scorecardresearch

বড় খবর

বদল! ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি কানেই তুললেন না মমতা

‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি শুনেও মমতার এহেন নির্লিপ্ত আচরণে কার্যত ‘অবাক’ রাজনৈতিক মহল। অনেকের মতে আবার ‘বিলম্বিত বোধদয়’ হয়েছে নেত্রীর।

Mamata Banerjee
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘জয় শ্রীরাম’। এই মুহুর্তে রাজ্যে রাজনীতির সবচেয়ে ‘উত্তেজক’ দুটি শব্দ। এই শব্দেই উত্তাল হচ্ছে বাংলার রাজনীতি। গেরুয়া শিবিরের এই পরিচিত ধ্বনিতেই সম্প্রতি একাধিকবার মেজাজ হারিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। এ রাজ্যে বিরোধী বিজেপির দাবি, ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ‘গালিগালাজ’। কিন্তু কাঁচরাপাড়ায় শুক্রবার সেই ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি উঠলেও ভ্রুক্ষেপ করলেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন কাঁচরাপাড়ায় সাংগঠনিক সভা করতে আসার সময় মমতার কনভয় লক্ষ্য করে কয়েকজন ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দেন। কিন্তু সেই ধ্বনিতে কর্ণপাত না করেই এদিন কনভয় নিয়ে সভাস্থলে পৌঁছান তৃণমূলনেত্রী। ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি শুনেও মমতার এহেন নির্লিপ্ত আচরণে কার্যত ‘অবাক’ রাজনৈতিক মহল। অনেকের মতে আবার ‘বিলম্বিত বোধদয়’ হয়েছে নেত্রীর।

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন চন্দ্রকোণায় দলীয় পদযাত্রায় যোগ দেওয়ার পথে মমতার গাড়ির সামনে কয়েকজন ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিয়েছিলেন। তৎক্ষণাৎ গাড়ি থেকে নেমে তাঁদের দিকে ছুটে যান মমতা। এরপর পদযাত্রা থেকেই বলেন,”গালিগালাজ দিচ্ছে, উল্টোপাল্টা কথা বলছে। দু’দিন পর নির্বাচন হয়ে গেলে এই বাংলাতেই থাকতে হবে। বেশি গরম দেখিও না, শোভা পায় না। রাজনীতিতে লড়াই আপনিও করবেন, আমিও করব। কিন্তু আপনি যদি আমার গাড়ির সামনে গালিগালাজ দেন, আর আমি যদি আমার কর্মীদের বলে দিই, তখন পাল্টা খেলে কী হবে বুঝতে পারছেন তো?”

আরও পড়ুন- মমতার উল্টো মেরুতে দাঁড়িয়ে চিকিৎসক আন্দোলন নিয়ে টুইট দেবের

শুধু চন্দ্রকণাই নয়, ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে নৈহাটি পুরসভার সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করে তৃণমূল। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসার সময় মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কনভয় লক্ষ্য করে কয়েকজন ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি তোলে। সেই শুনেই গাড়ি থেকে নেমে পড়ে ধেয়ে যান তৃণমূল নেত্রী। এই ক্ষুদ্ধ তৃণমূল নেত্রী সেদিন স্লোগানকারীদের উদ্দেশ্য বলেছিলেন, “গুন্ডামি-মস্তানি হবে না, বেঁচে আছো আমাদের জন্য। কোনও দাদা, মস্তান বাঁচাতে পারবে না। খাচ্ছ দাচ্ছ জমিদারি করছ? চামড়া গুটিয়ে ছেড়ে দেবো”। এরপর পুলিশের উদ্দেশে তিনি বলেন, “যারা এটা করছে তাঁদের নাম নাও, বাড়ির ঠিকানা নাও, নাকা তল্লাশি হবে। এতো বড় সাহস! গাড়ির মধ্যে হামলা!”

আরও পড়ুন- ‘ভুল করেছি, গদ্দারকে বিশ্বাস করে ঠকেছি’, স্বীকার করলেন মমতা

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এমন আচরণের মধ্যে এক ধরনের ‘অপরিণত মনস্কতা’ লক্ষ্য করছিলেন একাংশের রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। কিন্তু এদিন রামের নামে তৃণমূল সুপ্রিমোর মধ্যে কোনও উত্তেজনার ছপ দেখা যায়নি। বরং ‘জয় শ্রীরাম’কে পাত্তা না দিয়েই কাঁচরাপাড়ায় কাঁচরা হটানোর সভা করেছেন মমতা। তবে এদিন কাঁচরাপাড়া স্টেশন থেকে বাঘমোড় পর্যন্ত ‘জয় শ্রীরাম’লেখা বিজেপির পোস্টার এবং কাটআউটে কার্যত মুড়ে ফেলা হয় গোটা এলাকা। তৃণমূলের দাবি, তাঁদের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। যারা এই কাজ করেছে তাঁদের তিন দিনের মধ্যে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mamata banerjee dont give any response to jai shri ram slogan