scorecardresearch

বড় খবর

কেন ক্ষমতায় থাকতে ৩৭০ ধারা বাতিল করল না কংগ্রেস? জনসভায় প্রশ্ন মোদীর

“কেন ক্ষমতায় থাকতে ৩৭০ ধারা বাতিল করল না কংগ্রেস? সংসদে তো করার কথা বলেছিল তারা, তবে করল না কেন?” হরিয়ানার রেওয়ারিতে এক নির্বাচনী জনসভায় জানতে চান মোদী।

কেন ক্ষমতায় থাকতে ৩৭০ ধারা বাতিল করল না কংগ্রেস? জনসভায় প্রশ্ন মোদীর
ছবি সৌজন্য: টুইটার/নরেন্দ্র মোদী

শনিবার হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিনে ভারতের পূর্বতন কংগ্রেস সরকারের উদ্দেশে আরও একবার আক্রমণ শানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর বক্তব্য, দেশের ‘গ্র্যান্ড ওল্ড পার্টি’ গত ৭০ বছর ধরে জম্মু-কাশ্মীরকে অবহেলা করে এসেছে। তিনি প্রশ্ন তোলেন, কেন কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকতে সেরাজ্যে বাতিল করা হয় নি সংবিধানের ৩৭০ এবং ৩৫ ‘এ’ ধারা।

“কেন ক্ষমতায় থাকতে ৩৭০ ধারা বাতিল করল না কংগ্রেস? সংসদে তো করার কথা বলেছিল তারা, তবে করল না কেন?” হরিয়ানার রেওয়ারিতে এক নির্বাচনী জনসভায় জানতে চান মোদী। সিরসার এক জনসভায়ও একই প্রসঙ্গ তোলেন তিনি।

রেওয়ারিতে মোদী আরও বলেন, “গত ৫ অগাস্ট এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেয় আমাদের সরকার। বাতিল করা হয় ৩৭০ এবং ৩৫ ‘এ’ ধারার কিছু অংশ। কংগ্রেস সরকার সন্ত্রাস এবং সন্ত্রাসীদের মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়েছে। আমাদের সেনাবাহিনী বা তাঁদের পরিবারদের কথা ভাবে নি। কংগ্রেস সরকার নিজেদের গদি বাঁচাতেই ব্যস্ত ছিল, দেশকে বাঁচাতে নয়।”

আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির কিছুই বোঝেন না, প্রচারসভায় সোচ্চার রাহুল

অন্যদিকে নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিনে মহারাষ্ট্র চষে বেড়ালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। হরিয়ানা এবং মহারাষ্ট্রে আগামী ২১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বিধানসভা নির্বাচন। শনিবার শাহ দিনের প্রথম ভাষণ দেন নওয়াপুরে। এর পর তিনি আকোলার আইটিআই ময়দানে ভাষণ দিয়ে দিন শেষ করেন কারজাটের ভাইওয়াড়িতে একটি প্রচারসভায়।

শনিবার শাহ ঘোষণা করেন যে তিনি গর্বিত এই ভেবে, যে দেশের উপজাতি এবং অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণীর (ওবিসি) ভোটাররা নরেন্দ্র মোদীর সরকারকে বেছে নিয়েছেন। মহারাষ্ট্রের নওয়াপুরে এক সভায় শাহ বলেন, “এর কারণ হলো, দেশে সর্বাধিক সংখ্যক উপজাতি এবং ওবিসি বিধায়ক রয়েছেন বিজেপিতেই।”

মহারাষ্ট্রে শুক্রবারই তাঁর প্রচার অভিযান সম্পন্ন করেন মোদী। এদিন তিনি প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী, বর্তমানে দিল্লির তিহার জেলে বন্দী পি চিদাম্বরমকে নিশানা করে বলেন, “যারা দেশের ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থার সর্বনাশ করেছিল, তারা আজ জেলে আছে।”

হরিয়ানায় শনিবার মোদী বলেন, “বিজেপি বরাবরই হরিয়ানার উন্নতিসাধনের চেষ্টা করেছে, সে রেওয়ারি হোক বা গুরুগ্রাম (গুড়গাঁও), ঝাজ্জর হোক বা অন্যান্য জেলা। বিদ্যুৎ পরিবহণ বলুন বা পানীয় জল, আমরা সবসময়ই হরিয়ানার উন্নতি করার চেষ্টা করেছি।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Assembly elections 2019 maharashtra haryana narendra modi amit shah rahul gandhi