গন্ডগোল হলে বিজেপি কর্মীরা বসে থাকবে না, প্রতিরোধ করবে: দিলীপ ঘোষ

দিলীপ বলেন, ‘‘গণনার দিনও গন্ডগোলের চেষ্টা হচ্ছে। গণনাকেন্দ্রেও গোলমালের চেষ্টা হতে পারে। যদি তৃণমূল হারে অধিকাংশ জায়গায়, তাহলে রাস্তাঘাটে গোলমাল হতে পারে’’।

By: Kolkata  Updated: May 22, 2019, 10:57:01 AM

ভোটগণনার দিন তৃণমূল গন্ডগোল করতে পারে, এমন আশঙ্কা প্রকাশ করলেন দিলীপ ঘোষ। একইসঙ্গে গন্ডগোল হলে তা প্রতিরোধ করতে বিজেপি কর্মীরা চুপ করে বসে থাকবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। এদিন দিলীপ বলেন, ‘‘গণনার দিনও গন্ডগোলের চেষ্টা হচ্ছে। গণনাকেন্দ্রেও গোলমালের চেষ্টা হতে পারে। যদি তৃণমূল হারে অধিকাংশ জায়গায়, তাহলে রাস্তাঘাটে গোলমাল হতে পারে। সাধারণ মানুষকে বলব, এ ধরনের ঘটনা ঘটলে সাহসের সঙ্গে প্রতিরোধ করুন। বিজেপি কর্মীরা চুপ করে বসে থাকবে না, যদি গুন্ডারা রাস্তায় নামে, তাদের কীভাবে প্রতিরোধ করতে হয় লোকেরা তা জানেন’’।

অন্যদিকে, ভাটপাড়ায় ভোট পরবর্তী উত্তাপের আঁচ এসে পৌঁছলো রাজভবনে। রবিবার উপনির্বাচনের পর থেকেই তেতে রয়েছে ভাটপাড়া। সোমবারের পর মঙ্গলবারও বোমার শব্দে কেঁপেছে কাঁকিনাড়া। ভোট পরবর্তী হিংসা রুখতে এবার রাজ্যপালের দ্বারস্থ হল রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। মঙ্গলবার রাজভবনে গিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ জানিয়েছে দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বাধীন বিজেপি প্রতিনিধি দল। বাংলায় হিংসার ঘটনা প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে অবগত করতে রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীকে আর্জি করেছেন দিলীপ ঘোষরা। এদিন দিলীপ বলেন, ‘‘পুলিশ-প্রশাসনকে বলে কোনও কাজ হচ্ছে না, তাই রাজ্যপালকে জানালাম। ওঁকে বলেছি, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও নির্বাচন কমিশনকে এ ব্যাপারে জানাতে। উনি বলেছেন জানাবেন’’।

আরও পড়ুন: ভোট মিটতেই তৃণমূল বিধায়করা ফোন করছেন, ১০০ জনের খবর রয়েছে: দিলীপ ঘোষ

রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাতে এবিষয়ে বিস্তারিত অভিযোগ জানান দিলীপ ঘোষ। এরপর তিনি আরও বলেন, ‘‘ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়া নয়, রাজ্যের অন্যত্রও অমন ঘটনা ঘটেছে। ডায়মন্ড হারবারেও গোলমাল হয়েছে। আমাদের ৩০ কর্মীকে মিথ্যা মামলায়া তুলে নিয়ে গিয়েছে। যখন হারছে, তখন ভয়ের পরিবেশ তৈরি করেছে’’। বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘‘পুলিশ-প্রশাসনের সামনেই এসব ঘটনা ঘটছে। এতেই সন্দেহ হয়। বুঝলাম, ওরা চায় না শান্তি বজায় থাকুক’’।

প্রসঙ্গত, রবিবার উপনির্বাচনের পর থেকেই উত্তপ্ত ভাটপাড়া। সোমবারের পর মঙ্গলবারও রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় কাঁকিনাড়া। এলাকায় বোমাবাজি চলে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার প্রতিবাদে আজও সকাল থেকে কাঁকিনাড়া স্টেশনে রেল অবরোধ চলে। ২৯নং রেলগেট এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা নৈহাটি লোকাল লক্ষ্য করে বোমা, ইট ছোড়ার অভিযোগও উঠেছে। এর ফলে বেশ কয়েকজন যাত্রী জখম হন বলে খবর। দুপুর ১২টা ৪ মিনিট নাগাদ এই অবরোধ উঠে যায়।

এর আগে গত রবিবার কাঁকিনাড়ার কাটাপুকুর এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি চলে। দফায় দফায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ হয়। তৃণমূলের অভিযোগ, সে সময় ওই এলাকায় যাচ্ছিলেন উপনির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মদন মিত্র। এরপর তাঁকে ঘিরেই বোমাবাজি চলে বলে দাবি ঘাসফুল শিবিরের। এ ঘটনার পরই গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশ এবং পরিস্থিতি সামলাতে লাঠি চালানো হয়। এলাকা জুড়ে জারি করা হয় কার্ফু। এ ঘটনার পর কাঁকিনাড়ায় অধুনা বিজেপি নেতা অর্জুন সিংকে ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায়। পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিও বাঁঁধে অর্জুন সিংয়ের।

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Politics News in Bangla by following us on Twitter and Facebook


Title: Dilip Ghosh: গন্ডগোল হলে বিজেপি কর্মীরা বসে থাকবে না, প্রতিরোধ করবে: দিলীপ ঘোষ

Advertisement

ট্রেন্ডিং