বড় খবর

পুলিশ মার খাবে, হুঁশিয়ারি বাংলার বিজেপি সাংসদের

কেন লকডাউনে রাস্তায়? পুলিশের প্রশ্নে সাংসদ জানিয়ে দেন, ”পুজো দিতে এসেছি”।

দলীয় কর্মী খুনে সিবিআই তদন্ত দাবি বিজেপির।

অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমি পুজো হয়েছে। সূচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এরাজ্যে করোনা রুখতে বুধবার লকডাউন জারি ছিল। বিজেপির হাজার অনুরোধেও লকডাউন তোলেনি রাজ্য সরকার। শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশ অনুযাযী রাজ্য়ের বিজেপি নেতারা নিজেদের বাড়িতে বাড়িতে শঙ্খ বাজিয়েছেন। এদিন বিচ্ছিন্নভাবে কোথাও কোথাও বিজেপি নেতৃত্ব স্থানীয় মন্দিরে গিয়েছে পুজো দিতে। কোনও ক্ষেত্রে বাধাও দিয়েছে পুলিশ। এরপরই ‘এবার পুলিশ মার খাবে’ বলে হুঁশিয়ারি দিলেন বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার।

এদিন সকালে উত্তর দিনাজপুরের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার সদলবলে অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমি পুজো উপলক্ষ্যে স্থানীয় রঘুনাথ মন্দিরে পুজো দিয়েছেন। তবে যাওয়ার পথে কোথাও পুলিশের দেখা মেলেনি। পুজো দিয়ে বের হওয়ার সময় পুলিশ সেখানে পৌঁছায়। কেন লকডাউনে রাস্তায়? পুলিশের প্রশ্নে সাংসদ জানিয়ে দেন, ”পুজো দিতে এসেছি”। লকডাউন বলে মিছিল করেননি বলেও পুলিশকে জানান তিনি। সাংসদ বলেন, “পুলিশের বাধা দেওয়ার প্রচেষ্টা তো ছিলই।” তবে এখানেই থামেননি তিনি।

সুকান্ত মজুমদার রীতিমত পুলিশের বিরুদ্ধে হুঙ্কার ছেড়েছেন। এই বিজেপি সাংসদ বলেন, “সকাল বেলায় রামমন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছিলাম। মিছিল না করে সরকারের এদিনের লকডাউনের ভুল সিদ্ধান্তকে মান্যতা দিয়েছি। আমার উপস্থিতিতে পুলিশ বাধা দিয়েছিল। সংগঠিত হিন্দু শক্তির ভয়ে পুলিশ পালিয়েছে। এরপর কিন্তু জনগন নিজের হাতে আইন তুলে নেবে। পুলিশ মার খাবে, আমি বলে দিলাম। আইন বিরুদ্ধ কথা হচ্ছে। জনগণ তথা হিন্দুরা যদি বারে বারে অতিষ্ট হয় এরপর কিন্তু আর পুলিশকে মানবে না।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: K

Next Story
প্রদীপ জ্বালান-পুজো করুন, বঙ্গবাসীকে আহ্বান বিজেপির
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com