scorecardresearch

বড় খবর

‘উত্তরপ্রদেশে EVM-এর ফরেন্সিক তদন্ত হোক’, দাবি মমতার, ফের বিরোধী জোটেই আস্থা

‘উত্তরপ্রদেশে বিজেপি মানুষের ভোট নয়, যন্ত্রের কারসাজিতে জিতেছে। অখিলেশকে জোর করে হারানো হয়েছে।’

mamatas reaction on five states poll results and opposition alliance
মোদী ও যোগীকে নিশানা মমতার।

রাজ্য বাজেট পেশের পর বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর সাফ দাবি, উত্তরপ্রদেশে অখিলেশ যাদবের পরাজয়ের নেপথ্যে রয়েছে ইভিএম মেশিনে কারচুপি। তাই ইভিএমগুলির ফরেন্সিক তদন্তের দাবি তুলেছেন তিনি। তবে, কংগ্রেসের বিপর্যয় নিয়ে কোনও মন্তব্য না করলেও বিজেপি বিরোধী জোটের পক্ষেই সওয়াল করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উত্তরপ্রদেশ সমাজবাদী পার্টির সমর্থনে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারাণসীতে সভা করেছিলেন। অখিলেশ সিংকে পাশে বসিয়ে করেছিলেন ভার্চুয়াল বৈঠকও। কিন্তু, উত্তরপ্রদেশে রেকর্ড গড়ে পরপর দু’বার যোগী রাজ প্রতিষ্ঠিত। আপ্লুল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জানিয়েছেন, ২০২২ সালের বিধানসভা ভোটের ফল ২০২৪ সালের লোকসভা ভোটের ফলাফলের ইঙ্গিত।

আরও পড়ুন- বিরোধী শিবিরের নতুন নক্ষত্র AAP, চ্যালেঞ্জের বদলে ভোটের অঙ্কে লাভ দেখছে BJP

যদিও উত্তরপ্রদেশে পদ্ম শিবিরের এই বিপুল জয়কে মানুষের রায় বলে মেনে নিতে রাজি নন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, ‘উত্তরপ্রদেশে অখিলেশের ৩৭ শতাংশ ভোট বেড়েছে, ৭৮টি আসন বৃদ্ধি পেয়েছে। ৫৪টি আসন হারিয়েছে বিজেপি। ইভিএম নিয়ে প্রচুর অভিযোগ ছিল। উত্তরপ্রদেশে বিজেপি মানুষের ভোট নয়, যন্ত্রের কারসাজিতে জিতেছে। অখিলেশকে জোর করে হারানো হয়েছে। ইভিএমগুলির ফরেন্সিক পরীক্ষা হওয়া উচিত।’ মমতার দাবি, অখিলেশ বিজেপির সঙ্গেই কংগ্রেস-মায়াবতীর দল বিএসপির বিরুদ্ধেও লড়েছে। ফলে বিরোধী ভোট ভাগাভাগি হওয়ার সুযোগ পেয়েছে বিজেপি।

মুখ্যমন্ত্রী ফের মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, ‘বাংলার নির্বাচনেও যে ইভিএমে কারচুপির চেষ্টা হয়েছিল, কিন্তু ওরা পুরোটা পারেনি। তাই জেতেনি।’

গেরুয়া শিবিরের এই জয়কে ২০২৪ সালের ইঙ্গিত বলেও মানতে রাজি নন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেছেন, ‘২০২৪ সালে কী হবে কেউ জানে না। উত্তরপ্রদেশে যেভাবে বিজেপি জিতেছে, তাতে ওদের ভালো হবে না।’

আরও পড়ুন- ‘সপা-র জঙ্গলরাজ ঠেকাতেই বিজেপিকে ভোট দিয়েছে দলিতরা’, হারের পর দাবি মায়াবতীর

এরপরই আগামী লোকসভার আগে বিজেপি বিরোধী জোটের প্রয়োজনীতার কথা বলেন মমতা। তাঁর কথায়, ‘ কংগ্রেস হেরেই চলেছে। ওদের নেতৃত্বে তাই জোট করে লাভ নেই। বিজেপিকে হারাতে এখন সব আঞ্চলিক দলগুলিকে একজোট হোক। দরকারে আমাকে বাদ দিক। যে অঞ্চলে যে বিজেপি বিরোধী দল আছে তাদের মানুষ ভোট দিক। তাহলেই সম্ভব।’

মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরপ্রদেশের ভোট ব্যবহৃত ইভিএমের ফরেন্সিক তদন্ত প্রসঙ্গে এ রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন, ‘উনি আগে এরাজ্যের ভোটে ব্যবহার হওয়া ইভিএম ও সিসিটিভিগুলির ফরেন্সিক পরীক্ষা করান। তারপর ওখানকারগুলোর ব্যবস্থা হবে। ভোট লুঠেরাদের আবার বড় বড় কথা।’

আরও পড়ুন- ‘আমার হৃদয় থেকে রক্ত ঝরছে’, ‘বিক্ষুব্ধ’ আজাদের মন্তব্যে কংগ্রেসর অন্দরে বিস্ফোরণের ইঙ্গিত

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mamatas reaction on five states poll results and opposition alliance