বড় খবর

‘বাংলার হিংসাই বলে দিচ্ছে এরাজ্যে এনআরসি চাই’

মমতাকে কটাক্ষ করে বাবুল বলেন, ‘আন্দোলনের নামে কী পরিমাণ হিংসা বাংলায় হয়েছে তার সাক্ষী আমরা সবাই। এই রাজ্যে এনআরসি লাগু হওয়া খুব প্রয়োজন।’

এনআরসি ইস্যুতে তৃণমূল সুপ্রিমোকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

‘দুষ্কৃতীদের উস্কানি দিয়ে হিংসা ছড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী বাংলায় সিএএ রুখতে পরারবেন না।’ রাজ্যে এসে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমোকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। মমতা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে রাজ্যবাসীর মনে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন আসানসোলের সাংসদ। বাংলায় এনআরসি লাগুর সব থেকে বেশি প্রয়োজন রয়েছে বলে দাবি করেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী।

দেশজুড়ে সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলন চলছে। আসাম সহ উত্তর পূর্ব ভারতে প্রথম বিক্ষোভের আগুন জ্বলেছিল। তারপর তার প্রতিফল ঘটেছে বাংলায়। একাধিক ট্রেনে, বাসে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। চলে সড়ক অবরোধ। চরম হয়রানির শিকার হতে হয় মানুষকে। বর্তমানে উত্তেজনা চরমে দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, কর্নাটকে। রক্তক্ষয়ী সংগ্রমে প্রাণ গিয়েছে বেশ কয়েক জনের। নিহতের সংখ্যা সব চেয়ে বেশি বিজেপি শাসিত মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশে। বাংলায় লাগাতার সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। বাংলার এই পরিস্থিতির জন্য মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যের শাসক দলের উস্কানিকেই দায়ি করেছেন বাবুল সুপ্রিয়। তাঁর কথায়, ‘মানুষকে বিভ্রান্ত করে লাভ নেই। সত্য একদিন প্রকাশ পাবেই।’

আরও পড়ুন: আগুনে প্রতিবাদ, বেসুরো শরিক, দেশজুড়ে এনআরসি নিয়ে পিছু হঠার ইঙ্গিত মোদী সরকারের

বিরোধী শিবির যখন সিএএ ও এনআরসি প্রতিবাদ আন্দোলনে ব্যস্ত, তখন তার স্বপক্ষে রাজ্যে ‘অভিনন্দন ব়্যালি’ করছে বিজেপি। আসানসোলে শুক্রবার বাবুল সুপ্রিয়র ব়্যালি আটকায় পুলিশ। পরে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে সাংবাদিকদের বাবুল বলেন, ‘আন্দোলনের নামে কী পরিমাণ হিংসা বাংলায় হয়েছে তার সাক্ষী আমরা সবাই। এই রাজ্যে এনআরসি লাগু হওয়া খুব প্রয়োজন।’ তাঁর কথায়, ‘বিজেপির নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল এনআরসি ও ক্যাব লাগু করা। আমরা এই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবই। মুখ্যমন্ত্রী দুষ্কৃতীদের মদত দিয়ে হিংসা ছড়িয়ে তা আটকাতে পারবেন না।’ তৃণমূল রাজনীতির স্বার্থেই বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ তাঁর। বাবুলের আশ্বাস, ‘এনআরসি ও সিএএ-এর ফলে ভারতীয় মুসলমানজদের ভয়ের কিছু নেই।’

আরও পড়ুন: ‘গণভোট নয়, চাই জনমত সমীক্ষা’, নয়া ব্যাখ্যা মমতার

পশ্চিম বর্ধমানের সদরে কালাপাহারি থেকে দুর্গা মন্দির পর্যন্ত শুক্রবার বিজেপির ‘অভিনন্দন ব়্যালি’ হয়। নেতৃত্বে ছিলেন দলের রাজ্য সভাপতি তথা খড়গপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ।

সিএএ প্রত্যাহার ও এনআরসি লাগুর বিরুদ্ধে সরব তৃণমূল সুপ্রিমো। নয়া আইনকে বিজেপির দেশভাগের চক্রান্ত বলে দাবি করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বেঁচে থাকতে বাংলায় এনআরসি হবে না বলে ঘোষণা করেছেন তৃণমূল নেত্রী। ইতিমধ্যেই, গত রবিবার থেকে রাজ্যজুড়ে লাগাতার এনআরসি বিরোধী আন্দোলন করছে রাজ্যের শাসক দল। গত সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত পথে নেমে আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিলেন মমতা। শুক্রবারই ফের একাধিক আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন তৃণমূল নেত্রী।

Read  the full story in English

Web Title: Babul supriyo sayes violent protests prove that bengal needs nrc

Next Story
‘মমতার বিরুদ্ধে খুনের মামলার কাগজ লোপাট আদালতে’mukul roy, মুকুল রায়, মমতা, মুকুল, মমতা, mamata banerjee, মমতাকে আক্রমণ মুকুলের, মমতার বিরুদ্ধে খুনের মামলা, বিস্ফোরক মুকুল রায়, mukul, mamata, mukul slams mamata, mukul hits out at mamata, tmc, bjp, মুকুল রায়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মমতাকে আক্রমণ মুকুলের, তৃণমূল, বিজেপি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com