scorecardresearch

বড় খবর

গুরু রবিদাস এবং গোবিন্দ সিংকে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অপমান করেছেন: মোদী

‘ভাইয়ে’ মন্তব্যের জন্য চান্নিকে নিশানা করে অভিযোগ নরেন্দ্র মোদীর

modi_channi
পঞ্জাবের অবোহারে নির্বাচনী সভায় মোদীর হাতে লাঙল তুলে দিয়ে সম্মানিত করলেন স্থানীয় নেতৃত্ব।

চলতি বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের হয়ে উত্তরপ্রদেশে প্রচারের দায়িত্বে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢড়া। আবার, পঞ্জাবেও তিনি প্রচারের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। দিল্লি, বিহার, উত্তরপ্রদেশ নিয়ে চান্নির মন্তব্যে তালি দিয়ে প্রিয়াঙ্কা এখন নিজের হাতই কামড়াচ্ছেন। কারণ, চান্নির বেফাঁস মন্তব্য ইতিমধ্যেই লুফে নিয়েছেন বিজেপির সুপার হেভিওয়েট প্রচারক নরেন্দ্র দামোদরদাস মোদি।

ভোটপ্রচারে এসেছেন। মনের মতো ইস্যুও পেয়েছেন। তাই আর পঞ্জাব কংগ্রেসের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী চরণজিৎ সিং চান্নিকে কটাক্ষের সুযোগ বৃহস্পতিবার হাতছাড়া করলেন না মোদী। পঞ্চনদের রাজ্যে চান্নি উত্তরপ্রদেশ, বিহার, দিল্লিবাসীদের প্রবেশ করতে না- দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন ভোটপ্রচারে। সভায় শিখ ভাইদের এই আহ্বান জানাতে গিয়ে আত্মীয়তার সুরে গুরমুখীতে ‘ভাইয়ে’ বলে ডেকেও বসেছিলেন পঞ্জাব কংগ্রেসের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী। তারপর তো যা সমালোচনা হওয়ার হয়েইছে। বিহার থেকে দিল্লি, হাজারো নেতার সমালোচনার বাণে বিদ্ধ হতে হয়েছে। বাকি ছিলেন মোদী। এবার তিনিও স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গীতে কয়েককথা শুনিয়ে গেলেন চান্নিকে।

চান্নি অবশ্য আগেই ডিগবাজি খেয়েছেন। বৃহস্পতিবারই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে বিহার, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি থেকে পঞ্জাবে আসা লোকজনকে ‘ঘরের আত্মীয়’ পর্যন্ত বলে বসেছেন। কিন্তু, তাতেও মোদির সমালোচনার বাণ থেকে ছাড় মিলল না। চান্নিকে শুনতে হল, তাঁর বিহার, উত্তরপ্রদেশ আর দিল্লিবাসীদের সঙ্গে পঞ্জাবিদের পার্থক্য করার মানসিকতায় আসলে গুরুরা অপমানিত হয়েছেন। কারণ, যাঁর জন্মজয়ন্তী পঞ্জাব বুধবারই মহাসমারোহে পালন করল, সেই, গুরু রবিদাসের জন্ম হয়েছিল উত্তরপ্রদেশে। আর, শিখদের দশম গুরু গোবিন্দ সিংয়ের জন্ম হয়েছিল বিহারের পাটনা সাহিবে।

মোদী কথায়, ‘এই ধরনের মন্তব্য করে উনি শুধু বিহার বা উত্তরপ্রদেশের মানুষজনকেই নন, গুরু রবিদাস এবং গুরু গোবিন্দ সিংকে পর্যন্ত অপমান করেছেন। গতকাল (বুধবার) যাঁর জন্মজয়ন্তী পালন হল, সেই গুরু রবিদাস কোথায় জন্মেছিলেন? তিনি কি পঞ্জাবে জন্মেছিলেন? তিনি উত্তরপ্রদেশের কাশীতে জন্মেছিলেন। আর, আপনি কি না, উত্তরপ্রদেশের ভাইদের ঢুকতে দেবেন না? আপনি কি রবিদাসের অনুগামীদের ছুড়ে ফেলে দেবেন? আপনি কি সন্ত রবিদাসের নাম মুছে দেবেন?’

আরও পড়ুন- হিজাব ইস্যুতে মুখরক্ষায় মুসলিম জনপ্রতিনিধিদের দ্বারস্থ কর্নাটক সরকার

গুরু রবিদাসের পর মোদী তাঁর ভাষণে টেনে আনেন দশম শিখগুরু গোবিন্দ সিংকে। প্রচার সভা থেকেই প্রশ্ন ছুড়ে দেন, ‘গুরু গোবিন্দ সিং কোথায় জন্মেছিলেন? তিনি বিহারের পাটনা সাহিবে জন্মেছিলেন। আর, আপনি বলছেন বিহারের জনগণকে ঢুকতে দেবেন না। আপনি এরপর গুরু গোবিন্দ সিংকে অপমান করলেন ? যে ভূমিতে গুরু গোবিন্দ সিং জন্মগ্রহণ করেছিলেন, আপনি সেই ভূমিকে অপমান করলেন?’

‘ভাইয়ে’ চান্নিকে এভাবে কার্যত ধুয়ে দিয়ে এবার নরেন্দ্র মোদী তাঁর বক্তব্যে নিশানা করেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে। মোদী বলেন, ‘ গোটা দেশ দেখেছে, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী এই মন্তব্য করছেন। আর, তাঁর নেত্রী পিছনে দাঁড়িয়ে হাততালি দিচ্ছেন। এই বিভেদকামী মানসিকতার লোকেদের একমুহূর্তের জন্যও পঞ্জাব শাসনের কোনও অধিকার নেই। কারণ, উত্তরপ্রদেশে এবং বিহারের বাসিন্দারা পঞ্জাব এবং পঞ্জাবিদের সঙ্গে গভীর এবং পবিত্র সম্পর্কে আবদ্ধ।’

Read story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest National news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Punjab elections charanjit channi bhaiye remark narendra modi