বিজেপিকে প্রশ্ন মুকুলের, কেন ‘বঞ্চিত’ বাংলা

“সরকার ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছে পরিযায়ী শ্রমিকদের কোনও তথ্য রাখবে না। খুড়োর কলের মত সারা দেশে ভোট করতে চায়।”

মুকুল রায়
একুশের বিধানসভা নির্বাচনে পরিযায়ী শ্রমকিরাও যে ভোটের হিসেব ওলট-পালট করে দিতে পারে তা এখন অনেকটাই স্পষ্ট রাজনৈতিক দলগুলির কাছে। এরই মধ্যে দেশের ৬ রাজ্যের ১১৬ জেলার পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য গরীব কল্যান রোজগার যোজনা ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ওই প্রকল্পে এই রাজ্যের একটি জেলারও নাম নেই। স্বাভাবিকভাবেই এরপর এই যোজনায় রাজ্যের প্রতি কেন্দ্রীয় বঞ্চনায় সুর চড়েছে। বঞ্চনার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল, কংগ্রেস ও সিপিএম। তবে এবিষয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

এদিনই এক টুইট বার্তায় তৃণমূল যুবর সর্বভারতীয় সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্য়ায় রাজ্যের ১১ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকের প্রতি বঞ্চনা নিয়ে সরব হয়েছেন। প্রশ্ন তুলেছেন কেন এই বঞ্চনা করা হল। এদিকে রাজ্যের কংগ্রেস ও সিপিএম নেতৃত্বও সরব হয়েছেন কেন্দ্রের এই প্রকল্পে বাংলার কোনও জেলার নাম না থাকায়।

“পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে প্রথম থেকেই অবহেলা করে আসছে কেন্দ্র”, বলেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। তিনি আরও বলেন, “পরিযায়ী শ্রমকিদের নিয়ে শুরু থেকেই টালবাহানা করছে কেন্দ্র। পরিযায়ী শ্রমিকরা কী করে, কীভাবে বাড়ি ফিরবে তার কোনও ব্যবস্থা নেই। সনিয়া গান্ধী যখন বললেন কংগ্রেস তাঁদের ঘরে ফেরার টাকা দেবে, তখন সবাই নড়েচড়ে বসল। প্রধানমন্ত্রী অনুরোধ করেছিলেন কারও মাইনে কাটা যাবে না। কিন্তু একতরফা ভাবে মাইনে কাটা গিয়েছে। পরিযায়ী ও স্থানীয় শ্রমিকরা কেন্দ্রীয় সরকারের বঞ্চনার শিকার।”

সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম বলেন, “কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্প মানেই ভাঁওতা। লকডাউন ঘোষণার প্রথম থেকে পরযায়ীদের কষ্ট ভোগ করতে বাধ্য করা হয়েছে। তাঁদের জন্য পরিবহণ বা রেশনের কোনও ব্যবস্থা করেনি কেন্দ্র। রেল জাতীয় সম্পত্তি, জাতীয় সমস্যার সময় কাজে লাগানো হয়নি। এদিকে নির্বাচনী প্রচারে নেমে পড়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছে পরিযায়ী শ্রমিকদের কোনও তথ্য রাখবে না। খুড়োর কলের মত সারা দেশে ভোট করতে চায়। গরীব কল্যান যোজনা আসলে গালভরা নাম।”

এদিকে আলনক ওয়ান থেকেই ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনী প্রচারে নেমে পড়েছে বিজেপি। অভিজ্ঞ মহলের মতে, পরিযায়ীদের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পে রাজ্যের কোনও জেলার নাম না থাকায় বিপাকে পড়েছে বঙ্গের পদ্ম শিবির। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, “রাজ্যের গাফিলতির জন্য় এই পরিস্থিতি হয়েছে। রাজ্য় পরিযায়ীদের কোনও তালিকা পাঠায়নি কেন্দ্রকে।” এদিকে বিজেপির জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য মুকুল রায় বলেন, “গরীব কল্যান যোজনায় ১১৬টি জেলার মধ্যে কেন পশ্চিমবঙ্গের নাম নেই তা নিয়ে আমি নিশ্চিতভাবে আমার তরফ থেকে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলব।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Politics news here. You can also read all the Politics news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Opposition political parties question to the central government project of migrant workers

Next Story
মিটমাট হয়ে গেল মমতা-পবনেরসিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন চামলিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করলেন এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com