বড় খবর

Laxman Seth: লক্ষ্মণের জার্সি বদল কার্যত চূড়ান্ত

Laxman Seth: পূর্ব মেদিনীপুরের রাজনৈতিক ময়দানে ফের কী দেখা যাবে শুভেন্দু অধিকারী বমান লক্ষণ শেঠের লড়াই।

Laxman Seth TMC Mamata Banerjee
লক্ষ্ণণ শেঠ

Laxman Seth: একসময়ের সিপিএমের দোর্দন্ডপ্রতাপ নেতা। দল ক্ষমতা হারনোর পর বিজেপিতে যোগ। দুবছর বিজেপিতে কাটিয়ে কংগ্রেসে যোগদান। ২০১৯-এ তমলুক লোকসভা কেন্দ্রে কংগ্রেসের প্রার্থী। তাঁর আবেদনে যদি তৃণমূল কংগ্রেস সাড়া দেয় তাহলে ফের পূর্ব মেদিনীপুরের রাজনৈতিক ময়দানে দেখা যাবে শুভেন্দু অধিকারী বমান লক্ষণ শেঠের লড়াই। শুধু সময়ের সঙ্গে বদল হবে জার্সির রঙের।

বিজেপি, কংগ্রেস হয়ে এবার তৃণমূলে যোগদান করতে চাইছেন লক্ষণ শেঠ। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে লক্ষণ শেঠ বলেন, “আমি তৃণমূলে যোগদানের ইচ্ছা প্রকাশ করেছি। তবে তৃণমূলের কারও সঙ্গে এবিষয়ে কথা হয়নি। তাছাড়া তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে কোনও লিখিত আবেদন করিনি।” তবে রাজনৈতিক অনুষ্ঠান না হলেও একমঞ্চে তৃণমূল নেতার সঙ্গে দেখা গিয়েছে লক্ষণ শেঠকে।

আরও পড়ুন- ‘তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন অনেকেই’, ক্রমেই অস্বস্তিতে বিজেপি

কেন তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করতে চান তাঁর কারণও বলেছেন প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ। তিনি বলেন, “বর্তমান ভারতের সংসদীয় গণতন্ত্রের পঠভূমিতে মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় যে কাজ করছেন তা সঠিক ও প্রাসঙ্গিক। সেই কারণে আমি তৃণমূলে যোগদান করতে ইচ্ছুক। এবার নেবেন কীনা নেতৃত্বের ব্য়াপার।” তাঁর দাবি, তিনি এখনও কংগ্রেসের প্রাথমিক সদস্য়।

একইসঙ্গে তিনি বিজেপির ওপর ক্ষোভ উগরে দেন। বাম ছেড়ে যোগ দিয়েছিলেন গেরুয়া শিবিরে। লক্ষণ শেঠের বক্তব্য়, “বিজেপি সর্বদলীয় গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। একদলীয়, একনায়কতন্ত্রে তারা বিশ্বাসী। তারা ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রে বিশ্বাসী নয়। তাঁরা হিন্দুত্ব বাদী রাষ্ট্রবাদী দল। আমি বিজেপিতে বছর দুই ছিলাম। বিজেপি সম্পর্কে অভিজ্ঞতাও হয়েছে।”

আরও পড়ুন- ‘টিকি নেই কে-এস-এ’র, কর্মীদের ফোন তুলছেন না ডি’, ফের দিলীপদের খোঁচা তথাগতর

ইতিমধ্য়ে লক্ষণ শেঠ তিনটে দলে থেকে কাজ করেছেন। একসময় নন্দীগ্রাম বা মেদিনীপুরে লক্ষণ শেঠের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে লড়াই করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তখন ঘাসফুল শিবিরের নেতৃত্বে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী, বাম শিবিরেরে নেতৃত্বে ছিলন লক্ষণ শেঠ। তিন দশক পর কী ফের সেই দৃশ্য় দেখা যাবে? তৃণমূলে যোগ দিলে সেই সম্ভাবনাই বাস্তব রূপ পাবে।

অতীতে রেজ্জাক মোল্লার মতো সিপিএম নেতাকে তৃণমূল সাদরে দলে নিয়েছে, মন্ত্রী করেছে। সূত্রের খবর, তৃণমূলের একাংশের সঙ্গে যোগাযোগ রযেছে লক্ষণ শেঠের। রাজনৈতিক মহলের মতে, রাজনীতিতে অচ্ছুত বলে কিছু হয় না। অনেকে ক্ষেত্রে পরিস্থিতি তৈরি করার একটা বিষয় থাকে। এর বেশি কিছু নয়।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Laxman seth expresses desire to join tmc

Next Story
‘তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন অনেকেই’, ক্রমেই অস্বস্তিতে বিজেপিmamata, modi
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com