scorecardresearch

বড় খবর

আসল নাম দ্রৌপদী-ই নয়, নিজেই ফাঁস করলেন ভারতের নয়া রাষ্ট্রপতি

সাঁওতাল সমাজের রীতি। যেখানে পরিবারে ছেলে জন্মালে ঠাকুরদার নামে নামকরণ করা হয়। আর, মেয়ে হলে ঠাকুমার নামে।

আসল নাম দ্রৌপদী-ই নয়, নিজেই ফাঁস করলেন ভারতের নয়া রাষ্ট্রপতি
রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু শুক্রবার টিবি মুক্ত ভারত অভিযান শুরু করেন

মহাভারতের যুগের সেই নামটা এখন দেশে সবচেয়ে আলোচিত- দ্রৌপদী। ওড়িশার প্রাক্তন স্কুলশিক্ষক দ্রৌপদী মুর্মু রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর ভারতের আধুনিকতাও যেন এক ঝটকায় সাবালক হয়ে গিয়েছে। আদিবাসী মহিলা দেশের রাষ্ট্রপতি। প্রথমবারের জন্য হলেও। অবশ্য, আদিবাসী মানে বন-জঙ্গলে থাকা ‘ওলা ওলা উ-উ-উ-উ’ শব্দ করে ছুটে আসা বলিউডি দৃশ্যগুলো ভাবলে ভুল হবে। ভারতের আদিবাসী মানুষজনও স্বাধীনতা পরবর্তী পর্যায়ে যথেষ্ট প্রগতিশীল। ওড়িশার পিছিয়ে পড়া এক গ্রাম থেকে রাষ্ট্রপতি পদে দ্রৌপদী মুর্মুর উঠে আসা দরজায় কড়া নেড়ে ফের যেন সেকথাই বুঝিয়ে দিল।

কিন্তু, যাঁকে নিয়ে এত তোলপাড়, তিনি কি আদৌ দ্রৌপদী? আদিবাসী সমাজে এমন নাম তো সচরাচর শোনা যায় না। এতদিন প্রশ্নটা হয়তো অনেকেরই মাথায় ছিল। কিন্তু, তা প্রশ্ন হয়েও ঝরে পড়েনি। আর উত্তরও মেলেনি। এবার মিলল, তা-ও দেশের নয়া রাষ্ট্রপতির মুখ থেকে। এক সাক্ষাৎকারে দেশের সদ্য শপথ নেওয়া রাষ্ট্রপতি ফাঁস করলেন সেই কাহিনি। টেনে আনলেন জীবনের অতীত। সেই ছোটবেলার কথা। যখন তিনি দ্রৌপদী নন। মা তো বটেই, গোটা বাড়ির লোক, প্রতিবেশীদের কাছে স্রেফ ‘পুটি’। হ্যাঁ, আজকের এই দ্রৌপদী মুর্মুই ছোটবেলার ‘পুটি’।

আরও পড়ুন- দ্রৌপদীর শপথ গ্রহণে অশ্রুসজল আসমুদ্রহিমাচল, ভারত সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে, দাবি মোদীর

তবে, শিক্ষার খিদে আর স্কুলের গন্ডিই বাড়ির নামটাকে বদলে দিয়েছিল। ‘পুটি’কে করে দিয়েছিল দ্রৌপদী। সে-ও কাহিনি। যেখানে সাঁওতাল সমাজের ‘পুটি’ হয়ে গেলেন হিন্দু সমাজের প্রচলিত নামে পরিচিত। দ্রৌপদী, এই নামটা তারপর থেকে আজও বয়ে বেড়ালেও নামবদলের সেই ইতিহাসটা ভোলেননি দেশের প্রথম আদিবাসী রাষ্ট্রপতি। দ্রৌপদী মুর্মু সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘দ্রৌপদী আমার আসল নাম না। আমার একজন টিচার এই নাম দিয়েছিলেন। আমার আগের নাম তাঁর পছন্দ ছিল না। তাই বদলে দিয়েছেন।’

দেশের স্বাধীনতার পর জন্মগ্রহণ করা প্রথম রাষ্ট্রপতির ‘পুটি’ নামটা কিন্তু আজও একটা কারণে বিলক্ষণ মনে আছে। তা হল, সাঁওতাল সমাজের রীতি। যেখানে পরিবারে ছেলে জন্মালে ঠাকুরদার নামে নামকরণ করা হয়। আর, মেয়ে হলে ঠাকুমার নামে। এটা পারিবারিক উত্তরাধিকারের ব্যাপার। যাই হোক, নামে কী-ই বা আসে যায়! সেদিনের পুটি টুডু, স্কুলে-কলেজে দ্রৌপদী টুডু হয়েছেন। বিয়ের পর দ্রৌপদী মুর্মু হয়েছেন। নামটা পুরোপুরি বদলে গিয়েছে। কিন্তু, আজও তো তিনি আদিবাসী পরিবারের মেয়ে, বউ বলেই পরিচিত। সাঁওতাল সমাজের প্রতিনিধি। আর, সেই পরিচয়েই ভারতের প্রথম আদিবাসী রাষ্ট্রপতিও।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Her original name is not draupadi murmu