scorecardresearch

বড় খবর

শেষ পর্যন্ত সম্মতি ধনকড়ের, বাবুলের শপথের দায়িত্বে বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার

বালিগঞ্জের উপনির্বাচনে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী বাবুল। কিন্তু, বিধানসভায় বিধায়ক হিসাবে তাঁর শপথের জন্য রাজ্যপালের সম্মতি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল।

শেষ পর্যন্ত সম্মতি ধনকড়ের, বাবুলের শপথের দায়িত্বে বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার
বাবুলের স্বস্তি।

শেষ পর্যন্ত বাবুল সুপ্রিয়র শপথগ্রহণের অনুমতি দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। বালিগঞ্জের উপনির্বাচনে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী বাবুল। কিন্তু, বিধানসভায় বিধায়ক হিসাবে তাঁর শপথের জন্য রাজ্যপালের সম্মতি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। কিন্তু, শনিবার টুইটবার্তায় রাজ্যপাল জানিয়েছেন যে, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভাপর ডেপুটি স্পিকার আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় বাবুল সুপ্রিয়কে শপথবাক্য পাঠ করাবেন।

টুইটে রাজ্যপাল লিখেছেন, ‘ভারতের সংবিধানের ১৪৪ অনুচ্ছেদ দ্বারা আমার উপর অর্পিত ক্ষমতার ভিত্তিতে, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার ড. আশিস ব্যানার্জীকে নিযুক্ত করছি, যাঁর মাধ্যমে ১৬১ বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত শ্রী বাবুল সুপ্রিয় বিধায়ক হিসাবে শপথ নেবেন।’

সদ্যসমাপ্ত বালিগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচনের প্রায় ২০ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। এরপর তাঁর শপথের জন্য ফাইল তৈরি করে রাজভবনে পাঠানো হয়েছিল। বিধানসভা থেকে রাজ্যপালের কাছে অনুমতি চাওয়া হয়, যাতে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান বিধানসভা থেকেই করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় যাতে তাঁকে শপথবাক্য পাঠ করতে পারেন সেই মর্মেই আর্জি জানানো হয়। কিন্তু সেই চিঠি হাতে পাওয়া মাত্রই বেঁকে বসেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। বেশ কিছু ‘শর্ত’ চাপিয়ে শপথগ্রহণ সংক্রান্ত ফাইলটি ফের বিধানসভায় ফেরত পাঠিয়ে দেন তিনি।

যা নিয়েই বিতর্ক বাঁধে। রাজ্যপাল বিধানসবার কাছে বাধা দানের চেষ্টা করছেন বলে সরব হয় শাসক দল তৃণমূল। এইভাবে বেশ কয়েকদিন অতিবাহিত হওয়ার পর শেষ পর্যন্ত বাবুল সুপ্রিয় শপথগ্রহণের ছাড়পত্র দিলেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bengal governor jagdeep dhankar has given permission for the swearing in of babul supriyo