scorecardresearch

বড় খবর

মুখ্যমন্ত্রিত্ব খোয়ালেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর, ক্ষোভ উগরে দিলেন কংগ্রেস হাইকমান্ডের বিরুদ্ধে

সমর্থকদের সঙ্গে কথা বলেই ভবিষ্যৎ রাজনীতি স্থরির করবেন বলে জানিয়েছেন পাঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

Captain Amarinder Singh resigns as punjab Chief Minister
রাজ্যপালের কাছে ইস্তফাপত্র দিচ্ছে অমরিন্দর সিং।

মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সি খোয়ালেন পাঞ্জাবের ক্যাপটেন। রাজ্যপালের কাছে ইস্তফাপত্র দিয়েছেন অমরিন্দর সিং। একই সঙ্গে পদত্যাগ করেছে গোটা মন্ত্রিসভা। সূত্রের খবর, কংগ্রেস হাইকমান্ডের নির্দেশেই মুখ্যমন্ত্রী পদ খোয়ালেন তিনি। তবে, ইস্তফা দিয়ে এ দিন দলের হাইকমান্ডের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন সদ্য প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। জানিয়েছেন, ‘নেতৃত্ব সন্দেহের চোখে দেখায় আমি অত্যন্ত অপমানিত।’

পাঞ্জাবে নভজ্যোত সিং সিধু অন্তর্ভুক্তি নিয়ে কংগ্রেসের অন্দরের বিবাদ প্রকট হয়েছিল। প্রায়ই একে অপরকে নিশানা করেছেন সিধু ও অমরিন্দর সিং। শেষ পর্যন্ত ক্যাপটেন সিংকেই তার মাসুল দিতে হল। মুখ্যমন্ত্রিত্ব গেল তাঁর। কংগ্রেস সূত্রের খবর, এদিন দলনেত্রী সনিয়া গান্ধীর সঙ্গে ফোনে অমরিন্দরের কথা হয়। সেখানেই তাঁকে দলের নির্দেশ জানিয়ে দিয়েছিলেন সনিয়া। পাল্টা দল ছাড়ার হুঁশিয়ারিও দেন পাঞ্জাবেব প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন- অর্পিতার জায়গায় কি রাজ্যসভায় বাবুল সুপ্রিয়? তৃণমূলের কৌশল নিয়ে তুঙ্গে জল্পনা

এবার কী তাহলে হাত ছাড়বেন ক্যাপটেন? রাজ্যপালের কাছে ইস্তফাপত্র পেশের পর সাংবাদিকরদের এই প্রসঙ্গে কিছুই স্পষ্ট করেননি তিনি। বলেছেন, “৫২ বছর রাজনীতি করছি। আমার সমর্থকদের সঙ্গে কথা বলব। তারপরই রাজনৈতিক ভবিষ্যত স্থির করব। ভবিষ্যতের রাজনীতি সবসময়ই থাকে, এটি একটি বিকল্প, সময়, সুযোগ এলে আমি সেই বিকল্পটি ব্যবহার করব।”

আরও পড়ুন- ‘দলের বিরুদ্ধে বড় প্রতিশোধ’, বাবুল খুইয়ে দাবি বঙ্গ বিজেপির

পাশাপাশি দলের বিরুদ্ধেও একরাশ ক্ষোভের কথা বলেছেন অমরিন্দর। তাঁর কথায়, “আমি আজ সকালে সনিয়াজিকে ফোন করেছিলাম। বলেছিলাম যে আমি ইস্তফা দিচ্ছি। গত দু’মাসে তিনবার পরিষদীয় দলের বৈঠক ডাকা হচ্ছে। ওরা আমার কাজ ও দায়বদ্ধতা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিল। আমি অপমানিত। তাই ইস্তফা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছি।”

বিধানসভা ভোটের কয়েক মাস আগে পঞ্জাবে কংগ্রেসে ডামাডোল চরমে। এবার ইস্তফা দিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। সাড়ে ন’বছর মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা এক ব্যক্তিকে সরিয়ে দেওয়া রাজ্য রাজনীতিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। ভোটের আগে বিজেপি তিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বদল করেছে। এতে দলের অন্দরের ক্ষোভের সঙ্গে দলের প্রতি মানুষের আক্রোশও দূর করা সম্ভব বলে মনে করা হয়। প্রস্ন উঠছে এবার কী তাহলে বিজেপির পতই অনুসরণ করল কংগ্রেস।

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Captain amarinder singh resigns as punjab chief minister