scorecardresearch

শরদ-ফারুকের পথেই হাঁটলেন গোপালকৃষ্ণ, মমতার তিন নম্বর বাছাইও না করে দিলেন

‘আরও ভাল প্রার্থী খুঁজুন’, জানিয়ে দিলেন বাংলার প্রাক্তন রাজ্যপাল।

শরদ-ফারুকের পথেই হাঁটলেন গোপালকৃষ্ণ, মমতার তিন নম্বর বাছাইও না করে দিলেন
বাংলার প্রাক্তন রাজ্যপাল গোপালকৃষ্ণ গান্ধি প্রথম পছন্দ বিরোধীদের একাংশের।

প্রথমে শরদ পওয়ার, তার পর ফারুক আবদুল্লা। এবার গোপালকৃষ্ণ গান্ধিও মমতার প্রস্তাব প্রত্যাখান করলেন। রাষ্ট্রপতি পদে তিনিও দাঁড়াতে চান না বলে সাফ জানিয়ে দিলেন বাংলার প্রাক্তন রাজ্যপাল। এই নিয়ে বিরোধীদের তিন জন পছন্দের প্রার্থী সরে দাঁড়ালেন। এর আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পওয়ার। তার পর কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাও মমতার প্রস্তাবে না জানিয়ে দেন। এবার গোপালকৃষ্ণ গান্ধিও তাঁদের পথে হাঁটলেন।

সোমবার প্রার্থী না হওয়ার কথা জানিয়ে দিয়েছেন বিরোধী দলগুলিকে। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন, আরও ভাল কাউকে প্রার্থী করা হোক। তাঁর নাম প্রস্তাব করা হয়েছে তার জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হতে চান না তিনি জানিয়ে দিয়েছেন। তাঁর কথায়, এমন কাউকে প্রার্থী করা হোক যিনি জাতীয় ঐক্যমত্য প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন। প্রসঙ্গত, বিরোধীদের নিয়ে দিল্লিতে কনস্টিটিউশন ক্লাবে বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফারুক আবদুল্লা এবং গোপালকৃষ্ণ গান্ধির নাম প্রস্তাব করেন।

তার আগে দিল্লিতে শরদ পওয়ারের বাসভবনে বৈঠক করেন মমতা। কিন্তু রাষ্ট্রপতি পদে দাঁড়ানোর প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন শরদ। তার পর বিরোধীদের সঙ্গে বৈঠকে মমতা জানান, শরদ পওয়ারকে প্রার্থী করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তিনি না চাইলে ফারুক আবদুল্লা বা গোপালকৃষ্ণ গান্ধিকে প্রার্থী করার প্রস্তাব দেন মমতা। কিন্তু তার দিন কয়েক যেতে না যেতেই ফারুক আবদুল্লা মমতা দিদিকে তাঁর নাম প্রস্তাব করার জন্য ধন্যবাদ জানান। তবে প্রার্থী হবেন না বলে জানিয়ে দেন।

আরও পড়ুন ‘লাখখানেক চাকরির ৫০-১০০টা ভুল কেস হতেই পারে’, ‘দিদিমণি’র ড্যামেজ কন্ট্রোল

ছিলেন বাকি গোপালকৃষ্ণ গান্ধি। কিন্তু সোমবার তিনিও নিজের অনিচ্ছার কথা জানিয়ে দিয়েছেন। এর আগে ২০১৭ সালে উপরাষ্ট্রপতি পদে বিরোধীজের প্রার্থী হয়েছিলেন মহাত্মা-পৌত্র। কিন্তু সেবার বেঙ্কাইয়া নায়ডুর কাছে হেরে যান। মনে করা হচ্ছে, হেরে যাওয়ার ভয়েই একে একে শরদ পওয়ার, ফারুক আবদুল্লারা সরে দাঁড়াচ্ছেন। তাহলে কি গোপালকৃষ্ণ গান্ধিও কি সেই আশঙ্কায় প্রার্থী হতে চাইছেন না?

তবে বিরোধীদের প্রার্থী হবেন কে, তা নিয়ে বিরাট জল্পনা তৈরি হয়েছে। এদিকে, মঙ্গলবারই দিল্লিতে ফের বৈঠকে বসছে বিরোধী দলগুলি। এবারের বৈঠকের ডাক দিয়েছেন শরদ পওয়ার। কিন্তু এই বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন না মমতা। তাঁর বদলে তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এই বৈঠকে যোগ দেবেন। সেই বৈঠকে প্রার্থী চূড়ান্ত হয় কি না সেটাই দেখার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Politics news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Presidantial election 2022 gopalkrishna gandhi rejects oppositions proposal