scorecardresearch

হাসনাবাদের বিডিও-র মন্তব্যে ‘প্রশাসনের রাজনীতিকরণের’ অভিযোগ বিজেপির

‘যদি রোজ সকালে দু’মিনিট মুখ্যমন্ত্রীর ছবির সামনে আপনারা দাঁড়ান, একটা অদ্ভূত শক্তি পাবেন।’ মন্তব্য করেন হাসনাবাদেরর বিডিও।

mamata banerjee, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘স্বামী বিবেকানন্দ ছাডা় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবির সামনে দাঁড়ালে শক্তি অর্জন সম্ভব।’ গত শনিবার বুলবুল ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ বিলির সময়ে এই মন্তব্য করেছিলেন হাসনাবাদের বিডিও অরিন্দম মুখোপাধ্যায়। বিডিও-র সেই দাবি ঘিরে সরব বিরোধিরা। শাসক দল তৃণমূল ‘প্রশাসনের অন্দরে রাজনীতিকরণ’ করছে বলে অভিযোগ বিজেপির।

বসিরহাটের জেলা বিজেপি সভাপতি গণেশ দাস বলেন, ‘মানুষ জানে তৃণমূল কিভাবে প্রশাসন, পুলিশ ও বিডিওদের সাহায্যে সরকারকে নিয়ন্ত্রণ করছে। বহু সরকারি কর্মীই ছদ্মবেশে শাসক দলের কর্মী হয়ে কাজ করছেন। হাসনাবাদের বিডিও, তাঁর মন্তব্যেই সেটা প্রমাণ করে দিয়েছেন।’

বিজেপি সহ বিরোধীদের সমালোচনার আঙুল যার দিকে সেই বিডিও অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের অবশ্য খোঁজ মেলেনি।

আরও পড়ুন: মোদী আশ্বস্ত করলেও বুলবুলের অর্থ সাহায্য এখনও মেলেনি: মমতা

কী বলেছিলেন বিডিও অরিন্দম মুখোপাধ্যায়?
ঘুর্ণিঝড় বুলবুল-এ ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারি ত্রাণ বিলির এক অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন হাসনাবাদের বিডিও। সেখানেই তিনি বলেন, ‘যদি রোজ সকালে দু’মিনিট মুখ্যমন্ত্রীর ছবির সামনে আপনারা দাঁড়ান, একটা অদ্ভূত শক্তি পাবেন। আমি নিজে রোজ স্বামী বিবেকানন্দ ও মুখ্যমন্ত্রীর ছবির সামনে দাঁড়াই। এতেই আমি বাড়তি ও ভাল কাজের অনুপ্রেরণা পাই।’

বিরোধিরা বিডিও-র সমালোচনা করলেও এতে দোষের কিছু দেখছে না তৃণমূল শিবির। হাসনাবাদের স্থানীয় তৃণমূল নেতা ফিরোজ গাজীর কথায়, ‘সরকারি কর্মী হলেও প্রত্যেক ব্যক্তির নিজস্ব পছন্দ-অপছন্দ রয়েছে। হতেই পারে কেউ মুখ্যমন্ত্রীর কাজে অনুপ্রাণিত হন। সে কথাই তিনি জনসমক্ষে বলেছেন মাত্র।’

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Get motivated by cm hasnabad bdo politicisation of administration bdo