বড় খবর

শোভন-বৈশাখী ‘সামাজিক অস্বস্তি’, মামলা দেবশ্রীর

বন্ধুত্ব শেষ হয়েছিল আগেই। এবার রাজনৈতিক লড়াই গড়াল আদালতে।

শোভন চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ‘বন্ধবী’ বৈশাখীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেন রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়। আলিপুর আদালতে মামলা দায়ের করেছেন দেবশ্রী।

কোর্ট চত্বরে রায়দিঘির বিধায়ক জানান, গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় (যদিও এদিন বৈশাখীর নাম মুখে নিতে চাননি দেবশ্রী) তাঁর সম্পর্কে অবমাননাকর কথা বলে চলেছেন। ভদ্রতা করে তিনি এতদিন কিছু না বললেও এবার সহ্যের সীমা ছাড়িয়েছে। তাই এদিন দেবশ্রী রায় শোভন-বৈশাখীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন।

২০১১ ও ২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনে সিপিআইএমের জনপ্রিয় নেতা ও বহুদিনের বিধায়ক কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়কে হারিয়ে দেবশ্রী রায় জয় হাসিল করেন। সেই জয়ে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন তৎকালীন দক্ষিণ ২৪ পরগনায় তৃণমূলের জেলা তৃণমূল সভাপতি শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু পরে দলের সঙ্গে শোভনের দূরত্ব বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গেই দেবশ্রী-শোভন দূরত্বও বাড়তে থাকে। কালক্রমে শোভনের বান্ধবী হয়ে ওঠেন বৈশাখী।

শোভন-দেবশ্রী বন্ধুত্বের ফাটল যে চওড়া তা বোধা গিয়েছিল ২০১৯ সালের ১৪ই অগাস্ট। ওইদিনই শোভন-বৈশাখী দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন। সেদিন সেখানে হঠাৎই দেখা গিয়েছিল দেবশ্রীকেও। যার ফলে যারপরনাই ক্ষুব্ধ হন শোভন-বৈশাখী। তাঁরা এমনকি, দলে যোগ দিতেও প্রায় রাজি ছিলেন না। তাঁদের মনে হয়েছিল, দেবশ্রীও একইদিনে-একইসঙ্গে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দিতে এসেছেন। বাস্তবে অবশ্য তেমনটা হয়নি। ফলে শোভন ও তাঁর বান্ধবী পদ্ম পতাকা নিতে সম্মত হন।

এরপর প্রায় দেড় বছর বিজেপির হয়ে কোনও কর্মসূচিতে শোভন-বৈশাখীকে দেখা যায়নি। পরে পদ পেয়ে বিজেপির হয়ে পথে নামেন তাঁরা। মুখ্যমন্ত্রী থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া আক্রমণ শানাচ্ছে। সম্প্রতি রায়দিঘিতে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র দেবশ্রীকে জেতানোর জন্য এলাকাবাসীর কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করেন। তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী টোটো কেলেঙ্কারিতে জড়িতবলে তোপ দাগেন শোভন। বিধায়কের ব্যর্থতার ফিরিস্তি তুলে ধরে আক্রমণ করেন বৈশাখী।

এরপরই শোভন-বৈশাখীর বিরুদ্ধে মুখ খোলেন দেবশ্রী রায়। মানুষের স্বার্থে কাজ করতে গিয়ে তিনি প্রতারিত হয়েছেন বলে জানান। একই সঙ্গে দাবি করেন প্রতারককে হাজতবাস করিয়েছেন তিনি। কিন্তু রাজনৈতিক লড়াই কেন আদালতে পর্যন্ত গড়াল? দেবশ্রী রায় বলেন, ‘দল আমাকে বলেছিল শোভনের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে এলাকার উন্নয়নর কাজ করতে। তাই করেছিলাম। কিন্তু সেটা এমনভাবে বলা হচ্ছে যেন ও আমায় সব করে দিয়েছে। আমি দলের টিকিটে জিতেছি। শোভন তাঁর দায়িত্ব পালন করেছেন।’

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রীর রত্নার সঙ্গেও তাঁর সম্পর্ক ভালো বলে দাবি করেছেন দেবশ্রী রায়। একই সঙ্গে শোভন-বৈশাখীকে ‘সামাজিক আস্বস্তি’ বলে সম্বোধন করেছেন রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক।

জানা গিয়েছে, শোভন-বৈশাখীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলায় দল হিসাবে তৃণমূল দেবশ্রীর পাশেই রয়েছে। আগামী সপ্তাহেই মামলার শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Debashree roy tmc mla raidighi filed defamation suit against sovan baishakhi

Next Story
Exclusive: রাজনীতির অলিন্দে রাম, কী বলছে কৃত্তিবাসের বয়ড়া, কী বক্তব্য গবেষকদের?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com