scorecardresearch

‘সংসদে রাজনৈতিক ভাষণ মোদীর’, প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা কংগ্রেসের

রাষ্ট্রপতির বক্তব্যের জবাবি ভাষণ দেওয়ার সময় সংসদের দুই কক্ষেই কংগ্রেসকে তুলোধনা করে একাধিক বিষয়ে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী।

‘সংসদে রাজনৈতিক ভাষণ মোদীর’, প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা কংগ্রেসের
প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনায় কংগ্রেস।

এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে সংসদের গরিমা নষ্টের অভিযোগ বিরোধীদের। কংগ্রেস-সহ বিজেপি বিরোধী দলগুলির অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী সংসদ অধিবেশনের “অপব্যবহার” করেছেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণ নিয়ে আলোচনার জবাব দেওয়ার সময় পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের দিকে নজর রেখে সংসদে রাজনৈতিক বক্তব্য রেখেছেন মোদী, অভিযোগে সরব কংগ্রেস।

গত সোমবার এবং মঙ্গলবার লোকসভা এবং রাজ্যসভায় বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সংসদের দুই কক্ষে দেওয়া বক্তৃতায় কংগ্রেসকে তুলোধনা করেন মোদী। কংগ্রেসকে টার্গেট করে একের এপর এক তোপ দেগেছেন মোদী। তাঁর সরকারের কাজ নিয়ে প্রশ্ন করার রাজনৈতিক ও নৈতিক অধিকার নেই কংগ্রেসের, দাবি মোদীর। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামো, বাক স্বাধীনতা এবং কোভিড ব্যবস্থাপনা-সহ বিভিন্ন বিষয়ে কংগ্রেস তাঁকে প্রশ্ন করার অধিকার হারিয়েছে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। এক্ষেত্রে অতীতের বেশ কয়কটি বিষয় তুলে ধরে হাত-শিবিরকে আক্রমণ শানিয়েছেন মোদী।

সংসদে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যে বেজায় চটেছে কংগ্রেস। মোদীর তীব্র সমালোচনায় সরব কংগ্রেসের নেতারা। কংগ্রেসের পাশাপাশি বামেরাও প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনায় সরব হয়েছে। মঙ্গলবার রাজ্যসভায়, প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেসকে নিশানা করে বলেন, ”কেন্দ্রের কংগ্রেস সরকার ১৯৫৯ সালে কেরলের প্রথম নির্বাচিত কমিউনিস্ট সরকার-সহ বিরোধী একাধিক রাজ্যের সরকারকে বরখাস্ত করেছিল।”

সংসদে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে অভিযোগ কংগ্রেসের। রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে বলেন, ”বিতর্ক ছিল রাষ্ট্রপতির ভাষণ নিয়ে… তাঁর সরকার কী করেছে এবং কী করার পরিকল্পনা করছে, এগুলো নিয়ে। কংগ্রেসকে নিশানা করলেন তিনি। কারণ, পাঁচটি রাজ্যে নির্বাচন রয়েছে। তিনি একটি নির্বাচনী ভাষণ দিয়েছেন।”

আরও পড়ুন- লোকসভার পর রাজ্যসভাতেও আক্রমণাত্মক মোদী, ক্ষুব্ধ কংগ্রেসের কক্ষত্যাগ

বর্ষীয়ান এই কংগ্রেস নেতা আরও বলেন, ”আমরা সংসদের উভয় কক্ষে বেশ কয়েকটি বিষয় তুলে ধরেছি। অর্থনীতি, বেকারত্ব, মুদ্রাস্ফীতি, কোভিড ব্যবস্থাপনা, চিনা আগ্রাসন, আবাসন সংক্রান্ত বিভিন্ন সরকারি প্রকল্প তুলে ধরা হয়েছে। এগুলোর কোনও জবাব দেননি তিনি। তিনি কোনও তথ্য দেননি। পরিবর্তে, তিনি নেহরুর দিকে মনোনিবেশ করেন, তাঁকে কটূক্তি করেন। আপনি সংসদে এই সব বলার বদলে পাঁচটি নির্বাচনী রাজ্যে গিয়ে বলতে পারতেন। আপনি সংসদে দাঁড়িয়ে আছেন… মানুষ জানতে আগ্রহী যে সরকার তাঁদের জন্য কী পরিকল্পনা করছে।”

মোদীর সংসদ-ভাষণের সমালোচনা করে খাড়গে জানান, প্রধানমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় তাঁর সকরকারের ব্যর্থতার দায় বিরোধী দলগুলি শাসিত রাজ্য সরকারগুলির কাঁধে চাপাতে চাইছেন। তিনি আরও বলেন, ”তিনি পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্ভোগের জন্য রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন কে চালাত? সরকার সংসদকে জানায়, ৬৩.১৯ লক্ষ লোককে আনতে ৪ হাজার ৬২১টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালানো হয়। কারা সবচেয়ে বেশি ট্রেন ছেড়েছে? গুজরাট…আপনার রাজ্য। গুজরাট থেকে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৩৩টি ট্রেন ছেড়েছে। তাহলে, মোদী কি কোভিড ছড়াতে লোক পাঠাচ্ছেন? মহারাষ্ট্র থেকে মাত্র ৮১৭টি ট্রেন ছেড়েছে।”

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Pm narendra modi misused parliament to give campaign speech says opposition