নীতীশ বনাম বিজেপির কুর্সির লড়াই, বিহার বিধানসভায় কোন দলের বিধায়ক সংখ্যা কত

সরকার গঠনের জন্য দরকার ১২২ জন বিধায়কের সমর্থন।

নীতীশ বনাম বিজেপির কুর্সির লড়াই, বিহার বিধানসভায় কোন দলের বিধায়ক সংখ্যা কত
হিসেব কষেই পদত্যাগ করেছেন নীতীশ।

বিহারে ক্ষমতাসীন জেডি(ইউ)-বিজেপি জোটে অশান্তির মধ্যেই ঘটতে চলেছে পালাবদল। মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার রাজ্যপাল ফাগু চৌহানের সঙ্গে দেখা করে মঙ্গলবার তাঁর পদত্যাগপত্র পেশ করেছেন।
জোট রাজনীতিতে দ্বিতীয়বার বিজেপির পদ্ম ছেড়ে নীতীশ কুমার পদত্যাগের পরই ছোটেন পাটনায়, বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী রাবড়ি দেবীর বাসভবনে। যাতে আরজেডির সঙ্গে জোট গড়ে সরকার তৈরি করতে তাঁর কোনও অসুবিধা না-হয়।

২০২০ সালের বিধানসভা নির্বাচনে আরজেডি একক বৃহত্তম দল হিসেবে বিহারের রাজনীতিতে নিজেদের তুলে ধরেছে। তার মধ্যেই গত দুই মাস ধরে বিজেপির সঙ্গে জেডি (ইউ)-এর অশান্তি চলছিল। যাতে বিহার রাজনীতিতে তৈরি হয়েছিল অস্বস্তি। এই পরিস্থিতিতে, বর্তমানে বিহার বিধানসভায় কোন দলের কী অবস্থান, একবার দেখে নেওয়া যাক।

বিহারে ২০২০ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জাতীয় গণতান্ত্রিক জোট ১২৫টি আসনে জিতেছিল। যার মধ্যে বিজেপি পেয়েছে ৭৪টি, নীতীশ কুমারের জনতা দল (ইউনাইটেড) ৪৩টি, বিকাশশীল ইনসান পার্টি ৪টি এবং হিন্দুস্তান আওয়াম পার্টি (ধর্মনিরপেক্ষ) ৪টি আসন পেয়েছিল। এর জেরে এনডিএ সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ১২২-এর নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পার করেছিল।

আরও পড়ুন- কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সম্পত্তির হিসেব পেশ, ভাগের জমি দান করেছেন মোদী, দাবি খতিয়ানে

অন্যদিকে, আরজেডি এবং তার সহযোগীরা ১১০টি আসন জিতেছিল। তার মধ্যে আরজেডি ৭৫টি আসন নিয়ে একক বৃহত্তম দল হয়েছে। কংগ্রেস ১৯টি আসন জিতেছে। বাম দলগুলো যে ২৯টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল, তার মধ্যে তারা ১৬টিতে জিতেছিল। যার মধ্যে সিপিআই (এমএল-লিবারেশন) ১২টি জিতেছে। আসাদউদ্দিন ওয়াইসির এআইএমআইএম রাজ্যের সীমাঞ্চল অঞ্চলে পাঁচটি আসন জিতেছে। এর চারজন বিধায়ক অবশ্য সম্প্রতি দল পরিবর্তন করে আরজেডিতে চলে গেছেন।

সব মিলিয়ে বিহারের ২৪৩ আসনের বিধানসভায় একজন আরজেডি বিধায়কের মৃত্যুর কারণে সদস্য সংখ্যা ২৪২-এ নেমে এসেছে। যেখানে বর্তমানে বিজেপির রয়েছে 77 জন সদস্য। সংযুক্ত জনতা দল বা জেডি (ইউ)-এর আছে ৪৫ জন সদস্য, হিন্দুস্তান আওয়ামি পার্টি (ধর্মনিরপেক্ষ) বা এইচএএম (এস)-এর সদস্য সংখ্যা ৪। আরজেডির সদস্য সংখ্যা ৭৯। কংগ্রেসের সদস্য সংখ্যা ১৯। সিপিআই (এম-এল)-এর সদস্য সংখ্যা ১২, সিপিআইয়ের সদস্য সংখ্যা ৪, এআইএমআইএমের সদস্য সংখ্যা ১, নির্দল সদস্য রয়েছেন ১ জন। আর, চিরাগ পাসোয়ানের লোক জনশক্তি পার্টি পেয়েছে ১টি আসন। এই সব দলের সমর্থনেই গঠিত হতে পারে নতুন সরকার।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Nitish and bjp in bihar assembly

Next Story
মহারাষ্ট্রে মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ, বঞ্চিত বিদ্রোহী বিধায়কদের সামলাতে নাজেহাল শিণ্ডে