রাত পোহালেই ভারত বনধ

জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সপ্তাহের প্রথম দিন ভারত বনধ ডাকল কংগ্রেস। কংগ্রেসের ভারত বনধকে দু'হাত তুলে সমর্থন জানিয়েছে ডিএমকে, এনসিপি, আরজেডি ও জেডি(এস)-এর মতো বিরোধী দলগুলো।

By: New Delhi  September 9, 2018, 2:35:22 PM

রাত পোহালেই ভারত বনধ। এদিকে যে ইস্য়ুকে নিয়ে সোমবার দেশজুড়ে প্রতিবাদে শামিল হবে কংগ্রেস, সেই পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ছে বৈকি কমছে না। এদিনও পেট্রোল ও ডিজেলের দাম বেড়েছে। দেশজুড়ে পেট্রোল-ডিজেলের লাগাতার মূল্য়ৃবৃদ্ধির প্রতিবাদে প্রথম থেকেই মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়ে এসেছে অন্য়তম বিরোধী দল কংগ্রেস। এবার জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সপ্তাহের প্রথম দিন ভারত বনধ ডাকল তারা। কংগ্রেসের ভারত বনধকে দু’হাত তুলে সমর্থন জানিয়েছে ডিএমকে, এনসিপি, আরজেডি ও জেডি(এস)-এর মতো বিরোধী দলগুলো। শুধু তাই নয়, পেট্রোল-ডিজেলের মূল্য়বৃদ্ধির প্রতিবাদের ঝড় তুলতে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকেও অগ্রণী হতে বলেছে কংগ্রেস।

কাল কখন ভারত বনধ?

সোমবার দেশ জুড়ে ভারত বনধ ডেকেছে কংগ্রেস। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ৩টে পর্যন্ত দেশজুড়ে বনধ পালন করা হবে। সাধারণ মানুষের যাতে বেশি দুর্ভোগ না হয় বনধে, তাই এমন সময়সীমা ধার্য করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রস মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা।

কেন বনধ ডাকা হল?

দেশে পেট্রোল-ডিজেলের দাম ক্রমশই চড়া হচ্ছে। যার ফলে হয়রানির শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। জ্বালানির দাম বাড়িয়ে মোদি সরকার দেশের মানুষের দুর্ভোগ বাড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ করে আসছে বিরোধী শিবির। অবিলম্বে কেন্দ্রীয় কর ও অতিরিক্ত ভ্য়াট যেমন কমাতে হবে রাজ্য়গুলিতে। সেইসঙ্গে, পেট্রোল-ডিজেলকে জিএসটির আওতায় আনার দাবি বিরোধীদের। জ্বালানির লাগামছাড়া দাম বৃদ্ধি নিয়ে মানুষের রাগ প্রদর্শনের জেরেই এই বনধ বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন, জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ভারত বন্ধের ডাক

কারা এই বনধ সমর্থন করছে?

সমাজবাদী পার্টি, ডিএমকে, এনসিপিসহ বেশ কয়েকটি বিরোধী দল আগামিকালের বনধকে সমর্থন করার কথা জানিয়েছে। অন্য়দিকে, বামেরা আলাদা করে বনধ পালন করবে ওই দিন। রাস্তায় প্রতিবাদে শামিল হলেও বনধের দিন পশ্চিমবঙ্গকে সচল রাখা হবে জানিয়েছে সে রাজ্য়ের শাসক দল তৃণমূল। আরজেডি, জেডি(এস), জেএমএম, জেভিএমের মতো দলগুলিও বনধে সমর্থন জানিয়েছে।

কোথায় কোথায় বনধের প্রভাব পড়বে?

মহারাষ্ট্র, বিহার, কর্নাটক, ওড়িশা, তামিলনাড়ুর মতো রাজ্য়গুলির বিভিন্ন এলাকায় বনধের প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্য়দিকে বনধে পশ্চিমবঙ্গ সচল রাখা হবে বলে জানিয়েছে তৃণমূল। বনধে জনজীবন স্বাভাবিক রাখতে সাধারণ মানুষের জন্য় পশ্চিমবঙ্গ সরকার সবরকম পদক্ষেপ করবে বলে জানা গিয়েছে।

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Politics News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Bharat bandh on monday

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
বড় খবর
X