বড় খবর

ভোটের রাজনীতির জন্যই কৃষিক্ষেত্রে সংস্কার চায় না বিরোধীরা, খোঁচা মোদীর

কৃষি সংস্কার নিয়ে পূর্বতন কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকারকে তোপ দাগলেন প্রধানমন্ত্রী।

হিমাচলের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

শনিবার মানালিতে বহু প্রতীক্ষীত অটল টানেলের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই টানেলের মাধ্যমে এবার মানালি-লেহর মধ্যে যাত্রাপথ আরও দ্রুত ও মসৃণ হবে। তবে এদিনও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর নয়া কৃষি আইন নিয়ে বিরোধীদের নিশানা করলেন মোদী। কৃষি সংস্কার নিয়ে পূর্বতন কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকারকে তোপ দাগলেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, কৃষিক্ষেত্রে সংস্কারের কথা ভেবেওছিল আগের সরকার। কিন্তু ভোটের রাজনীতি করার জন্য সেই সাহস দেখাতে পারেনি। বর্তমান এনডিএ সরকার ভোট রাজনীতির ঊর্ধ্বে গিয়ে সেই সাহস দেখিয়েছে কৃষকদের স্বার্থে।

এদিন তিনি কটাক্ষের সুরে বলেন, “যাঁরা এই আইনের বিরোধিতা করছে তাঁরা চায়, কৃষকরা আগের শতাব্দীতে যাতে পড়ে থাকেন। মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের উপর সরকারের আঘাতে ঘাবড়ে গিয়েছে বিরোধীরা।” সরকার নিয়ন্ত্রিত কিষাণ মাণ্ডির বাইরে গিয়ে কৃষকরা ফসল বেচতে পারবেন, এমনটা ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের ইস্তেহারে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল কংগ্রেসও। একই আইন আনার কথা বলেছিল। কিন্তু এখন রাজনৈতিক কারণে বিরোধিতা করছে, কটাক্ষ মোদীর। তিনি আরও বলেন, নয়া কৃষি আইন এবং শ্রম বিলের সাহায্যে সরকারের আত্মনির্ভর ভারতের স্বপ্ন সফল হবে। বর্তমান শতাব্দীতে মান্ধাতা আমলের নিয়মকানুন চলবে না।

আরও পড়ুন শীতে ভারতীয় সেনার অ্যাডভানটেজ, অটল টানেলের উদ্বোধন করলেন মোদী

যারা রাজনৈতিক স্বার্থের কারণে বিরোধিতা করেন, তাদের এই সংস্কারে গাত্রদাহ হবেই বলে কটাক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী। শ্রমক্ষেত্রে সংস্কারের ফলে মহিলারাও পুরুষদের সমান হারে পারিশ্রমিক ও সুযোগ সুবিধা পাবেন। তাঁর কথায়, “অতীতে কী হয়েছে সেই মানসিকতা নিয়ে ভবিষ্যত দুনিয়ায় প্রবেশ করা যায় না।” এর আগে এদিন লাহুল-স্পিতি অঞ্চলের শিশু গ্রামে জনসভা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে সরকার একাধিক সংস্কারের কথা বলেন মোদী। করোনাতঙ্ক কাটিয়ে প্রায় ৬ মাসেরও বেশি সময় পর কোনও জনসভা করলেন প্রধানমন্ত্রী। শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এই সভায় অংশগ্রহণ করেন স্থানীয়রা।

আরও পড়ুন মধ্যবিত্ত ও ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্পোদ্যোগকে স্বস্তি দিতে বড় ঘোষণা কেন্দ্রের

প্রসঙ্গত, এদিন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর হাতে সূচনা হল বিশ্বের দীর্ঘতম সুড়ঙ্গপথ ‘অটল টানেল’-এর। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০ হাজার ফুট উঁচুতে হিমালয়ের পিরপাঞ্জল রেঞ্জে আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে তৈরি হয়েছে এই টানেল। দৈর্ঘ্য ৯.২ কিলোমিটার। এই টানেলের মাধ্যমে মানালি থেকে লেহর দূরত্ব ৪৬ কিমি কমবে। যে দূরত্ব আগে ৪ ঘণ্টা লাগত যেতে এখন তা ১৫ মিনিটেই যাওয়া যাবে।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Pm narendra modi attacks oppositions over new farm laws

Next Story
“রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকে এগোচ্ছে দেশ”, হাথরাস ইস্যুতে তোপ প্রতিবাদী মমতার
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com