গদি ছাড়লেন উদ্ধব, মারাঠাভূমে চরম রাজনৈতিক সংকট, আড়ালে হাসি চনমনে পদ্ম শিবিরের

আস্থা ভোটের আগেই মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সি ছেড়েছেন উদ্ধব ঠাকরে।

maharastra political crisis in Supreme court updates
মহারাষ্ট্রে আজ আস্থা ভোট।

আস্থাভোট রুখতে গতকালই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল শিবসেনা। তবে জরুরি ভিত্তিতে মামলা শুনেও হস্তক্ষেপ করতে রাজি হননি বিচারপতিরা। বদলে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে বৃহস্পতিবার আস্থাভোটের মুখোমুখি হওয়ার নির্দেশ দেয় শীর্ষ আদালত। তবে আস্থাভোটের আগেই মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেন উদ্ধব ঠাকরে। উদ্ধবের ইস্তফায় আর আস্থাভোট নেওয়ার প্রয়োজন হবে না।

বুধবার মহারাষ্ট্র বিধানসভায় আস্থা ভোটের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টে জোরদার সওয়াল করেন বিদ্রোহী শিবসেনা নেতা একনাথ শিণ্ডের আইনজীবী নীরজ কউল। তিনি আদালতে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার আস্থাভোট হলে মহারাষ্ট্র বিধানসভায় ঘোড়া কেনাবেচা হতে পারে বলে অভিযোগ উঠছে। কিন্তু, ঘোড়া কেনাবেচা আদৌ হচ্ছে কি না, তা পরখ করার একমাত্র জায়গা হল আইনসভা, এক্ষেত্রে মহারাষ্ট্র বিধানসভা। আর, সেজন্যই আস্থাভোটে দেরি করা উচিত নয়। যে বিধায়করা বিধানসভা গঠন করেছেন, তাঁদের স্বার্থেই আস্থাভোট হওয়া উচিত। মুখ্যমন্ত্রী আস্থা হারিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে আস্থাভোট হওয়া জরুরি। সরকার যদি মনে করে যে তাদের প্রতি যথেষ্ট সংখ্যক বিধায়কের সমর্থন রয়েছে, তবে তো আস্থাভোট আরও বেশি করে হওয়া উচিত। তাই যত আস্থাভোটে দেরি হবে, ততই সংবিধানের ক্ষতি হবে।’ আদালতে বিদ্রোহী শিবসেনা নেতা শিণ্ডের পক্ষ থেকে আইনজীবী জানিয়ে দেন, তাঁর মক্কেলই আসল শিবসেনা। তাই, কোনওমতেই তাঁরা শিবসেনা ছাড়বেন না।

শুনানি চলাকালীন সুপ্রিম কোর্টে উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন শিবসেনার মুখ্য সচেতক সুনীল প্রভুর আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি জানান এই মুহূর্তে আস্থাভোট হওয়া উচিত নয়। কারণ, বিধায়কপদ খারিজের মামলা সুপ্রিম কোর্টে চলছে। আস্থাভোট হওয়ার পর হয়তো দেখা যাবে, বিধানসভার সদস্য সংখ্যাতেই হেরফের হয়ে গিয়েছে। তখন কি তাহলে, এই আস্থাভোটের ফল বাতিল হবে? পাশাপাশি, সিংভি আদালতকে জানান, এনসিপির দুই বিধায়ক বর্তমানে করোনা আক্রান্ত। দুই বিধায়ক বাইরে আছেন। তার মধ্যেই বিরোধী দলনেতা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখার করার পরই রাজ্যপাল আস্থাভোটের কথা বলতে শুরু করেছেন। অথচ, রাজ্যপাল একবারও মুখ্যমন্ত্রীকে ডেকে তাঁর সঙ্গে কথা বলেননি।

আরও পড়ুন- বৃহস্পতিবার আস্থাভোট না-হলে আকাশ ভেঙে পড়বে না, জোরালো সওয়াল শিবসেনার আইনজীবী সিংভির

এর আগে বিদ্রোহী শিবসেনা নেতা একনাথ শিন্ডে দাবি করেন, বিদ্রোহী বিধায়ক ও নির্দলদের মিলিয়ে তাঁর প্রতি ৫০ জন বিধায়কের সমর্থন রয়েছে। বিজেপি বিধায়করাও তাঁকে সমর্থন করার কথা জানিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে মহারাষ্ট্র বিধানসভার বিরোধী দলনেতা তথা বিজেপির দেবেন্দ্র ফড়নবিশ মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ার দাবি জানিয়েছেন। তার মধ্যেই বুধবারই বিদ্রোহী শিবসনা বিধায়করা গুয়াহাটির হোটেল ছেড়ে মহারাষ্ট্র্রের পথে রওনা হন। একইসঙ্গে শিণ্ডে জানান, তাঁরা আস্থাভোটে নিশ্চিতরূপে জয়ী হবেন। এরপরই মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারি শিবসেনা প্রধান তথা মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন মহাবিকাশ আঘারি (এমভিএ) সরকারকে আস্থা ভোটের মাধ্যমে বিধানসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের নির্দেশ দেন।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Maharastra crisis now in supreme court uddhav thackeray eknath shinde shivsena updates

Next Story
দাঙ্গা নিয়ে সুপ্রিম রায় ‘নৈতিক জয়’, বাড়িয়েছে মনোবল, ধারণা বিজেপি নেতৃত্বের