scorecardresearch

বড় খবর

যশবন্তেই সিলমোহর, বিরোধীদের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থীকেই সমর্থন AAP-TRS-AIMIM-র

এ দিনই তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ।

Yashwant Sinha
কেন্দ্রীয় বাহিনীর সুরক্ষা পেলেন যশবন্ত সিনহা।

বিরোধীদের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হলেন তৃণমূলের সদ্য প্রাক্তন সর্বভারতীয় সহসভাপতি যশবন্ত সিনহা। মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে ১৮টি বিরোধী দলের বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিরোধী দলের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থীকেই সমর্থন দেবে আপ, মিম ও টিআরএস। সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার।

২৭ জুন মনোনয়ন জমা দেবেন যশবন্ত সিনহা।

এ দিন সকালেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হতে নিজের সম্মতির কথা জানান যশবন্ত সিনহা। টুইটে লেখেন, ‘বৃহত্তর জাতীয় স্বার্থে দল থেকে সরে এসে বৃহত্তর বিরোধী ঐক্যের জন্য কাজ করতে হবে।’ মুখে সরাসরি রাষ্ট্রপতি পদের ভোটে লড়ার কথা না বললেও টুইটে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করেছিলেন বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদের।

২০১৮ সালে বিজেপি ছাড়েন যশবন্ত সিনহা। গত বছর যোগ দেন তৃণমূলে। পরে বাংলার শাসক দল বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদকে সহসভাপতি করে।

রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী বাছাইয়ে বিরোধীদের বৈঠকের এ দিন হাজির ছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। যশবন্তের নাম ঘোষণা হতেই তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছেন অভিষেক।

দেশের মূল্যবোধ যশবন্ত সিনহার হাতে সুরক্ষিত থাকবে বলে আশাবাদী তৃণমূল সুপ্রিমো। টুইটবার্তায় তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত সপ্তাহে বিরোধীদের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী নিয়ে বৈঠকে মমতা শুরুতেই শরদ পাওয়ারের নাম প্রস্তাব করেছিলেন। কিন্তু, তা প্রত্যাখ্যান করেন পাওয়ার। পরে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা ও গোপালকৃষ্ণ গান্ধীর নাম প্রস্তাব করেছিলেন। কিন্তু তাঁরা সেই প্রস্তাব গ্রহণ করেননি। এরপরই নাম উঠে আসে যশবন্ত শিনহার। যা দেশের বৃহত্তর স্বার্থে গ্রহণ করেছেন বলে আগেই জানিয়েছিলেন বাজপেয়ীর আমলের প্রাক্তন এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

আগামী ১৮ জুলাই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হবে। প্রয়োজনে ফলাফল প্রকাশ ২১ জুলাই।

রাষ্ট্রপতি ভোটে বিরোধীদের প্রার্থীর জেতা কার্যত অসম্ভব। কিন্তু, সর্বসম্মতিক্রমে প্রার্থী দিয়ে শাসক বিরোদী লড়াই ও দলগুলিকে এক ছাতার তলায় আনার প্রয়াস চালিয়ে ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিছুটা সফল তিনি। প্রথম বৈঠকে টিআরএস, ওয়াইএসআর কংগ্রেস, আপ ও বিজেডির প্রতিনিধি না আসায় প্রশ্ন উঠেছিল। তবে, এদিন বৈঠকে যোগ দেন মিমের প্রতিনিধি। অন্যদিকে টিআরএস ও আপ-ও বিরোধীদের প্রার্থীকেই সমর্থন করবে বলে জানিয়েছে। বৈঠক শেষে এই দাবি করেছেন শরদ পাওয়ার। তবে, বিজেডি এবং ওয়াইএসআর কংগ্রেসের তরফে এখনও এ নিয়ে কিছু জানানো হয়নি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Opposition presidential candidate yashwant sinha is unanimous