scorecardresearch

বড় খবর

‘গোলি মারো’ স্লোগানধারী গেরুয়া নেতাদের মুখে কুলুপ

তাঁদের কু-মন্তব্য যে দিল্লিবাসী ভালভাবে গ্রহণ করেননি তা বুঝলেও প্রকাশ্যে তা মানতে রাজি হলেন না।

‘গোলি মারো’ স্লোগানধারী গেরুয়া নেতাদের মুখে কুলুপ
ভোটের ফল প্রকাশের পরই গেরুয়া সাংসদ, প্রার্থীদের মুখে কুলুপ

সিএএ বিরোধী বিক্ষোভকারীদের নিশানা করে গুলি করার নিদান থেকে শাহিনবাগে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ফতোয়া। দিল্লি ভোটের প্রচারে বিজেপি মন্ত্রী, সাংসদ, প্রার্থীদের একের পর এক হুঙ্কার। তাতেও অধরা রাজধানীর দখল। ইভিএম-এ ভরাডুবি পদ্ম শিবিরের। তাই ভোটের ফালফল স্পষ্ট হতেই কার্যত মুখে কুলুপ আটলেন কপিল মিশ্র, পরভেশ সাহিব সিং-রা। তাঁদের কু-মন্তব্যে যে দিল্লিবাসী ভালভাবে গ্রহণ করেননি তা বুঝলেও প্রকাশ্যে তা মানতে রাজি হলেন না। জানিয়ে দিলেন ভোটের সঙ্গে সিএএ বিরোধী বিক্ষোভের বিরুদ্ধে কথা বলার কোনও যোগ নেই। এ যেন অনেকটা ‘ভাঙবে তবু মচকাবে না’।

ওখলা বিধানসভার কেন্দ্রের অন্তর্গত শাহিনবাগ হল সিএএ বিরোধী আন্দোলনের ভরকেন্দ্র। দিল্লি ভোট প্রচারে এবার বিজেপির কড়া আক্রমণের কোপে ছিল এই শাহিনবাগ। বিরোধী সুর জোরাল করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। তাঁর স্লোগান ‘গোলি মারো’কে কেন্দ্র করে বিতর্ক দানা বাঁধে। অনুরাগ ঠাকুরের প্রচারের উপরে সাময়িক নিষেধাজ্ঞাও জারি করে কমিশন। কিন্তু, তাতেও দমানো যায়নি গেরুয়া দলের নেতা, কর্মীদের। এবারের ভোট দিল্লির মডেল টাউন কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রার্থী ছিলেন কপিল মিশ্র। প্রচারে সিএএ-এর পক্ষে এক মিছিলে বিজেপি প্রার্থী অনুরাগের সুরেই স্লোগান তুলে বলেছিলেন, ‘দেশকে গদ্দারো কো-গোলি মারো শালোকো।’

আরও পড়ুন: অনুরাগ, পরবেশদের প্ররোচনামূলক প্রচারের বিধানসভাগুলোয় খাবি খাচ্ছে বিজেপি

ভোটের ফল হতেই অবশ্য জারিজুরি শেষ। আপের অখিলেশ ত্রিপাঠীর কাছে ১০,০০০ ভোটে পরাস্ত হন কপিল। মডেল টাউন বিধানসবা কেন্দ্র পশ্চিম দিল্লি লোকসভার অন্তর্গত। এই কেন্দ্রের সাংসদ বিজেপির পারভেশ সাবিহ সিং। তিনিও কম যাননি। সিএএ বিরোধী প্রচারে সাংসদের মুখে ছিল ‘গোলি মারো’ স্লোগান। এচাড়াও তিনি বলেছিলেন, ‘শাহিনবাগের আন্দোলনকারীরা এরপর দিল্লিবাসীর অবস্থা কাশ্মীরি পণ্ডিতদের মতো করবে। বাড়ি বাড়ি ঢুকে খুন, ধর্ষণ করবে তারা।’ ফালফল বলছে, সিং-য়ের লোকসভার অন্তর্গত দিল্লির সব বিধানসভা কেন্দ্রেই হেরেছে পদ্ম প্রার্থীরা।

একই ছবি হরিনগরের বিজেপি প্রার্থী তেজেন্দ্র পাল সিং বাগ্গার কেন্দ্রেও। আপের রাজকুমারী ধিলনের কাছে ২০,০০০ ভোটে পরাজিত হয়েছেন বাগ্গা। শাহিনবাগের প্রতিবাদীদের ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের’ নিদান দিয়েছিলেন এই বিজেপি প্রার্থী।

ভোটের ফলাফল বেরোতেই অন্য সুর এইসব নেতাদের মুখে। কপিল মিশ্র যেমন বলছেন, ‘দলের প্রচারের সঙ্গে আমার মন্তব্যের কোনও সম্পর্ক নেই, এর মাধ্যমে দলের আদর্শও ফুটে ওঠে না।’ হরিনগরের পরাজিত বিজেপি প্রার্থী তেজেন্দ্র পাল সিং বাগ্গা দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, ‘আপ ঝড়েই বিজেপির ভরাডুবি। আপের বিভিন্ন নীতির জন্যই মানুষ ওদের ভোট দিয়েছে। শাহিনবাগ ভোটের ইস্যু ছিল না। ভোট না থাকলেও আমি সিএএ বিরোধীদের বিরুদ্ধে সরব হতাম।’

গেরুয়া সাংসদ সিং-য়ের কথায়, ‘জনতার রায় গ্রহণ করছি। পরাজিত হলেও দিল্লিবাসীর পক্ষেই কাজ করব।’ তবে, প্রচারের সময়ে তাঁর করা মন্তব্য নিয়ে এদিন কোনও কথা বলতে রাজি হননি সাংসদ।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bjp motormouths muted after delhi results come in shaheen bagh terrorist jibe goli maaro slogan