scorecardresearch

বড় খবর

গায়ক নাকি রাজনীতিবিদ-‘গভীরভাবে ভাবাচ্ছে আমাকে’, বাবুলের পোস্ট ঘিরে গুঞ্জন

“জীবনে অনেক হার দেখেছি কিন্তু মনটাকে কখনো হারতে দিইনি – হার মানতে শেখায়নি!! কঠিন সময়েও মুখে হাসি রেখেছি – হাল ছাড়িনি কখনো।”

গায়ক নাকি রাজনীতিবিদ-‘গভীরভাবে ভাবাচ্ছে আমাকে’, বাবুলের পোস্ট ঘিরে গুঞ্জন
বাবুলের পোস্ট ঘিরে জল্পনা

গায়ক থেকে রাজনীতিবিদ হয়ে ওঠা, কিন্তু এখনও বোধহয় তাঁর গায়ক সত্বাই মানুষের হৃয়জুড়ে রয়েছে। এমনটাই মনে করছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ো। বৃহস্পতিবার ফেসবুকে একটি দীর্ঘ পোস্ট করেছেন বাবুল। সেখানেই নিজের উপলোব্ধি তুলে ধরতে গিয়ে আসানসোলের সাংসদ লিখেছেন, “বেশ কিছুদিন ধরেই আমি অত্যন্ত আনন্দের সাথে লক্ষ্য করছি যে আমার গান নিয়ে কোনো পোস্ট করলেই আপনারা অকুন্ঠ ভালোবাসা প্রকাশ করছেন| গুটি কয়েক নেগেটিভ কম্মেন্ট বাদ দিলে, বাকি সবই অত্যন্ত সুন্দর সব লেখা| কখনো আনমনে বসে যখন ভাবছি তখন কোথাও যেন মনে হচ্ছে কমেন্টগুলি ‘দলমত নির্বিষেশে’ গায়ক বাবুলকে লেখা| কিছু নাম চিনতে পারছি যারা হয়তো অন্য সময়ে আমার রাজনৈতিক পোস্টগুলোতে আমাকে তীব্র আক্রমণ করেন বা কটু ভাষা লেখেন কিন্তু এখন সম্পর্ণ অন্যরকম লাগছে সেই একই মানুষগুলোর লেখা| বলছেন রাজনীতি ছেড়ে দিতে!! কথা গুলো গভীরভাবে ভাবাচ্ছে আমাকে।”

দলের নির্দেশে চলতি মাসেই মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়ো। আর তারপরই সোশাল মিডিয়ায় তাঁর একের পর এক পোস্ট ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। প্রশ্ন উঠতে থাকে, তাহলে কি তৃণমূল কংগ্রেসে যাচ্ছেন বাবুল?‌ সেই সময় অবশ্য জল্পনা নস্যাৎ করেছিলেন স্বয়ং বাবুলই। তিনি ফেসবুকে লিখেছিলেন যে, ‘দয়া করে আমাকে এসবের মধ্যে জড়াবেন না। আমাকে আমার কাজ দিয়ে বিচার করুন। এই সমস্ত জল্পনা দিয়ে নয়।’ এদিনের পোস্টের পরও অবশ্য বাবুল সুপ্রিয়ো লিখেছেন, তাঁর উপলোব্ধি “রাজনৈতিক নয়”।

আরও পড়ুন- রাজ্যে ফের বাড়ল বিধি-নিষেধের মেয়াদ, কড়া রাতের নিয়ন্ত্রণ

যদিও এতে গুঞ্জন থামার বদলে উস্কে উঠলো। বাবুল সুপ্রিয়ো এরপরও নিজেই ফেসবুকে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী লিখেছেন, “রাজনীতিতে কিছু পাওয়ার আশায় বা ‘পাওয়ার’-এর আশায় তো আসিনি | তাহলে 2014 তে তখন অজানা-অচেনা ‘আসানসোল’-এ লড়লাম কেন? জিতেছি- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রী করেছেন, 2019-এ আবার জিতেছি, উনি আবার মন্ত্রী করেছেন| আজ মন্ত্রী নেই বলে ছেড়ে চলে যাওয়াটা কি ঠিক হবে?? জীবনে অনেক হার দেখেছি কিন্তু মনটাকে কখনো হারতে দিইনি – হার মানতে শেখায়নি!! কঠিন সময়েও মুখে হাসি রেখেছি – হাল ছাড়িনি কখনো|”

তাহলে কি মন্ত্রিত্ব যাওয়ার যন্ত্রণা এখনও বাবুলের মনে দগদগে হয়ে রয়েছে। আর সেই যন্ত্রণাই একদিকে যেমন রাজনীতিবিদ বাবুলের ঘুরে দাঁড়ানোর হাতিয়ার, ঠিক তেমনই মাঝেমধ্যেই তাঁকে নাড়িয়ে দিচ্ছে। বাবুলকে ভাবাচ্ছে গায়ক, নাকি রাজনীতিবিদ, কোনটা মামুষের কাছে তাঁকে বেশি গ্রণযোগ্য করে তুলেছে।

ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, “কিন্তু আজ নতুন করে আপনারাই কিন্তু আমাকে ভেতর থেকে নাড়িয়ে দিচ্ছেন| আমাদের ভালোবাসাকেই পাথেয় করে রাজনীতির ‘কিস্যু’ না জানা বাবুল রাজনীতিতে এসেছিলো – আপনারাই জিতিয়েছেন, অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন- আমি আমাদের মোদীজির দেখানো পথে, ওনার নির্দেশমতো কাজ করার চেষ্টা করে গেছি| খানিকটা পেরেছি, খানিকটা পারিনি কিন্তু আপনাদের টাকায় আপনাদের কাজ করেছি| এইটুকুই পাওনা যে আজও সাদা জামা পড়তে কণামাত্র ভয় করেনা! কিন্তু আপনারা যা লিখছেন তার মর্মার্থ আমার মনে প্রাণে প্রশ্ন জাগাচ্ছে! আপনাদের ভালোবাসাকে পাথেয় করে আপনাদেরই মধ্যে দিতে হেঁটে যেতে যেতে কোথাও আপনাদের থেকে, ‘আমার আমি’ থেকে দূরে চলে যাচ্ছি না তো? তা না হলে বার বার আপনারা ফিরে আসতে বলছেন কেন??”

বাবুল সুপ্রিয়োর ফেসবুক পোস্ট

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Babul supriyo s controversial facebook post on politician singer entity