scorecardresearch

বড় খবর

এবার ‘বেসুরো’ অর্জুন, মোদী সরকারের বিরুদ্ধেই চরম আন্দোলনের হুঁশিয়ারি বিজেপি সাংসদের

‘বুঝতে রাজি নন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। ধৈর্ষের বাঁধ ভেঙেছে। ফলে উপায় নেই। প্রয়োজনে রাস্তায় নেমে তরম আন্দোলন করব।’

arjun singh warns of movement against modi government for neglecting jute industry
অর্জুনের নিশানায় কেন্দ্র।

বঙ্গ বিজেপিতে ‘মুষল পর্ব’ জারি। তার মাঝেই পদ্ম শিবিরের চরম অস্বস্তি বাড়ালেন সাংসদ অর্জুন সিং। মোদী সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে আন্দোলনের হুঙ্কার দিলেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ। বারংবার আবেদন সত্ত্বেও বস্ত্রমন্ত্রক পাটের বদলে প্লাসটিক কেনার সিদ্ধান্তেই অনড়। যার বিরুদ্ধেই সরব হয়েছেন দোর্দদণ্ডপ্রতাপ এই নেতা। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে শাসক দলের সাংসদ হওয়া সত্ত্বেও অর্জুন সিংয়ের এই ‘বিদ্রোহ’ কার্যত দলবদলের ইঙ্গিত বলেই জল্পনা শুরু হয়েছে। এনিয়েও মুখ খুলেছেন বিজেপি সাংসদ।

ব্যারাক শিল্পাঞ্চলের পাট শিল্প এমনিতেই ধুঁকছে। ইতিমধ্যেই বন্ধ হয়েছে একাধিক কারখানা। বেকার হয়েছেন হাজারে হাজারে শ্রমিক। শোচনীয় পাট চাষিদের অবস্থা। এই অবস্থায় পাট শিল্পের পুনরুজ্জীবনে উদ্যোগী হয়েছিলেন কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ অর্জুন সিং। কিন্তু তাঁর অভিযোগ, বস্ত্র মন্ত্রী পীযুষ গোয়েলকে পাটজাত জনিস কিনার আবেদন জানালেও লাভ হচ্ছে না। উল্টে, প্লাসটিকের দ্রব্যাদী ব্যবহারেই অনড় মন্ত্রী। আর এতেই সংঘাত বাড়ছে।

সাংসদ অর্জুন সিংয়ের কথায়, ‘গত ফেব্রুয়ারি মাসে পাটের জিনিস কেনার জন্য বস্ত্রমন্ত্রকে ডেপুটেশন দিয়েছিলাম। কাজ হয়নি। ফের আবেদন করলেও সাড়া মেলেনি। এবার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গিয়েছে। বস্ত্রমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল কথা শুনতে বা বুঝতেই রাজি নন। বলছেন পাটের বদলে প্লাসটি দিয়ে কাজ চালাবেন। পাট শিল্প ধ্বংস হয়ে যাবে। যেখান থেকে আমি উঠে এসেছি সেখানকার মানুষরা বঞ্চিত হবেন তা মানব না। ২কোটি মানুষের ভাগ্য এর সঙ্গে জড়িত। তাঁদের জীবন ধ্বংস হয়ে যাবে এটা মানতে পারব না। বাধ্য হব কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলন করতে হবে।’

বিজেপিতে থেকে বাংলার পাট শিল্পের পুনরুজ্জীবনের তাগিদে কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনকে মান্যতা দেবে দল? অর্জুন সিংয়ের দাবি, ‘দল ভালো না বাজে-ভাবে নেবে তা জানি না, সেটা আমার দেখার দরকারও নেই। আমি যাঁদের জন্য জনপ্রতিনিধি হয়েছি, তাঁদের স্বার্থ আগে দেখতে হবে। প্রয়োজনে রাজনীতি ছাড়ব।’

‘বেসুরো’ অর্জুন সিং। তাঁর কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনের হুঁশিয়ারি কী আদতে দলবদলের ঢাকে কাঠি? জাবাবে বারাকপুরের সাংসদ বললেন, ‘এরসঙ্গে দলবদলের কোনও সম্পর্ক নেই। পাট শিল্পের উন্নতিতে দল মত নির্বিশেষে সকলের এগিয়ে আসা প্রয়োজন।’ অর্জুন সিং ২০১৯ সালের মার্চ মাসে বিজেপিতে যোগদান করেন। সেই বছরই লোকসভা ভোটে ব্যারাকপুর কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হয়ে জিতে প্রথমবার বিজেপির সাংসদ হন।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Arjun singh warns of movement against modi government for neglecting jute industry