জিভ ও ত্বক ছাড়াও একাগ্র মন দিয়ে তিনি যুদ্ধ করেন। তাঁর হাতে থাকে বর্শা-তির-ধনুক।

যদিও পণ্ডিতদের একাংশের মতে, মানব জীবনের ষড়রিপু- কাম (কামনা), ক্রোধ (রাগ), লোভ (লালসা),মদ (অহং), মোহ (আবেগ), মাত্সর্য্য (ঈর্ষা)কে সংবরণ করে দেবসেনাপতি কার্তিক যুদ্ধক্ষেত্রে সর্বদা সতর্ক থাকেন। তরুণ, সুন্দর এবং শক্তিধর কার্তিক থাকেন সেনাবাহিনীর অগ্রভাগে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Pandits emphasize this puja because kartik puja is blessed with endless results

Next Story
রূপ নিয়ে ঘনিষ্ঠরাই কটাক্ষ করে? জবাব দিন চাণক্যের শ্লোকেই