scorecardresearch

বর্ষায় বাড়ছে গাঁটের ব্যথা, যন্ত্রণায় ভুগছেন? তাহলে উপায়!

বেশিরভাগ ষাটোর্ধ্ব মানুষরাই এই সমস্যার সম্মুখীন হন। হাঁটতে চলতে অসুবিধার সঙ্গে ঘুমের সময় মাঝে মাঝেই অসহ্য ব্যথার কারণে ভুগছেন অনেকেই।

বর্ষায় যেমন প্রকৃতি সুন্দর। চারিদিকে সবুজ সতেজতা মনোরম আবহাওয়া। তেমনই বর্ষা কিন্তু মানুষের শারীরিক ব্যাঘাত ঘটাতে ভীষণ সাবলীল। পেটের সমস্যা থেকে জ্বর জ্বালা এবং অন্যান্য সমস্যার মধ্যে চুল পড়া, শুষ্ক ত্বকের প্রভাব বেশ লক্ষ্যনীয়। তবে কি এটা জানেন, আপনার গাঁটের ব্যথা বর্ষায় ভীষণ মাত্রায় যন্ত্রণা দিতে পারে? সোজা কথায় বর্ষাকালে বাড়তে পারে এই ধরনের ব্যথা। 

দিল্লির অ্যাপোলো স্পেকট্রা করোল বাগের অর্থোপেডিক সার্জন ডা অশ্বিনী মাইচাঁদ জানান, পরিবর্তিত আবহাওয়া এবং জয়েন্টের ব্যথার মধ্যে একটি সম্পর্ক রয়েছে। ঠান্ডা আবহাওয়া জয়েন্টগুলোতে চাপ দিতে পারে। আর্দ্রতার মাত্রা, বায়ুমণ্ডলীয় চাপ, তাপমাত্রায় হঠাৎ পরিবর্তন এবং বৃষ্টিপাতের কারণে অনেকে জয়েন্টের ব্যথা, পেশী শক্ত হয়ে যাওয়া এবং আঘাতের ব্যথা অনুভব করেন। এর কারণ হল উচ্চ আর্দ্রতার মাত্রা রক্তকে ঘন করতে পারে, রক্তনালীতে রক্তচাপ বাড়ায় এবং রক্তের পাম্পিং প্রক্রিয়াকে অমসৃণ করে তোলে, যার ফলে শরীরের নানান জায়গায় পেশিগুলী শক্ত হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

বায়ুমণ্ডলে আদ্রতার পরিমাণ শরীরে জলশূন্যতার সঙ্গে সম্পর্কিত। সেই কারণেও কিন্তু বাড়তে পারে ব্যথা। পেশীগুলোর চারিপাশে তরলের ঘনত্ব ক্রমশ কমে যায় এবং ব্যথা বৃদ্ধি পায়। বেশিরভাগ ষাটোর্ধ্ব মানুষরাই এই সমস্যার সম্মুখীন হন। হাঁটতে চলতে অসুবিধার সঙ্গে ঘুমের সময় মাঝে মাঝেই অসহ্য ব্যথার কারণে ভুগছেন অনেকেই। সুতরাং, এটি উপেক্ষা করার পরিবর্তে ব্যথা কী করে কম করা যায় সেইদিকে নজর রাখা উচিত। 

কী কী ভাবে আরাম পেতে পারেন

গরম এবং ঠান্ডা সেক: এটি পেশী এবং জয়েন্টগুলোতে ব্যথা উপশমের অন্যতম সেরা উপায়। গরম বা ঠান্ডা সেক জয়েন্টের ব্যথা উপশম করতে সাহায্য করতে পারে। কিংবা জয়েন্টগুলোতে তেল লাগানোর পর আলতো করে  ম্যাসাজ করুন; এটি রক্ত ​​সঞ্চালনও উন্নত করবে। ঠান্ডা সেক কিন্তু বর্ষাকালে একটি নতুন আঘাত বা অস্বস্তি মোকাবিলায় উপকারী হতে পারে।

