scorecardresearch

বড় খবর

‘দিদি আপনি ওপারে চলে যান’

“দিদিমণিকে বলছি, আপনাদের যখন সন্ত্রাসবাদীদের জন্য অত দরদ, তাহলে আপনি ওপারে চলে যান।”

mamata, মমতা
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, মিছিলের পাল্টা মিছিলে অব্যাহত ছিল নাগরিক তরজা। সেই আবহেই রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার চাঁদপাড়ায় দলীয় জনসভা থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দাগলেন রাজ্য বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ঝাঁঝালো সুরে বলেন, ‘রাজ্যে যারা সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করছে। দিদিমণির সরকার তাদের সুরক্ষা দিচ্ছে। পুলিশ একটা লাঠিও চালায়নি। দিদিমণিকে বলছি, আপনাদের যখন সন্ত্রাসবাদীদের জন্য অত দরদ, তাহলে আপনি ওপারে চলে যান।”

পাশাপাশি এদিন ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে থেকে মমতার ‘শক্তিশালী বিরোধী জোট গঠন’ নিয়ে তীর্যক কটাক্ষ করে দিলীপের বক্তব্য, “আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর যেদিকে দৃষ্টি পড়ে সেদিকেই সাফ হয়ে যায়। কর্নাটকের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে গিয়েছেন তাঁর আশীর্বাদ পেয়ে সরকার এক বছরও টেকেনি। সেই কারণে উদ্ধব ঠাকরে আর ডাকেননি ওনাকে। এখানে ডেকেছে, গিয়েছেন, তাঁর মানে এ সরকারের কপালেও কষ্ট আছে।”

অভিনন্দন যাত্রা কর্মসূচি শুরু করেন দিলীপ ঘোষ। ছবি- উৎসব মন্ডল

আরও পড়ুন: সিএএ প্রতিবাদ: লখনউয়ে গ্রেফতার অবসরপ্রাপ্ত আইপিএস অফিসার

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে দিলীপের সাফ বক্তব্য, “স্বাধীনতার সময় মুসলিমরা বলেছেন হিন্দুদের সঙ্গে থাকতে পারব না, আমাদের আলাদা দেশ চাই। তখন আমরা চোখের জলে ভারতমাতাকে দ্বিখন্ডিত করলাম। কিন্তু ভারত সবাইকে থাকার সুযোগ দিয়েছে।” এখানেই থেমে থাকেননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি। নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মিছিল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “মমতা ভয় পাচ্ছেন অনুপ্রবেশকারীদের নাম ভোটার লিস্ট থেকে বাদ পড়লে ওঁর ভোটও কমে যাবে। আমি বলছি, উনি ২০২১ সালে ৫০টা ভোটও পাবেন না। ওঁর চিন্তা ভাইপো, পরিবারকে নিয়ে। দেশের মানুষদের নিয়ে নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাস্তায় রাস্তায় হেঁটেছেন অনুপ্রবেশকারীদের জন্য। ওনাদের জন্য চিন্তা বেশি। আমার, আপনার জন্য ওঁর কোনও চিন্তা নেই। আমরা ওদেশ থেকে বাধ্য হয়ে এসেছি এখানে। অত্যাচারের জন্য, মা বোনেদের সম্মান ও ধর্ম রক্ষার জন্য। কিন্তু এই আইনের বিরোধিতা করে রাজ্যে যে আগুন জ্বলেছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিন্তু এর প্রতিবাদ করেননি। বোঝাই যাচ্ছে উনি কার সঙ্গে আছেন। যারা নাগরিকত্ব বিলের বিরোধিতা করছে সেই সিপিএম, কংগ্রেস, তৃণমূল কিন্তু আমাদের ভোটার বানিয়েছে, নাগরিক কিন্তু বানায়নি।”

উল্লেখ্য, এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা অরবিন্দ মেনন, অরুণ সিং, বিধায়ক দুলাল বর, বিশ্বজিৎ দাস-সহ অন্যরা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bjp dilip ghosh aiming mamata banerjee on caa controversy