বড় খবর

‘CAA নাগরিক মোয়া বিল-NRC-NPR হতে দেব না’, মতুয়াদের আশ্বাস মমতার

‘অনেক হাসপাতাল আছে যারা স্বাস্থ্যকার্ড নিতে চায় না। আমরা মিটিং করে বলেছি, এই কার্ডটা নিতে হবে। যদি কেউ চিকিৎসা না দেয় তাহলে লাইসেন্স বন্ধ করার ক্ষমতা সরকাররে কাছে আছে।’

নদিয়ার রাণাঘাটে জনসভা করলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভা ভোটের নিরিখে নদিয়ার এই অংশে যথেষ্ট শক্তিশালী বিজেপি। রাণাঘাট লোকসভা কেন্দ্রটিও জিতেছে গেরুয়া দল। নদিয়ায় মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের প্রভাব রয়েছে। তাই এদিন মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যেও উঠে এল এনআরসি-সিএএ-এনপিআর বিরোধিতা। একই সঙ্গে আয়ুষ্মান ভারত সহ কেন্দ্রীয় নানান প্রকল্পের সমালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তুলে ধরেন স্বাস্থ্যসাথী সহ দুয়ারে সরকারের সাফল্যের খতিয়ান। বিজেপি থাকলে দেে ফের ৭৬-এর মন্বন্তর হবে বলে সতর্ক করে দেন তিনি।

রাণাঘাটের সভায় কী বললেন মমতা?

* ‘নাগরিকতব দিতে একটা মোয়া বিল নিয়ে আসা হয়েছে। সেই বিলটা কার্যকর হয়নি। মতুয়ারা সবাই নাগরিক। আমি একথা জানিয়ে রাখলাম।’

* ‘মতুয়াদের ভুল বোঝানো হচ্ছে। নতুন করে মোয়া বিলের প্রয়োজন নেই। মতুয়ারা এমনিতেই নাগরিক। ৭১ সেলর আগেও যেসব উদ্বাস্তুরা এসেছেন তাঁরাও নাগরিক। নাগরিক্তব কেড়ে নেওয়া অতই সহজ?’

* ‘এনআরসি-এনপিআর হতে দেব না। মানুষের নাগরিকত্বের অধিকার আমরা হগণ করতে দেব না। এটা আমাদের সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্ত।’

* ‘মা-মাটি-মানুষের সরকার মানুষের কাছে দায়বদ্ধ। মতুয়া সমাজের জন্য বোর্ড করে দিয়েছি। ১০ কোটি টাকা দিয়েছি। রাজবংশী-কামতাপুরী-নমশুদ্রদের জন্য বোর্ড করেছি। ‘

* ‘স্বাস্থ্যসাথী সব পরিবার পাবে। কিন্তু বিজেপি এর বিরোধিতা করছে। মুখে শুধু বড় বড় কথা। কত লোক মারা গিয়েছিল দিল্লির দাঙ্গায়। পঞ্জাব-হরিয়ানায় কৃষকদের উপর জুলুম চলছে। আমরা কৃষকদের সাথে রয়েছি। আয়ুষ্মান ভারতে ৬০ শতাংশ কেন্দ্র , বাকি ৪০ শতাংশ রাজ্য দেয়। স্বাস্থ্যসাথীতে ১০০-এর মধ্যে ১০০টাকাই সরকার দেবে। এবার বলুন কোনটা ভালো? আমি নিজেও স্বাস্থ্যসাথীর মেম্বার। আপনার বাড়ির সকলেই এই কার্ডটায় চিকিৎসা পাবেন।’

* ‘অনেক হাসপাতাল আছে যারা স্বাস্থ্যকার্ড নিতে চায় না। আমরা মিটিং করে বলেছি, এই কার্ডটা নিতে হবে। যদি কেউ চিকিৎসা না দেয় তাহলে লাইসেন্স বন্ধ করার ক্ষমতা সরকাররে কাছে আছে। মুখ্যসচিব সবার সঙ্গে বৈঠক করছেন। যদি কেউ (বেসরকারি হাসপাতাল) এই কার্ডের জন্য আপনাদের হেনস্থা করে তবে একটা এফআইআর করবেন। তারপর সরকার সব দেখে নেবে।’

* ‘উদ্বাস্তুদের নিঃশর্তে জমির দলিল আমরাই দিয়েছিলাম। পাট্টা দিচ্ছে রাজ্য সরকার। সব উদ্বাস্তু কলোনির জমির অধিকার বাসিন্দাদের দেওয়া হচ্ছে।’

* ‘ওরা আগে নোটবন্দি করেছে, এবার জেলবন্দি করছে। ট্রাম্পের মত হেরে গিয়েও দেখবেন বলছে ক্ষমতা ছাড়বো না। ট্রাম্প-মোদী একই মুদ্রা এপিঠ-ওপিঠ।’

* ‘ওরা বলেছে সোনার বাংলা গড়বে। আমি বলছ্ সোনার বাংলা এখন বিশ্ব বাংলা হচ্ছে।’

* ‘কৃষকদের দাবিকে সমর্থন করছি আমরা। মনে রাখবেন বিজেপি থাকলে ৭৬-এর মন্বন্তর হবে।’

* ‘কৃষি জমি আমরা মিউটেশন করার জন্য পয়সা নিই না। শষ্য বিমার জন্য একটা পয়সাও বেশি নিই না। মৎস্যজীবী থেকে শুরু করে সবার জন্য করেছি। সব উদ্বাস্তু কলোনিতে জমির দলিলের সঙ্গে নিকাশি, পানীয় জল, রাস্তা সব হবে। আগামী দিন বাংলায় লক্ষ লক্ষ ছেলে মেয়েদের কাজ হবে।’

* ‘বিজেপি হল ওয়াশিং মেশিন। তৃণমূলে থাকলে সবাই কালো। আর বিজেপিতে গেলেই সকলে ভাল।’

* ‘ওদের আক্রমণের নিশানায় সবসময় বাংলা। এ রাজ্যের নামে কুৎসা রটাচ্ছে। আমি বলছি মাথা দেব, কিন্তু বাংলাকে বিক্রি হতে দেব না।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Mamata banerjee meeting at ranaghat updates

Next Story
আজ গেরুয়া মিছিলে শোভন-বৈশাখী, চ্যালেঞ্জ বিজেপির
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com