scorecardresearch

বড় খবর

TRS-র চার বিধায়ককে ১০০ কোটির টোপ! দক্ষিণেও ‘অপারেশন লোটাস’-র চেষ্টা? তোলপাড় তেলেঙ্গানা

অস্বীকার বিজেপির, কেসিআর-এর ‘রাজনৈতিক নাটক’ বলে অভিযোগ।

TRS-র চার বিধায়ককে ১০০ কোটির টোপ! দক্ষিণেও ‘অপারেশন লোটাস’-র চেষ্টা? তোলপাড় তেলেঙ্গানা
বিজেপির বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কার অভিযোগ টিআরএস-এর।

এবার তেলেঙ্গানায় ‘অপরেশন লোটাস’? মুনুগোদে উপনির্বাচনের জন্য আর মাত্র এক সপ্তাহ বাকি। তার আগেই তেলেঙ্গানা পুলিশ বুধবার রাতে হায়দ্রাবাদের কাছের আজিজ নগরের একটি খামারবাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নগদ বাজেয়াপ্ত করেছে। পুলিশের দাবি, ওই অর্থের বিনিময়ে ‘ক্ষমতাসীন তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির (টিআরএস) চারজন বিধায়ককে পদত্যাগ করার প্রস্তাব দিয়েছিল বিজেপির এজেন্টরা।’ এই ঘটনায় পুলিশ হরিয়ানার ফরিদাবাদের এক মন্দিরের পুরোহিত রামচন্দ্র ভারতী, তিরুপতির ধর্মগুরু ডি শিমায়াজি এবং হায়দ্রাবাদস্থিত নন্দকুমার নামের এক ব্যবসায়ীকে ওই খামার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে।

রিপোর্ট অনুসারে, খামারবাড়িতে একটি গাড়ি থেকে ১৫ কোটি টাকার নগদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। জানা গিয়েছে ধৃতরা টিআরএস-এর বিধায়ক পাইলট রোহিত রেড্ডি, বি হর্ষবর্ধন রেড্ডি, জি বলরাজু এবং রেগা কাঁথা রাওয়ের সাথে যোগাযোগ করেছিলেন।

সাইবরাবাদের পুলিশ কমিশনার স্টিফেন রবীন্দ্র সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন যে, পুলিশ টিআরএস বিধায়কদের কাছ থেকে একটি তথ্যের ভিত্তিতে আজিজ নগরের ফার্মহাউসে অভিযান চালিয়েছিল। অভিযোগকারী বিধায়রা পুলিশকে বলেছিল যে, অর্থ ও পদের বিনিময়ে তাঁদের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের নেতৃত্বে টিআরএস ছেড়ে যাওয়ার জন্য প্রলুব্ধ করা হচ্ছে।

কমিশনার স্টিফেন রবীন্দ্র-র দাবি, টিআরএস বিধায়করা পুলিশকে জানিয়েছেন যে খামারবাড়িতে উপস্থিত তিন ব্যক্তি তাদের অর্থ, কাজের চুক্তি এবং ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করার পদের প্রস্তাব দিয়ে প্রলুব্ধ করেছিলেন। তদন্ত চলছে, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশের এই বড়কর্তা।

টিআরএস নেতৃত্বের দাবি, চারজন বিধায়ককের প্রত্যেককে বিজেপি এজেন্টরা ১০০ কোটি টাকার প্রস্তাব দিয়েছিল। তবে বিজেপি নেতারা অভিযোগ অস্বীকার করেছে, এবং এই বিতর্কে মুখ খুলতে চায়নি।

তেলেঙ্গানায় শাক দল টিআরএস-এর সোশ্যাল মিডিয়ার আহ্বায়ক এম কৃশাঙ্ক টুইটে লিখেছেন, ‘এটি বিজেপির বড় নেতাদের দ্বারা কেসিআর-জির সরকারের বিরুদ্ধে একটি ষড়যন্ত্র।’ ধৃতরা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডির সঙ্গে রয়েছেন- এমন ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। মন্ত্রী এবং টিআরএসের কার্যকরী সভাপতি কেটি রামা রাও পোস্টটি রিটুইট করেছেন।

ওয়াই সতীশ রেড্ডি, টিআরএস পার্টির সোশ্যাল মিডিয়া আহ্বায়কও, ক্যাপশন সহ একটি ভিডিও টুইট করেছেন “তেলেঙ্গানায় অমিত শাহের ব্যর্থ প্রচেষ্টা, বিধায়কদের ঘুষ দেওয়ার জন্য দল পাল্টানোর জন্য হাতেনাতে ধরা পড়েছে!” দলের অনুগামীরা টুইটারে “#TelanganaNotForSale” ট্রেন্ড করতে শুরু করেছে।

বিজেপি নেতৃত্ব তেলেঙ্গানার উন্নয়নকে মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও-এর লেখা রাজনৈতিক নাটক বলে অভিহিত করেছে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি বান্দি সঞ্জয় বুধবার রাতে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নে লোকেরা হাসছে। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে গত তিন দিনে মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন প্রগতি ভবন থেকে সিসিটিভি ক্যামেরার সম্পূর্ণ ফুটেজ প্রকাশের দাবি করেছিলেন। বিজেপি সভাপতি বলেছেন, ‘রাজনৈতিক নাটকে দ্রষ্টা এবং পুরোহিতদের জড়িত করে হিন্দু ধর্ম কলঙ্কিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।’

বিজেপি নেতা এবং দলের জাতীয় সহ-সভাপতি ডি কে অরুণা বলেছেন যে এটি টিআরএস সভাপতি এবং মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের ‘অন্য নাটক।’ টুইটারে, তিনি রাওকে “সস্তা রাজনীতির” জন্য দোষারোপ করেছেন ।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bjp agents tried to woo trs mlas telangana police seize cash arrst 3 bjp calls it a political drama