scorecardresearch

বড় খবর

‘পিএফআই নিষিদ্ধ হলে আরএসএস কেন নয়?’, প্রশ্ন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর, আরও পদক্ষেপের দাবি বামেদের

পিএফআইয়ের নেতা-কর্মীরা সংগঠনের নাম বদলে কাজ চালিয়ে যেতে পারেন বলে আশঙ্কা বামেদের।

‘পিএফআই নিষিদ্ধ হলে আরএসএস কেন নয়?’, প্রশ্ন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর, আরও পদক্ষেপের দাবি বামেদের
পিএফআইয়ের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান।

কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকার পিএফআইকে নিষিদ্ধ করার পর গর্জে উঠলেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব। তাঁর দাবি, এবার আরএসএসকেও নিষিদ্ধ করতে হবে। কারণ, পিএফআই যেমন মৌলবাদী সংগঠন। তেমনই আরএসএসও মৌলবাদী সংগঠন। অতীতে লালকৃষ্ণ আদবানির রথযাত্রা রুখে দিয়েছিলেন লালুপ্রসাদ যাদব। সেই সময় তিনি বিহারের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তাঁর কাছ থেকে এমন দাবি তাই প্রত্যাশিতই ছিল বলে রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি।

ঠিক কী বলেছেন, লালুপ্রসাদ যাদব? তিনি বলেছেন, ‘পিএফআই নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। এটা অত্যন্ত ভালো ব্যাপার। আরএসএস-সহ পিএফআইয়ের মত সব সংস্থাকেই নিষিদ্ধ করা উচিত।’ আরএসএসের সঙ্গে তিনি পিএফআইয়ের তুলনা করছেন কেন? এই প্রশ্নে লালু বলেন, ‘PFI এমন একটি সংগঠন যার চরমপন্থী দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। তবে, তারা কখনও বিরোধীদের বিরুদ্ধে হিংসাত্মক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়নি।’ যা অনেকটা আরএসএসের মতই বলে মনে করছেন লালুপ্রসাদ যাদব।

দীর্ঘদিন ধরেই লালুপ্রসাদের সঙ্গী বাম দল সিপিএম। তারা আবার মনে করছে, এই জাতীয় মৌলবাদী সংগঠনকে নিষিদ্ধ করাই সমস্যা মোকাবিলার একমাত্র পথ নয়। এই ব্যাপারে বিবৃতিতে সিপিএম বলেছে, ‘বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন (UAPA)-এর অধীনে একটি বেআইনি সংগঠন হিসেবে PFI-এ ঘোষণা করা এই সমস্যা মোকাবিলার সেরা উপায় নয়।’

আরও পড়ুন- দেশজুড়ে নিষিদ্ধ করা হয়েছে পিএফআইকে, কী এর তাৎপর্য?

এই কথা বলতে গিয়ে লালুপ্রসাদ যাদবের মতই পিএফআইকে আরএসএসের সঙ্গে এক আসনে বসিয়েছেন সিপিএম নেতৃত্ব। তাঁরা বলেছেন, ‘অতীতের অভিজ্ঞতায় দেখা গিয়েছে যে আরএসএস এবং মাওবাদীদের মতো সংগঠনের ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর ছিল না। PFI যখনই বেআইনি বা হিংসাত্মক কার্যকলাপে লিপ্ত হবে, কেবলমাত্র তখনই তার বিরুদ্ধে চলতি আইনেই দৃঢ় প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে হবে।’

কীভাবে পিএফআইকে রুখতে হবে, মোদী সরকারকে তার দিশাও বাতলে দিয়েছে সিপিএম। এই প্রসঙ্গে সিপিএম বলেছেন, ‘পিএফআইয়ের সাম্প্রদায়িক এবং বিভাজনমূলক মতাদর্শ জনগণের কাছে তুলে ধরতে হবে। আর, জনগণের মধ্যে থেকে রাজনৈতিকভাবে লড়াই করতে হবে।’ সিপিএম নেতৃত্ব মনে করছেন, এমনটা না-হলে পিএফআইয়ের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা নাম বদলে তাদের সংগঠনের কাজকর্ম চালিয়েই যাবেন।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: After pfi ban lalu prasad yadav demands ban on rss