শীতাতপ যন্ত্র বা এসি থেকে দূরে থাকুন: জয়েন্ট বা হাড়ের সমস্যাযুক্ত ব্যক্তিদের জন্য এয়ার কন্ডিশনার সুপারিশ করা হয় না কারণ এটি ব্যথা আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে। 

শারীরিকভাবে সক্রিয় থাকুন: ব্যায়াম আপনার জয়েন্টগুলোতে ব্যথা এবং শক্ত পেশীগুলির জন্য একটি দারুন উপায় হতে পারে। সকালে হাঁটতে যেতে ভুলবেন না, পেশীগুলি প্রসারিত করুন, যোগব্যায়াম অবশ্যই করুন, পায়ের ব্যায়াম ভুলবেন না। পাইলটস, পারকৌর, অ্যারোবিক্স, শক্তি প্রশিক্ষণ বা জয়েন্টগুলিকে পরিচালিত রাখতে  সাইক্লিং করুন। কিন্তু ওভারবোর্ডে যাওয়া এড়িয়ে চলুন কারণ এটি আপনার জয়েন্টগুলির ক্ষতি করতে পারে। আপনি কোন ব্যায়ামগুলি করতে পারেন তা বোঝার জন্য একজন ফিজিওথেরাপিস্টের পরামর্শ নিন এবং কিছু ব্যায়াম ব্যথা বাড়িয়ে তুলতে পারে সেগুলি এড়ানো উচিত।

•  সঠিক এবং পুষ্টিকর খাবার খান: ভিটামিন ই জয়েন্টের ব্যথায় উপশম দিতে পারে। এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা শরীরকে রেডিক্যাল থেকে রক্ষা করে যা শরীরের পেশী এবং এমনকি ত্বকের কোষগুলিকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। তাছাড়া, ভিটামিন ই ব্যথা এবং প্রদাহ কমাতেও সাহায্য করতে পারে।

আরও পড়ুন ডায়েটে রাখুন ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার আর ফল দেখুন

কী কী খাবেন: বাদাম, অ্যাভোকাডো, বেরি, সবুজ শাকসবজি, বীজ এবং মাছ পুষ্টিকর খাবারের ভাল উৎস। ফল, গোটা শস্য, বাদাম এবং আখরোট কিন্তু ভাল উপাদেয়। গরম স্যুপ খেলে শরীরে প্রদাহ কমতে পারে এবং সঠিক পরিমাণে জল পান আপনাকে হাইড্রেটেড থাকতে, জয়েন্টের স্থিতিস্থাপকতা উন্নত করতে এবং ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে।তিল, সূর্যমুখী বীজ, পনির এবং ডিম খেতে ভুলবেন না।

কী কী খাবেন না: আচার, মিষ্টি, মিষ্টি, কেক, পেস্ট্রি, কৃত্রিম মিষ্টি এবং স্বাদ, কোলা, সোডা, আচার, প্রক্রিয়াজাত, তৈলাক্ত এবং টিনজাত খাবার এড়িয়ে চলুন যা আপনার ব্যথা আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।  শরীর হাইড্রেটেড রাখতে এবং ফোলা নিয়ন্ত্রণ করতে সোডিয়াম যুক্ত খাবার খাওয়া কমিয়ে দিন। এমনকি একটি ক্যালসিয়াম এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য আপনার স্বাস্থ্যের জন্য বিস্ময়কর কাজ করতে পারে।বর্ষাকালে ঠিক কি ধরনের খাবার আপনার খাওয়া উচিত এবং কোনটা উচিত নয় সে বিষয়ে আপনার বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া দরকার।

তাহলে, এই নিয়মগুলি মেনে চলুন! আর গাঁটের ব্যথা এক্কেবারে ছু মন্তর!!

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: What causes joint pain in monsoon