বড় খবর


বাবার কাছে হেরে গিয়েছি, মন্তব্য মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশুর

শুভ্রাংশু বলেন, ‘‘আমার কাছে সব দলের দরজা খোলা রয়েছে। নতুন ইনিংস শুরু করার সম্ভাবনা রয়েছে। হয় বসে যেতে পারি বা অন্য দল হতে পারে। তৃণমূল যদি বর্জন করে তবে তো কোনও না কোনও দলে যেতেই হবে’’।

subhranshu roy, শুভ্রাংশু রায়, loksabha election 2019, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯
মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশু রায়। ছবি: টুইটার।

‘নতুন ইনিংস শুরু শুধু সময়ের অপেক্ষা’, লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশ হতেই মন্তব্য মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশু রায়ের। ফল প্রকাশের পরের দিনই এমন মন্তব্যে শুভ্রাংশুর দলবদলের ইঙ্গিতই খুঁজে পাচ্ছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে মুকুল-পুত্র বলেন, ‘‘আমার কাছে সব দলের দরজা খোলা রয়েছে। নতুন ইনিংস শুরু করার সম্ভাবনা রয়েছে। হয় বসে যেতে পারি বা অন্য দলও হতে পারে’’। এতেই শেষ নয়, এদিন শুভ্রাংশু এও বলেছেন, ‘‘যদি তৃণমূল বর্জন করে, তবে কোনও না কোনও দলে তো যেতে হবেই’’।  প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে গিয়ে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের উপর ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছিলেন শুভ্রাংশু। এদিকে, মুকুল রায়ও বলেছেন, ‘‘শুভ্রাংশুর বিজেপিতে যোগদান স্রেফ সময়ের অপেক্ষা’’। তাহলে কি ভোটের ফল ঘোষণার পর এবার সেই অপেক্ষার অবসান ঘটছে?

এদিন ঠিক কী বলেছেন শুভ্রাংশু?

এদিন শুভ্রাংশু বলেন, ‘‘আমি একা নই, মুকুল রায়ও বীজপুরের ভূমিপুত্র। আমি আমার বাবার কাছে হেরে গিয়েছি। এখানে রাগ, অভিমান নেই। মানুষ বাবাকে বেছে নিয়েছে। আমিও আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম ঠিকই। কিন্তু, লিড দিতে পারিনি”। কিন্তু, তৃণমূলকে কেন জেতাতে পারলেন না? শুভ্রাংশুর সরাসরি জবাব, “ব্যক্তিগতভাবে মনে হয়েছে, কিছু কথা এই কাঁচরাপাড়া, হালিশহরের মানুষ মন থেকে মেনে নেয়নি। বীজপুরের মানুষ তৃণমূলকে এবার বর্জন করেছে’’। তিনি আরও বলেন, ‘‘একটা ওপিনিয়ন নেওয়ার দরকার। বাড়িতে বলতে হচ্ছে, দলে কৈফিয়ৎ দিতে হচ্ছে, বন্ধুবান্ধবরাও বলছে, কী করছি। সকলকে কৈফিয়ৎ দিতে হচ্ছে। দল কি আমায় বিশ্বাস করে? প্রশ্নচিহ্নের সামনে দাঁড়িয়ে আমি’’।

আরও পড়ুন: বাবার মতো নই, পাল্টা ছুরি বসাতে জানি: শুভ্রাংশু

আপনি কি বিজেপিতে যাচ্ছেন? এই প্রশ্নের জবাবে বীজপুরের বিধায়ক বলেন, ‘‘আমার কাছে সব দলের দরজা খোলা রয়েছে। নতুন ইনিংস শুরু করার সম্ভবনা রয়েছে। হয় বসে যেতে পারি বা অন্য দল হতে পারে। তৃণমূল যদি বর্জন করে তবে কোনও না কোনও দলে তো যেতেই হবে। বাবার সঙ্গে কথা বলব নিশ্চয়ই। অনুগামীদের সঙ্গে কথা বলব, এলাকার মানুষের সঙ্গে কথা বলব, যাঁরা ভালবাসেন, পরিজনদের সঙ্গে কথা বলব। তবে কিছুদিন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চাই’’।

উল্লেখ্য, বঙ্গে এবার গেরুয়াঝড়ের অন্যতম মূল কাণ্ডারী একদা মমতার প্রধান সেনাপতি মুকুল রায়। এই মুকুলের হাত ধরেই তৃণমূলের বহু সাংসদ বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। স্বয়ং নরেন্দ্র মোদীও ভোটপ্রচারে এসে বলে গিয়েছেন, মমতার ৪০ বিধায়ক তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তবে কি ভোটের ফল মেটার পরই সেই দলবদলের কাজ শুরু করে দিলেন মুকুল রায়রা? শুভ্রাংশু কি এই চল্লিশের মধ্যে একজন? উত্তর দেবে আগামী।

Web Title: Mukul roy son subhranshu roy likely to quit tmc bjp west bengal

Next Story
‘অর্জুনকে অনেক আদর করেছি, কিন্তু শোধরাতে পারিনি’MADAN MITRA, মদন মিত্র
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com