পদ্ম-সম্মান বিতর্ক: সোশাল মিডিয়া থেকে দলের একাধিক নেতার নিশানায় আজাদ, শেষ পর্যন্ত মুখ খুললেন

পদ্মভূষণ প্রাপদের তালিকায় বাংলার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেই নাম ছিল জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রবীণ কংগ্রেস নেতা আজাদের।

Ghulam Nabi Azad on speculation about political plans
প্রবীণ কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ।

মঙ্গলবার পদ্মভূষণ প্রাপদের তালিকায় বাংলার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেই নাম ছিল জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রবীণ কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদের। সিপিআইএম নেতা বুদ্ধবাবু সম্মান প্রত্যাখ্যান করেছেন। তবে গুলাম সে নিয়ে মুখ খোলেননি। যা ঘিরে ইতিমধ্যেই নানা রাজনৈতিক জল্পনা মাথাচাড়া দিয়েছে। দলের মধ্যে থেকেই কংগ্রেসের জি-২৩ ভুক্ত গোষ্ঠীর অন্যতম এই সদস্যের বিরুদ্ধে চোখা চোখা বাক্যবাণ উড়ে আসছে। যা নিয়ে শেষ পর্যন্ত মুখ খুললেন গুলাম নবি আজাদ।

লক্ষ্মীবারের রাত থেকেই সোশাল মিডিয়ায় আজাদ ঘিরের নানা টিপ্পনি। অনেকেই বলে থাকেন যে, প্রবীণ এই কংগ্রেসে নেতার টুইটার প্রোফাইলের রং বদলে ফেলেছেন। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের পদ্ম সম্মান প্রত্যাখ্যান নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে হাত শিবিরের জয়রাম রমেশ তো বলেই দিয়েছেন, ‘বুদ্ধবাবু আজাদ হতে চান গুলাম নন।’ নিশানা যে তাঁরই সতীর্থ তা স্পষ্ট।

তাঁর রাজনৈতিক ভবিষ্যত ঘিরে যাবতীয় জল্পনা-কল্পনা নিয়ে টুইটেই জবাব দিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেসের সাংগঠনিক কাঠামো সংস্কারের অন্যতম দাবিদার গুলাম নবি আজাদ। টুইটে আজাদ লিখেছেন, ‘কিছু লোক বিভ্রান্তি সৃষ্টির জন্য অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমার টুইটার প্রোফাইলে কিছুই সরানো বা যোগ করা হয়নি। প্রোফাইল আগের মতই আছে।’ পদ্ম সম্মান প্রাপ্তি বা কংগ্রেস নিয়ে সেখানে কোনও উল্লেখ নেই।

বর্তমানে রাজনৈতিক দলের অনেক নেতার গতিবিধি সোশাল মিডিয়ার নানা পোস্ট, রং দেখে নির্ণয় করা হয়, বিশেষ করে দল বদলের আগে। কিন্তু গুলাম নবির টুইটার প্রোফাইলে তার কোনও নজির নেই।

আজাদের পদ্ম সম্মান প্রাপ্তিকে কেন্দ্র করে হাত শিবিরের অন্দরেও মতপার্থক্য রয়েছে। জয়রাম রমেশের মত একাধিক নেতা প্রবীণ এই রাজনীতিককে আক্রমণ করলেও পাশে দাঁড়িয়েছেন কংগ্রেসের জি-২৩ গোষ্ঠীর অন্যতম সদস্য কপিল সিবাল। প্রাজ্ঞ এই আইনজীবী বলেছেন, ‘যখন কংগ্রেসের আজাদের পরিষেবার প্রয়োজন নেই, তখন জনজীবনে তাঁর অবদানকে স্বীকৃতি দেওয়া হল। এটা চরম পরিহাস।’

এর আগে কংগ্রেসের তরফে রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা ছিলেন গুলাম নবি আজাদ। অভিজ্ঞতায় পুষ্ট তিনি। তাঁর অবসরের সময় রাজ্যসভায় ভাষণে প্রধানমন্ত্রী মোদীর চোখেও জল দেখা গিয়েছিল।

বর্তমানে উপত্যকার একাধিক গ্রামে ঘুরতে দেখা গিয়েছে আজাদকে। যা নিয়ে ভালো সাড়া নজরে পড়েছে বলে দাবি কংগ্রেসের। সূত্রের খবর, আগামী দিনেও জম্মু-কাশ্মীরের গ্রামে গ্রামে ঘুরে দলের সংগঠন চাঙ্গা করার কাজ চালাতে দেখা যাবে প্রাক্তন এই মুখ্যমন্ত্রীকে।

Read in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mischievous propaganda says ghulam nabi azad on speculation about political plans

Next Story
ভোটের সময় রাজনৈতিক দলগুলির ‘প্রতিশ্রুতি’-‘দান খয়রাতি’, কেন্দ্র-কমিশনকে সুপ্রিম নোটিস