scorecardresearch

বড় খবর

‘আজাদী’ স্লোগানে এবার কড়া পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

কানপুরে যোগী বলেন, ‘প্রতিবাদের নামে কেউ যদি কাশ্মীরের মতো আজাদী স্লোগান তোলে তাহলে তা বিশ্বাসঘাতকতা বলে বিবেচিত হবে।’

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।
‘আজাদী’স্লোগান হল দেশদ্রোহিতা। উত্তরপ্রদেশে সিএএ বিরোধী আন্দোলনকারীদের মুখে এই স্লোগান উচ্চারিত হলে রাজ্য কঠোর পদক্ষেপ করবে। কানপুরের এক সভা থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সিএএ-এর প্রতিবাদে দিল্লির শাহিনবাগ থেকে কলকাতার পার্ক সার্কাস, লখনউয়ের ঘন্টাঘর থেকে প্রয়াগ-রাজের মনসুর আলি পার্কে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন মহিলারা। যার বিরুদ্ধেও সরব হন যোগী। বিষয়টিকে ‘লজ্জাজনক’ বলে দাবি করেন তিনি।

কানপুরে সিএএ-এর পক্ষে বিজেপির সভায় ভাষণ দিচ্ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেখানেই তিনি বলেন, ‘প্রতিবাদের নামে কেউ যদি কাশ্মীরের মতো আজাদী স্লোগান তোলে তাহলে তা বিশ্বাসঘাতকতা বলে বিবেচিত হবে। রাজ্য সরকার এর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করবে।’

আরও পড়ুন: প্রয়োজনে উত্তরপ্রদেশেও লাগু হবে এনআরসি: যোগী আদিত্যনাথ

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে দেশের নানা জায়গায় বিক্ষোভে বসেছেন মহিলারা। উত্তরপ্রদেশের লখনউয়ের ঘন্টাঘর, গোমতীনগর ও প্রয়াগরাজের মনসুর আলি পার্কে নয়া আইন ধর্মের ভিত্তিতে তৈরি, সংবিধান বিরোধী বলে মনে করছেন প্রতিবাদীরা। সিএএ বাতিলের দাবিতে সোচ্চার আন্দোলনকারী মহিলারা। এই ধরনের প্রতিবাদের ক্ষেত্রে পুরুষদের কটাক্ষ করতে ছাড়েননি আদিত্যনাথ। তিনি বলেছেন, ‘পুরুষদের সাহস নেই আন্দোলনে শামিল হওয়ার। তারা জানে যে ভাঙচুর করলে তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে। তাই তারা মহিলা ও শিশুদের রাস্তায় আন্দোলন করতে পাঠাচ্ছেন। এটা একটা বড় অপরাধ।’

আরও পড়ুন: আজহারউদ্দিনের বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ, দায়ের এফআইআর

কেন মহিলারা সিএএ-এর বিরুদ্ধে পথে নেমে আন্দোলন করছেন? সাধারণ মানুষকে তা জিজ্ঞাসা করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘বাড়ি থেকে বলেছে বলেই মহিলারা রাস্তায় আন্দোলন করছেন। সিএএ কি তা তারা জানেন না।’

একই সঙ্গে যোগী বিরোধী সমাজবাদী পার্টি, কংগ্রেস ও বামেদের বিরুদ্ধেও সুর চড়িয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘কতটা লজ্জার যে দেশকে ঝুঁকির মুখে ফেলে রাজনীতি করতে পিছু-পা হচ্ছে না বিরোধী দলগুলো। যারা সিএএ সমন্ধে কিছুই জানে না সেইসব মহিলাদের আন্দোলন করতে এগিয়ে দেওয়া হচ্ছে।’ তাঁর সংযোজন, ‘বিরোধীদের জন্য দেশ গুরুত্বপূর্ণ নয়, হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন এবং পার্সি গুরুত্বপূর্ণ নয়। কংগ্রেসের কাছে এখন খ্রিষ্টানরাও গুরুত্ব হারিয়েছে। বিরোধী শিবির এখন বলছে, আইএসআই এজেন্টদের ভারতে প্রবেশ করতে না দেওয়া পর্যন্ত সিএএ বিরোধী আন্দোলন চলতে থাকুক।’

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Azadi slogan treason yogi adityanath strict action uttar pradesh caa protest