scorecardresearch

বড় খবর

নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ, কংগ্রেস ছাড়ার পথে সনিয়া ঘনিষ্ঠ নেতার ছেলে?

সনিয়ার ঐক্যবদ্ধ কংগ্রেস ডাকের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ফের দলে ভাঙনের ইঙ্গিত।

Arif Masood Congress mla madhyapradesh who is taking on his party again
নেতৃত্বের প্রশ্নে কংগ্রেসে বিতর্ক।

সনিয়ার ঐক্যবদ্ধ কংগ্রেস ডাকের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ফের দলে ভাঙনের ইঙ্গিত। নিশানা সেই শতাব্দী প্রাচীন দলের নেতৃত্বর দিকেই। এবার কংগ্রেস নেতৃত্বের দিকে একরাশ অভিমান প্রকাশ করলেন সনিয়া গান্ধীর অনুগামী বলে পরিচিত ও সাম্প্রতিককালে দলের বহু সমস্যার ত্রাতা প্রয়াত আহমেদ প্যাচেলের পুত্র ফয়জাল।

চলতি বছর শেষের দিকে গুজরাটে বিধানসভা ভোট হবে। মোদী-শাহ-য়ের রাজ্যে প্রত্যাবর্তনের লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই ঝাঁপিয়েছে বিজেপি। ভালো ফল করতে সংগঠন পোক্ত করার আশ্বাস দিয়েছেন সনিয়া গান্ধী। তার মধ্যেই ফয়জালের টুইট ঘিরে অস্বস্তি বাড়ল হাত শিবিরের।

মঙ্গলবার টুইটে ফয়জাল প্যাটেল লিখেছেন, ‘অপেক্ষা করতে করতে ক্লান্ত। কোনও উৎসাহ উচ্চ নেতৃত্বের থেকে মেলেনি। বিকল্প খোলা রেখেছি।’ তাহলে কী কংগ্রেসের থেকে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছে সনিয়া ঘনিষ্ঠ প্রয়াত নেতা আহমেদ প্যাচেলের পুত্র? এই টুইট ঘিরেই জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। যদিও তাঁর এ দিনের টুইটে তিনি কী ধরনের উৎসাহ খুঁজছিলেন তার উল্লেখ নেই।

আসন্ন নির্বচানে কংগ্রেসের হয়েই কাজ করতে ও প্রার্থী হতে আগ্রহী ফয়জাল। বাবার মৃত্যুর পর প্রায় দেড় বছর অতিক্রান্ত। কিন্তু দলের তরফে তাঁর উদ্দেশে সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশের কোনও আহ্বান মেলেনি। এতেই নাকি অসন্তুষ্ট ফয়জাল। ধৈর্ষের বাঁধ ভেঙেছে তাঁর। শেষ পর্যন্ত নেতৃত্বের বিরুদ্ধেই এ দিন তোপ দেগেছেন আহমেদ পুত্র। সূত্রের খবর, আর কয়েকদিন দেখেই চরম সিদ্ধান্ত নিতে পারেন ফয়জাল। তাঁর আপে যোগদানের সম্ভাবনা উজ্জ্বল হচ্ছে।

ফয়জাল আহমেদ (বাঁ দিকে)

ফয়জালের টুইট বায়ো স্ট্যাটাসে উল্লেখ, ‘সমাজকে উন্নত করতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করা হচ্ছে। সহানুভূতি আবশ্যক। হার্ভার্ড বিজনেস অ্যান্ড ডুন স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র। গর্বিত ভারতীয় এবং বিশ্ব নাগরিক।’ ফয়জাল প্যাটেলের বোন মুমতাজ প্যাটেলও টুইটারে রাজনৈতিক বিভিন্ন ইস্যুতে সক্রিয় থাকেন।

ফয়জাল বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেলের ছেলে। সনিয়া গান্ধীর বিশেষ ভরসার হাইকমান্ড নেতা। গত কয়েক বছর হাত শিবিরের বহু সমস্যার সমাধানকারী হিসাবে ত্রাতারভূমিকা পালন করেছেন তিনি। সামলেছেন সনিয়ার রাজনৈতিক সচিবের দায়িত্ব। ২০২০ সালের নভেম্বরে গুরুগ্রাম এক হাসপাতালে প্রয়াত হন আহমেদ প্যাটেল। কোভিড সংক্রমিত হয়েছিলেন তিনি।

আহমেদ প্যাটেল সংসদে আটবার গুজরাটের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। এর মধ্যে তিনবার লোকসভায় এবং পাঁচবার রাজ্যসভায়। ভারুচ আসনের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতা ছিল।

নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ দেগে এর আগে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, জিতিন প্রসাদের মতো রাহুল গান্ধীর ঘনিষ্ঠরা দল ছেড়েছেন। এখন দেখার আহমেদ প্যাটেল পুত্র ফয়জাল-ও সেই পথেরই পথিক হন কিনা?

Read in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: No encouragement from top brass keeping my options open ahmed patels son faisal