scorecardresearch

বড় খবর

‘তৃণমূলে অভ্যুত্থানের ভয়-ই কি সত্যি?’, মালব্যের কটাক্ষ, পাল্টা খোঁচা জোড়া-ফুলের

ঘাস-ফুলে নিজের চেয়ারপার্সন পদ বাদে বাকি সব পদ আপাতত বাতিল করে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘তৃণমূলে অভ্যুত্থানের ভয়-ই কি সত্যি?’, মালব্যের কটাক্ষ, পাল্টা খোঁচা জোড়া-ফুলের
তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘এক ব্যক্তি এক পদ’ ইস্যুতে তৃণমূলে প্রবল চাপানউতোর। সম্প্রতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের যুব নেতাদের পোস্ট দেখা গিয়েছিল। যার পর পরই ফিরহাদ হাকিমকে বলতে হয়েছিল, খোদ মুখ্যমন্ত্রীর ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ নীতিকে মান্যতা দেননি। তৃণমূলের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথাই শেষ কথা। ফলে, দলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের জল্পনা মাথাচাড়া দেয়।

শেষ পর্যন্ত হস্তক্ষেপ করেন তৃণমূল নেত্রী। নিজের চেয়ারপার্সন পদ বাদে বাকি সব পদ আপাতত বাতিল করে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যা নিয়েই খোঁচা দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য। টুইটে তিনি লেখেন, ‘অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পদত্যাগের হুমকিতেই কী অভ্যুত্থানের ভয় তৃণমূলের সব পদের বিলোপ?’

তৃণমূলকে কটাক্ষ করে মালব্য লেখেন, ‘এক ব্যক্তি এক পদ ইস্যুতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ইস্তফার হুঁশিয়ারি দিতেই ভ্রান্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সব পদ বাতিল করেছেন। একটি ‘কমিটি’ গঠন করা হয়েছে। অভিষেক ঘনিষ্ঠদের কোণঠাসা করা হল। এরপর কী? সব মন্ত্রিদের বরখাস্ত করে একাই সরকার চালাবেন? অভ্যুত্থানের ভয়-ই কী সত্যি?’

এর পাল্টা জবাব দিয়েছেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ। বিজেপি নেতা অমিত মালব্যকে বিঁধে তিনি বলেছেন, ‘আগে নিজের দল সামলান অমিত মালব্য, নিজের চরকায় তেল দিন। তৃণমূল ঐক্যবদ্ধই রয়েছে।’

উল্লেখ্য, সংগঠনে ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ ইস্যুতে বিতর্ক বাড়তেই হতেই তড়িঘড়ি দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে বৈঠক করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। সেই বৈঠকেই ২০ জন বিশিষ্ট জাতীয় কর্মসমিতি তৈরি করে দেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। বাতিল করা হয়েছে দলের সব পদ। যা নিয়েই বিরোধীদের তির- ‘ভাইপো’ অভিষেকের ডানা ছাঁটতেই এই পদক্ষেপ করছেন শাসক দলের সর্বময় কর্ত্রী।

আরও পড়ুন- জোড়া-ফুলে ফিরেই ‘কাকা’কে তোপ ‘ভাইপো’র, ‘আমি গদ্দার’- দাবি সুনীলের

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Fear of coup in tmc is real amit malviya counter reply by kunal ghosh