বড় খবর

দূষণ বাড়ানোয় নতুন খলনায়ক, সমুদ্রে ভেসে উঠছে মাস্ক-গ্লাভস

গত ৫ মাস যাবত সমুদ্রসৈকতের স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করছেন ‘ওশান এশিয়া’ নামে একটি সংস্থার গবেষকেরা। তাঁদের মতে, গত কয়েকমাসে এশিয়ার বিভিন্ন সৈকতে বিপুল পরিমাণে সার্জিক্যাল মাস্ক মিলছে।

কেবল মানুষই নয়, করোনা-সংক্রমণের মধ্যে নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে এবার পরিবেশও। এক্ষেত্রেও খলনায়ক মারণ ভাইরাস কোভিড-১৯। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পরিবেশবিদ এবং পরিবেশ আন্দোলনের কর্মীদের মাথাব্যাথার কারণ হয়ে উঠেছে ব্যবহৃত ও পরিত্যক্ত সার্জিক্যাল মাস্ক এবং গ্লাভস। অভিযোগ, হংকং-এর সমুদ্র সৈকত থেকে শুরু করে আমেরিকার শহরাঞ্চল- সর্বত্রই দূষণের মাত্রা বাড়াচ্ছে পরিত্যক্ত মাস্ক ও গ্লাভস, পিপিই কিট। বিশেষ করে সমুদ্রসৈকতের পরিবেশ নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে করোনা রুখতে ব্যবহৃত এই উপকরণগুলির কারণে।

বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই এখন মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। অধিকাংশ সরকারই রীতিমতো নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছে, মাস্ক ছাড়া রাস্তায় বেরনো নৈব নৈব চ। নাগরিকরা করোনা আতঙ্কের জেরে মাস্ক কিনছেনও দেদার। কেবলমাত্র ওষুধের দোকান নয়, নামী বস্ত্র বিপণীর ম্যানিকুইনের মুখেও ঝুলছে মাস্ক। রংবেরং মাস্ক ধীরে ধীরে জায়গা করে নিয়ে নিচ্ছে ফ্যাশন মানচিত্রেও। কিন্তু সেসবের জেরেই আতঙ্কিত পরিবেশবিদেরা।

আরও পড়ুন, পিঠোপিঠি বেড়ে ওঠা কদম গাছটা উপড়ে গেল ঝড়ে! সন্তানকে একটু কাঁদতে দিন

গত ৫ মাস যাবত সমুদ্রসৈকতের স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করছেন ‘ওশান এশিয়া’ নামে একটি সংস্থার গবেষকেরা। তাঁদের মতে, গত কয়েকমাসে এশিয়ার বিভিন্ন সৈকতে বিপুল পরিমাণে সার্জিক্যাল মাস্ক মিলছে। এর ফলে ব্যপক ক্ষতির মুখে পড়ছে সামুদ্রিক পরিবেশ। সিগারেটের টুকরো, ফাঁকা বোতল, খাবারদাবারের প্যাকেটের পাশাপাশি রাবারের গ্লাভস ও মাস্ক বিষিয়ে দিচ্ছে সামুদ্রিক পরিবেশ। কেন পরিবেশের জন্য বিপজ্জনক গ্লাভস ও মাস্ক? পরিবেশবিদদের বক্তব্য, কারণ মূলত দুধরনের। প্রথমত, এগুলো ফ্রেবিক ও প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি হয়। যা একেবারেই বায়োডিগ্রেডেবল নয়। দ্বিতীয়ত রংবেরঙের গ্লাভস ও মাস্ক আকৃষ্ট করে সামুদ্রিক প্রাণীদের। ওশান এশিয়ার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা গ্যারি স্টোকসের কথায়,ৎ”কিছুদিনের মধ্যে সামুদ্রিক প্রাণীদের মৃতদেহেও মিলতে পারে করোনা রুখতে ব্যবহৃত গ্লাভস ও মাস্ক”।

কেবল সমুদ্রসৈকতই নয়, শহরের পরিবেশের জন্যও বিপজ্জনক হয়ে উঠছে ব্যবহৃত সার্জিক্যাল মাস্ক। আমেরিকার মিয়ামি শহরে সক্রিয় পরিবেশকর্মী মারিয়া অ্যালগার্না সম্প্রতি শুরু করেছেন #দ্য_গ্লাভস_চ্যালেঞ্জ নামে একটি অনলাইন ক্যাম্পেন। নেট-নাগরিকদের কাছে তিনি পরিত্যক্ত গ্লাভস ও মাস্কের ছবি পোস্ট করার আবেদন করেছেন। মারিয়ার আশঙ্কা, আগামীতে শহরের পরিবেশ বিপুল ক্ষতিগ্রস্ত হবে ফেলে দেওয়া গ্লাভস ও মাস্কের কারণে। অতএব, কেবল মানুষ নয়, করোনা আতঙ্কে পরিবেশও থরথরিকম্প।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Lifestyle news here. You can also read all the Lifestyle news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: World environment day pollution caused by mask gloves new threat

Next Story
Happy Father’s Day 2020: কবে থেকে এল ফাদার্স ডে-র ভাবনা, কী এর প্রাসঙ্গিকতা?fathers day history
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com